বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভিডিও: আদিবাসীদের নিজস্ব ভাষায় কথা বলার ক্ষেত্রে তৈরী হীনমন্যতা প্রতিরোধ

এই প্রবন্ধটি আদিবাসী অধিকারের উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

আল জাজিরা টিভি চ্যানেলের লিভিং দা ল্যাঙ্গুয়েজ নামক ভিডিও সিরিজ আমাদের কাছে আদিবাসীদের কর্মকাণ্ডের এবং সমগ্র পৃথিবীর সকল সম্প্রদায়ের বহু ঘটনা তুলে ধরছে, যারা ভাষা বিষয়ক হীনমন্যতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছে এবং তারা এই সব আদিবাসী ভাষার স্থান পুনরুদ্ধারের জন্য বিভিন্ন পন্থার প্রস্তাব করছে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এমন র‍্যাপ ও হিপহপ শিল্পীদের অর্ন্তভুক্ত করা, যারা আইমার ভাষায় গান গায়, আইমারা ভাষা শিক্ষার জন্যে বিদ্যালয় স্থাপন ও একই সাথে আইমারা সংস্কৃতি এবং আইমারা কার্যক্রমকে সক্রিয়তা প্রদান করা। তাদের লক্ষ্যঃ আদিবাসী ভাষাকে আরও পরিচিত করানো ও শহুরে তরুণদের এতে অনুপ্রাণিত করা, যারা হয়ত নিজস্ব আদিবাসী ভাষায় কথা বলার ক্ষেত্রে লজ্জা অনুভব করে, এই কার্যক্রমের উদ্দেশ্য হচ্ছে এই সব তরুণদের নিজ ভাষা ও সংস্কৃতির গর্বিত প্রতিনিধি হিসেবে অনুপ্রাণিত করা।

গুয়াতেমালার মায়া জনগোষ্ঠীর কাহিনী অনেকটা আইমারাদের মত। একদল বিদেশী শাসকদের অধীন হওয়া, দাসত্ব ও ঔপনিবেশ সময়কাল মায়াদের মর্যাদা ধূলিতে মিশিয়ে দেয়, আর সেই সময়টায় তাদের নিজ দেশে বিদেশিদের মত জীবন যাপন করতে হয়।

শিক্ষা, রাজনীতি ও মিডিয়া সব কিছু সর্বোপরি স্প্যানিশ ভাষার দখলে, যখন শ্বেত মুখের হাসি ও বক্তব্য স্প্যানিশ ভাষাতে বিলবোর্ডে স্থান পায়, সমগ্র দেশজুড়ে।

“আমাদের ভাষা ও সংস্কৃতি (জন জীবনে) প্রতিফলিত হচ্ছে না” বলেন সাক’চেন রবার্টো মোনটেগো, “এটি আমাদের দৃশ্যমান হবার একটি পথ”

মায়া সম্প্রদায় ২০ টির বেশী ভিন্ন ভিন্ন ভাষায় কথা বলে। যার প্রতিটিই কার্যত রাষ্ট্রের কাছে গ্রহণযোগ্য। কিন্তু এই ভাষায় কথা বলা যাতে অনুশীলন করা হয়, তার জন্য প্রচেষ্টা খুব কমই।

নিউজিল্যান্ড-এর আদিবাসী মাওরিদের ভাষাকে পুনরুজ্জীবিত করার প্রয়াস ৩০ বছর আগে শুরু হয়। এপিসোড ভিত্তিক ভিডিও, একটিভিস্ট ও ভাষাবিদদের প্রয়াসকে তুলে ধরেছে, যেখানে তারা এমন এক উপায় নির্ধারণ করে, যার মধ্যে দিয়ে তারা কেবল ভাষাটিকে পুনরুজ্জীবিত করেনি, সাথে ‘ল্যাঙ্গুয়েজ নেস্ট, নামক উদ্যোগের মাধ্যমে মাওরি সংস্কৃতিকেও ফিরিয়ে এনেছে, যেখানে’ এর মাধ্যমে একেবারে শিশু এবং তাদের বাবা-মা, এই সম্প্রদায়ের প্রবীণদের কাছ থেকে মাওরি সংস্কৃতির শিক্ষা লাভ করে। এই সমস্ত নেস্ট (গৃহ শিক্ষালয়) ও মাওরি সংস্কৃতি পুনরুদ্ধার বিদ্যালয়ের ছাত্র ও এই বিষয়ে গ্রহণ করা কর্মসূচি সবই আজ বয়ঃপ্রাপ্ত হয়েছে, এদের অনেকে আজ কেবল শুধু দৈনন্দিন জীবনে ও কাজে মাওরি ভাষা ব্যবহার করে না, একই সাথে তারা বাড়ীতে এবং ল্যাঙ্গুয়েজ নেস্টের মাধ্যমে নিজদের ঐতিহ্যগত মূল্যবোধ তাদের সন্তানদের মাঝে প্রবাহিত করছে। এই সমস্ত এপিসোডের জন্য যে প্রচারণামূলক ভিডিও তৈরী করা হয়েছে আল জাজিরার সাইট-এ তা দেখা যাবে।

http://www.youtube.com/watch?v=MdJIumMsM70

এই সিরিজের অন্যান্য এপিসোডগুলো হচ্ছে কানাডা:দি কাটুয়ানাক্স (কানাডা:কাটুয়ানাক্সেরা), অস্ট্রেলিয়াঃ দি অ্যাবোরোজিনাল পিপল (অস্ট্রেলিয়াঃ আদিবাসী নাগরিকেরা) এবং সমন্বিত এক এপিসোড ল্যাঙ্গুয়েজ: এ্যাট থ্রেট অফ এক্সটিংকশন, (ভাষাঃ অস্তিত্বের হুমকির মাঝে) এবং ওভার দি এয়ারওয়েভ (বায়ু প্রবাহের উপর দিয়ে)।

এই প্রবন্ধটি আদিবাসী অধিকারের উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .