বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মায়ান্মার: ৩০০০ এর বেশী মানুষ মান্দালয় বারক্যাম্প ২০১১ এ অংশগ্রহন করেছে

মায়ান্মারের মান্দালয় শহর ফেব্রুয়ারী মাসের ১২ থেকে ১৩ তারিখ পর্যন্ত তাদের প্রথম বারক্যাম্প এর আয়োজন করেছে। আয়োজকদের প্রায় এক বছর সময় লেগেছে এই অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিতে।

উইকলি ইলেভেন এর প্রতিবেদন অনুসারে দুই দিনের এই অনুষ্ঠানে ৩১০০ জনের বেশী অংশগ্রহন করেছে, আর ফেব্রুয়ারী ১২, মানে মান্ডালে বারক্যাম্পের প্রথম দিনে, মোট ৫৬টি বিষয় আলোচিত হয়, আর দ্বিতীয় দিনে ৫২টি বিষয় আলোচিত হয়। বারক্যাম্পে অনেক বিষয় আলোচিত হয়েছে, যেমন তথ্য প্রযুক্তি, সাহিত্য, ভাষা, সমাজ, অর্থনীতি, স্বাস্থ্য আর শিক্ষা।

প্রথমে মান্দালয় বারক্যাম্প হওয়ার কথা ছিল ইনোয়া হোটেলে, কিন্তু পরে তা পাল্টিয়ে ৭৮ সড়কের পোপ্পা হোটেলে সরানো হয়।

নি মিন সান তার ব্লগে লিখেছেন স্থান পরিবর্তন নিয়ে আর কেন মান্দালয়তে স্থান বাছাই করা কঠিন ছিল:

“যদিও প্রথমে আমরা ইনোয়া হোটেল পছন্দ করেছিলাম, আমাদেরকে স্থানের ব্যাপারে আবার চিন্তা করতে হয়েছিল (মান্দালয় বারক্যাম্পের) কিছু সমস্যার সম্মুখীন হওয়ার কারনে। আমরা সবাই সম্ভাব্য একটা সমাধান নিয়ে আলোচনা করেছি আর একমাত্র সমাধান আমরা যা খুঁজে পেয়েছি তা হলো স্থান পরিবর্তন করা বা তারিখ পরিবর্তন করা। তারিখ পরিবর্তন করা খুব কঠিন কাজ কারন তা কাজের জন্য ভালো না যারা আমাদের অনুষ্ঠানকে প্রযোজনা করেছে তাদের জন্য, আর তা ছাড়া আমরা তারিখ প্রচার করেছিলাম, আর এর অনেক খরচ। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নেই তারিখ না পরিবর্তন করে, স্থান পরিবর্তন করতে।

যেহেতু মান্দালয়ে ইয়াঙ্গুনের মতো আইসিটি পার্ক নেই, তাই স্থান পছন্দ করা আমাদের জন্য খুব কঠিন ছিল। আমি আশা করি মান্দালয়ে একটা আইসিটি পার্ক যদি থাকতো।

স্থানের জন্য, বিদ্যমান হোটেলগুলোর মধ্যে খুঁজতে হয়েছে, আর এমন হোটেল যা আমাদের বাজেটের মধ্যে আসবে। আর স্থানটাতে যাতে সহজে যাওয়া যায়।“

১২ই ফেব্রুয়ারী তারিখে, নি মিন সান আর কো আগা সিএমএস প্রযুক্তি নিয়ে আলোচনা করেছিলনি মিন সান ১৩ তারিখে তিনি যেসব আলোচনা করবেন তা নিয়ে লিখেছেন:

“আজকে এমবিএস (মিয়ান্মার ব্লগার সোসাইটি) একটি প্যানেল আলোচনা করবে। মান্দালয়ের দিক থেকে, কো মেঘলা, কো থাখিঙ্ঘি, কো ইয়ে মিয়াত থু আর আমি যোগদান করবো। আর যারা এই বিষয়ে আগ্রহী তারা স্বাগত…

আর একটা বিষয় যেটা কো মেঘলা, কো থাখিঙ্গী আর আমি ভাবছি লাইটরুম নিয়ে একটা আলোচনা করবো। আমরা সবাই ফটো- রিটাচিং নিয়ে আলোচনা করবো।“

মান্দালয় এর একজন ব্লগার আর পিয়ার দলের নেতা মেঘলা, মান্দালয় বার ক্যাম্পের কথা তার ব্লগে লিখেছেন:

“আমরা ১২-১৩ ফেব্রুয়ারী পোপ্পা হোটেলে সফলভাবে মান্দালয় বারক্যাম্প ২০১১ আয়োজন করতে পেরেছি যা এই শহরে প্রথম বারক্যাম্প। এই অনুষ্ঠানে কেবল আইটি সংশ্লিষ্ট বিষয় না- বিভিন্ন বিষয় আলোচিত হয়। ২ দিনের এই অনুষ্ঠানে ৩১০০ জনের বেশী লোক এসেছিল। আমরা ভুল ভেবেছিলাম যে কেবল ১০০০ লোক আসবে। আমাদেরকে নতুন স্থানে যেতে হয়েছিল – নতুন স্থানে বড় কামরা নেই, যা একটা দুর্বলতা ছিল। আমি মূল আয়োজক মান্দালয় এমসিপিএ আর এমাইসিএ কে তাদের প্রচেষ্টার জন্যে ধন্যবাদ জানাতে চাই।“

বারক্যাম্পের অনুষ্ঠানের ছবি আপলোড করা হয়েছিল মান্দালয় বারক্যাম্প পাতায় ফেসবুকেমান্দালয়ব্লগারস.অর্গ মান্দালয় বারক্যাম্প নিয়ে একটা ছবি পোস্ট ও লিখেছিল।

মান্দালয় বারক্যাম্পের বিশাল সাফল্যের কারনে, পরিকল্পনা চলছে মান্দালয়ে একটা ছবি ক্যাম্প করার।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .