বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভারত: গোলাপী অর্ন্তবাস প্রতিরোধ

Pink Chaddi
যে কোন সাধারন বিকালে, বেশীরভাগ লোকালয়েই পুরুষ আর নারীর বাইরে গিয়ে পান করে ফুর্তি করা ঠিক আছে। আমরা বেশীরভাগ লোকই ‘নৈতিক দারোয়ানগিরি’ করে জীবন ধারণ করিনা। তবে ভারতে একজন নারী খাতাপত্রে যত স্বাধীন আর মুক্ত, কিন্তু কোথাও তার কোন নিশ্চয়তা নেই যে সে নিরাপদ থাকবে। ২৬শে জানুয়ারি ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে মুম্বাই এর দক্ষিণে ম্যাঙ্গালোরে রাম সেনা দলের একদল হিন্দু গোঁড়া কিছু কলেজগামী তরুণীর উপরে হামলা করে যারা স্থানীয় পানশালায় হাল্কা মদ্যপান করছিল। কোন ধরনের সাবধানবানী ছাড়া মেয়েগুলোকে লাঞ্ছনার স্বীকার হতে হয় আর তারা ভীত হয়ে পড়ে…সৌভাগ্যবশত: কেউ মারা যায়নি, কিন্তু আমি নিশ্চিত মানসিক আঘাতের পরিমাণ অনেক ছিল।

এই ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় গত ৫ই ফেব্রুয়ারি কয়েকজন গোলাপি অর্ন্তবাস প্রচারণা শুরু করে যারা অনলাইনে একটা ফেসবুক গ্রুপ তৈরি করেছেন “পানশালায় যাওয়া, উন্মুক্ত আর স্বাধীনচেতা নারীদের মোর্চা‘ নামে। তারা রাম সেনা দলকে ভ্যালেন্টাইনের উপহার হিসাবে গোলাপী রঙ্গের মেয়েদের প্যান্টি উপহার দেয়ার একটা মজার এবং সাহসী পদক্ষেপ চিন্তা করেছেন। একটা রাজনৈতিক দলকে অন্তর্বাস দেয়ার আক্ষরিক ক্রিয়ার চাইতে ভারতের সবার মাথায় এই অদ্ভুত চিন্তাটাই ঘোরপাক খাচ্ছে।

উপরের ভিডিওতে দেখুন রাম সেনার দলকে দেবার জন্যে স্তুপীকৃত অন্তর্বাস আর ‘ভালোবাসার চিঠি’ লেখা হয়েছে। এই প্রচারণার কি পরিকল্পনা রয়েছে তারই একটি উদাহরণ এই ভিডিও। তাই ভ্যালেন্টাইন্স দিবস পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে জানার জন্য যে আসলেই কার্যকারনে কি হল। ভ্যালেন্টাইন্স দিবসে তারা পানশালায় দেখা করার পরিকল্পনা করছে আর একটা করে টোস্ট করবে (যে কোন পানীয় চলবে) সকল ভারতীয় নারীর পক্ষে। সেই মিটিং রেকর্ড করে পরে সব একত্র করে একটা ভিডিও তৈরি করা হবে।

গোলাপী অন্তর্বাসের ভিডিও আর ছবি সংগ্রহ করা হচ্ছে রাম সেনাকে পাঠানোর জন্য, যেটা দেখা যাবে ফেসবুক গ্রুপের ছবির পাতায়

পিন্ক চাড্ডি (গোলাপি অন্তর্বাস) প্রচারণার অফিসিয়াল ব্লগে বলা আছে:

আমরা শুনেছি যে জনাব মুথালিক এর জবাবে গোলাপি শাড়ি ‘ভালোবাসা সহ’ পাঠাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমরা এটার প্রশংসা করি আর আর আশা করি উনি একই ধরনের অহিংসার পদ্ধতি অনুসরণ করবেন ওনার মনোভাব জানাতে, যেভাবে আমরা অহিংসা আর ভালোবাসার সাড়া বেছে নিয়েছি ম্যাঙ্গালোরে আর কর্নাটকের অন্যান্য অঞ্চলে প্রেমিক আর নারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে।

এ সত্ত্বেও ভারতের সব জায়গা থেকে মহিলারা, বিশেষ করে ব্যাঙ্গালোর থেকে যেখানে প্রচারণা শুরু হয়েছে, প্রস্তুতি নিচ্ছে রাম সেনা দলের নেতা ক্ষমতাধর জনাব মুথালিককে তাদের ব্যাক্তিগত কাজ করা অন্তর্বাস পাঠানোর।

অদ্ভুত হল ‘কামসূত্রের দেশে’ ভারতের সর্বত্র নারীকে নিজের অধিকার, নিরাপত্তা, যৌনতা আর স্বাধীনতার জন্য লড়তে হয়। রী দেওয়ান নামের এক নারী ফেসবুক গ্রুপে গোলাপী অন্তর্বাসের ছবি দিয়েছেন ‘ভারত, কামসূত্রের দেশ’ লেখা আর প্যাট্রিসিয়া চন্দ্রশেখর এতে মন্তব্য করেছেন:

বিশ্বাস হয়না কামসূত্রের দেশে এটা ঘটছে। এই লোকদের খাজুরাহোর ভ্রমণে পাঠান। নীজের চোখে এরা দেখুক। যৌনাবেদনময়ী মূর্তিগুলো অর্ন্তবাসও পরে নেই!

আমাদেরকে অপেক্ষা করে দেখতে হবে ভ্যালেন্টাইনের দিনের অর্ন্তবাসের স্তূপ রাম সেনা কি ভাবে গ্রহণ করে।

ভারতে নারীদের ক্ষমতায়নের প্রচেষ্টা এই মুহূর্তে এটিই একমাত্র না। আরো কম নাটকীয় কিন্তু কার্যকর প্রচারণা চলছে। সেই নারীরা যারা সম্পূর্ণ আলাদা সামাজিক-অথনৈতিক পরিবেশ থেকে আসে বিভিন্ন ভারতের অঞ্চল থেকে, তারা সাক্ষ্য দেয় নারীর ক্ষমতায়নের। নাভসারজান এনজিও কমিউনিটির মিডিয়া দল আপনা মালাক মা, এই ভিডিওটি গর্ব সহকারে দেখান। গুজরাটের গ্রামের এক মহিলা গ্রামের কাউন্সিলকে তারা তুলে ধরেন যারা কল্পনাতীত উন্নয়ন কাজ করেছে আর তাদের গ্রামের অনেক বিষয়ে নিষ্পত্তি করেছে। উদারণ হিসেবে রয়েছে তাদের পুকুরে নালার পানি পড়া আর নদীতে বালি জমা হওয়া, যা ২০ বছর ধরে নিষ্পত্তি হয়নি এবং যার মানে ছিল যে পানি সরবরাহের লাইন আর কুয়া শুকিয়ে থাকত।

থাম্বনেইল ইমেজ নেয়া হয়েছে ক্যারিবিয়ান ফ্রি ফটোর ‘দ্যা হার্ট দ্যাট সিঙ্গস’ ছবি থেকে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .