বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পোল্যান্ড: ওবামার জয়ে প্রতিক্রিয়া

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরপরই পোলিশ ব্লগোস্ফিয়ার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিল। ব্লগে লেখেন এমন রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, মাইক্রোব্লগার এবং ব্লগাররা আমেরিকার নির্বাচন নিয়ে কৌতুহলী ছিলেন এবং যখন ওবামা জয়লাভ করে তখন তারা তাদের আনন্দ প্রকাশ করে। তবে তারা একই সঙ্গে তাদের বর্তমান পোলিশ প্রেসিডেন্ট ও সরকার সমন্ধে হতাশাপূর্ণ মতামত প্রদান করেছেন যা অনেকটা সবারই মত।

যেমনটা আশা করা হয়েছিল – ওবামার জয় সামাজিক মাধ্যম বা সোশাল মিডিয়াগুলোতে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। বিষয়টি ফুটে উঠে ইউটিউব-এ পাওয়া এক সাক্ষাৎকারে (পোলিশ ভাষায়)। সাংবাদিক বারটোজ ওয়েগলারজাস্কি নির্বাচনী প্রচারণা শেষে ওবামার সাফল্যে নিশ্চিত ছিলেন। ওবামাকে এই উৎসাহজনক স্বাগত জানানোয় পোলিশ ব্লগাররা মুগ্ধ।

বেইলি ডোমেক (হোয়াইট হাউস) ব্লগ এর লেখক মারসিন গাডজনিস্কি। তিনি তার আমেরিকা বিষয়ক ব্লগে একটি লেখা প্রকাশ করেন যার শিরোনাম আমেরিকা, ধন্যবাদ তোমাকে। যার প্রতিচ্ছবি সে দিন প্রকাশিত হয়েছিল। (পোলিশ ভাষায়)

শিকাগোর গ্রান্ট পার্কের ওইসব লোকদের দেখেছেন কি?

কেউ কি দেখেছে একজন কালো আমেরিকান ব্যাক্তি যার শিশুর মতো চেহারা এবং যার লম্বা কান রয়েছে, সে কোন মঞ্চের উপর দাড়িয়ে আছে?

তার পিতা ছিল কেনিয়ার লোক। তার মা কানসাসের এক গ্রাম থেকে এসেছেন। আজ তাদের সন্তান বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশের রাষ্ট্রপতি।

সারা বিশ্ব তা দেখেছে এবং সকলে একক আমেরিকার শক্তিকে অনুভব করেছে। এই আনন্দ ও গর্ব ছিল সে রকম যে রকম গর্ব সবাই প্রকাশ করেছে যখন মানুষ চাঁদে অবতরন করেছে। কেনেডি হত্যাকান্ডের সময় যেমন সবাই একসাথে শোক অনুভব করেছে। যেমন ভয় অনুভব করেছে ৯/১১ এর সময় এবং এরপর যে একাত্বতা তারা অনুভব করেছে। এক বিশাল আমেরিকার অনুভূতি, যে অনুভূতি সুনামির মত বিশ্বকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়।

কারন আমেরিকা তাদের রাষ্ট্রপতি হিসেবে বেছে নিয়েছে ওবামাকে আজ এবং এর জন্য তারা আজ গর্বিত, এবং এ রকম গর্ব তারা করতে পারে। সারা পৃথিবীর লোক তাদের উপর চোখ রাখছে। আবারো।

মারসিন বলছেন যে পোলিশ মিডিয়া এই নির্বাচনের উপর কড়া নজর রেখেছে। আরএমএফ এফএম নামে একটি নেতৃস্থানীয় রেডিও স্টেশন একটি পোর্টাল তৈরি করেছে। টিভিএন২৪ নিউজ স্টেশন নানা ধরনের মতামত সহ দ্রুত বা তৎক্ষনাৎ খবর সরবরাহ করার কারনে জনপ্রিয়। তারা এই বিষয় নিয়ে অনেকগুলো পোস্ট করেছিল যার মধ্যে শিকাগো থেকে পাওয়া ভিডিও চিত্রও ছিল। ১০,৩৮৬ জন পোল্যান্ডবাসী (এদের জাতীয়তার ভিত্তিতে নয় আইপি বা ইন্টারনেট প্রোটকল এর ভিত্তিতে বাছা হয়েছিল) ওবামকে ভোট দিয়েছিল যদি বিশ্ব ভোট দিতে পারতো আর্ন্তজাতিক ওয়েবসাইটে। গেজেটা এ ব্যাপারে আরো বিস্তারিত ছেপেছিল। তারা জানাচ্ছে প্রধাণত তরুন ভোটার এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায় এই জয়ে বড় অবদান রেখেছে।

পাওয়েল আদামিক আমেরিকা ২০০৮ ব্লগ-এর লেখক। এই ব্লগ আমেরিকার নির্বাচনকে উৎসর্গ করেছিল। সে ওবামার পক্ষে ঝান্ডা তুলে ধরে এবং তার জয়ের গুরুত্ব তৈরী করে বিশেষত যখন আমেরিকা সমান অধিকারের জন্য লড়াই করছে। তিনি ওবামাকে তার রহস্যজনক ব্যাক্তিত্বর প্রজ্ঞাপূর্ণ প্রচারণার জন্য তহবিল নিয়ে আসা এবং নানা বর্ণের মানুষের কাছে নিজেকে উপস্থাপন করার জন্য প্রশংসা করেন।

তিনি উপসংহার টানেন:(পোলিশ ভাষায়)

আমাকে আমেরিকার জনগনকে অভিনন্দন জানাতে দাও, তারা প্রমান করেছে আমেরিকার গণতন্ত্র আসলে কতটা উন্নত হয়েছে।

একই সময় অবশ্য পোলিশ রাজনীতিবিদরা ওবামার যোগ্যতা নিযে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে। প্রেসিডেন্ট কাজজিনিস্কি এক সাক্ষাৎকারে বলেন সত্যিকারের পরিবর্তন নিয়ে নতুন প্রেসিডেন্টের যে পরিকল্পনা তা সমন্ধে তিনি আরো বিস্তারিত জানতে চান। লেচ ওয়ালেসা আমেরিকার পরবর্তী প্রেসিডেন্টের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন (পোলিশ ভাষায়):

আমি চিন্তিত কারন জয় লাভ করা এক জিনিস আর সত্যিকারে জয়ের মাধ্যমে কিছু অর্জন করা অন্য জিনিষ।

এখন আমেরিকার রাজনীতি পোল্যান্ডের প্রতি মনোভাবে কি ধরনের পরিবর্তন হতে পারে এসএলপি পার্টির প্রতিনিধিত্বকারী জের্জি ওয়ান্ডারলিখ সেই সমন্ধে বলছেন (পোলিশ ভাষায়):

পোলিশ জনগনের জন্য ভিসা প্রথা বাতিল করে দেওয়া নতুন প্রশাসনের জন্য একাটা ভালো অর্জন হতে পারে।

পলিটব্যুরো একটি রাজনৈতিক সংবাদ পোর্টাল। ব্যবহারকারী ইন্টেল-ই জেন্ট পোলিশদের জন্য একটা কৌতুহলজনক বিষয় উপস্থাপন করেছে। তার মতে পারমানবিক ঢাল এর পরিকল্পনা পোলিশ ভুখন্ডের মধ্যে নির্মাণ করা যেতে পারে (পোলিশ ভাষায়):

আমি বিশ্বাস করি আমেরিকার রাষ্ট্রপতি হিসেবে ওবামার জয় পোলিশদের উপর তেমন কোন প্রভাব ফেলবে না। মনে হয় আমাদের ওই মিসাইল প্রতিরোধক নির্মাণ করা লাগে না।

এর আগে ওবামাকে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে উনি তা এড়িয়ে গেছেন

ব্লগার যেমন জেরস্ল ফ্লিস, ওলয়াডাস্লা সিডোরোইজ, আর্টূর জাইউসজা এবং অন্য আরো অনেকে এই নির্বাচন সমন্ধে পোলিশ রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে তাদের দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ করে। জনগণ তাদের মন্তব্য গেজেটা ফোরামে ও টিভিএন২৪-এর সাইটে প্রকাশ করেছে। গোল্ডেনওমেন লিখেছে (পোলিশ ভাষায়):

পোল্যান্ডে, আমরা দিকচক্রবলে কোন এ রকম ব্যাক্তির আভাষ দেখছি না।

ওবামা ভবিষ্যৎের জন্য যে পদক্ষেপই নিক না কেন এই মুহুর্তে তিনি পোলিশ সোশাল মিডিয়ার পছন্দের ব্যাক্তি।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .