বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

চিলিঃ মাইক্রোসফ্টের সাথে একটি বিতর্কমূলক চুক্তি

চিলির ব্লগারদের মধ্যে একটা ধারনা হয়েছে যে তাদের অর্থমন্ত্রী আলেয়ান্দ্রো ফেরেরো আর মাইক্রোসফ্ট এর প্রধান গবেষনা আর কৌশল কর্মকর্তা ক্রেইগ মুন্ডি'র মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিটি চিলির জন্য ভাল হবে না। এলফ্রাঙ্কোটিরাডর ব্লগে ক্রিস্টিয়ান উপরোক্ত শিরোনামে তার লেখায় খুব সহজে ঘটনাটি ব্যাখ্যা করেছেনঃ

তোমাদের কেমন লাগবে যদি আমি বলি যে আজ থেকে দেড় কোটি (সব) চিলিবাসী মাইক্রসফ্টের সফ্টওয়্যার ব্যবহার করবে তারা চান বা না চান? আমার সেরকমটিই মনে হয়েছে।

আর, আমি যদি আরো বলি যে যে কোন রাষ্ট্রীয় বা মিউনিসিপাল লেনদেন করতে মাইক্রসফ্টের সফ্টওয়্যার লাগবে? এতেও থেমে থাকছে না ব্যাপারটি কারন দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার পুরোটা মাইক্রোসফ্টের প্লাটফর্ম থেকে চলবে আর প্রত্যেকটি নিবন্ধিত ছাত্র ওই কোম্পানির প্রাধিকারমূলক খদ্দেরে পরিনত হবে।

মাইক্রসফ্ট চিলিবাসীদের তথ্য কিনে নিচ্ছে?

ডিয়াব্লোএন্ডেটালেস ব্লগের কারলোস চুক্তির কিছু অংশ তুলে ধরেছেন:

একটা সাধারন পটভুমি তৈরি করা হবে যেখানে নাগরিকরা সমস্ত সরকারি সংস্থার জরুরি তথ্য জানতে পারবে এবং তাদের সাথে তথ্যের আদান প্রদান করতে পারবে।

মাইক্রসফ্ট দেড় কোটি ব্যবহারকারীকে মেইল, সরাসরি যোগাযোগ, ব্লগ আর মোবাইল থেকে বিনা মূল্যে এগুলোর ব্যবহার এর নিশ্চয়তা দিচ্ছে। মাইক্রসফ্ট এটির স্থাপনা থেকে শুরু করে চালানোর সব খরচ বহন করবে।

অনেকের জন্য এই চুক্তি ক্রমেই খারাপের দিকে যাচ্ছে । অর্থ মন্ত্রী অভ্যন্তরীন রাজস্ব দপ্তর থেকে সাধারন নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্য দিতে রাজি হয়েছেন যাতে নাগরিকদের উপরোক্ত সেবার জন্য বিল করা যায়। ফেয়ারওয়্যার ব্লগ বলেছেন যে, মাইক্রসফট ১৮ থেকে ৩৫ বছরের সব চিলিবাসীদের উইন্ডোস, ওয়ার্ড, এক্সপ্লোরার আর মাইক্রসফ্টের অন্যান্য সফ্টওয়্যার শেখাবে বলেছে।

কম্পিউটর না, ডাটা প্রসেসর না, ওয়েব না, শুধু মাত্র ওদের এবং ওদেরই সফ্টওয়্যার ব্যবহার করতে হবে – ধন্যবাদ মাইক্রসফ্ট!

রড্রিগো ওয়াকার বলেছেন যে চুক্তিটা উন্মুক্ত টেন্ডার করে করা উচিত ছিল কিন্তু এতে হয়ত বিনামূল্যে সফ্টওয়্যার পাওয়া যেত না।

ব্লগারদের প্রতিক্রিয়া থেমে থাকে নি। “দ্যা ফ্রন্ট অফ ডিজিটল লিবারেশন” একটি বিপ্লব যা ডিজিটাল উন্নয়নের ব্যাপারে গৃহীত সকল সিদ্ধান্ত সম্বন্ধে জানায় এবং এ অনুযায়ী পদক্ষেপ নিতে বলে। এই উদ্দ্যোগটি মাইক্রসফটের সাথে অসম চুক্তি করার প্রতিক্রিয়া হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ব্লগাররা এই উদ্দ্যোগকে সমর্থন করতে পারেন যেখানে ইতিমধ্যে ৭৩৮টি স্বাক্ষর জমা হয়েছে।

এ নিয়ে ফোরাম আলোচনা রয়েছে তারেও এবং এটিনা চিলিতে (উভয়ই স্প্যানিশ ভাষায়)।

- রোজারিও লিজানা

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .