বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ঢাকার রাস্তার রাজা বর্ণিল রিক্সা!

Rickshaw of Dhaka recorded at Guinness World Records 2015 making heading "most cycle rickshaw in one town". In Dhaka city about 6 Lac rickshaw available.15 million people are living in Dhaka city and 40% people travelling in the city by rickshaw. Image by blackthorne57 used under Creative Commons license (CC BY-NC 2.0).

ঢাকার রাস্তায় রিক্সা। ছবি তুলেছেন ব্ল্যাকথর্ন৫৭। ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় প্রকাশিত।

ঢাকার অনেক পরিচয়। বাংলাদেশের রাজধানী শহর, বিশ্বের অষ্টম জনবহুল শহর, যানজটের শহর, মসজিদের শহর, মোগল স্থাপত্যের শহর। তবে, এসবের বাইরেও ঢাকার আরো একটি পরিচয় রয়েছে। সেটা হলো রিক্সার শহর। যেদিকেই যাবেন, রিক্সা চোখে পড়বে।

ঢাকায় আনুমানিক ৬ লাখ রিক্সা রয়েছে। যদিও সরকারি হিসেবে নিবন্ধিত রিক্সার সংখ্যা এক লাখও নয়। ইতিহাস ঘেঁটে জানা যায়, ১৯৪১ সালে ঢাকায় মোটে ৩৭টি রিক্সা ছিল

Dhaka's roads are packed with rickshaws in all hues contributing to its traffic woes. Image by Kazi Minhazur Rahman used under Creative Commons license (CC BY-NC 2.0).

ঢাকার রাস্তায় যানজটের জন্য রিক্সাকে দায়ী করা হয়। ছবি তুলেছেন কাজী মিনহাজুর রহমান। ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় প্রকাশিত।

বাংলাদেশের সমতল ভুমির দেশ। এখানে সবার জন্য যথেষ্ট যানবাহন নেই। তাছাড়া রিক্সা ভাড়াও বেশ কম। সেজন্য দেশটিতে রিক্সার সংখ্যা এতো বেশি। এদিকে দেশটির সবচে’ ব্যস্ততম শহর ঢাকার যানজটের জন্য রিক্সাকে দায়ী করা হয়ে থাকে। সিডনি সাইক্লিস্ট ফোরামে একজন লিখেছেন:

When I say that rickshaws are everywhere, I do mean everywhere; aside from the sound of car-horns, the constant sonic backdrop is a chorus of tinkling bicycle bells and the tin carcases of empty rickshaws rattling over the uneven roads.

আমি যেহেতু বলেছি, যেদিকে যাবেন রিক্সা চোখে পড়বে। ধরে নিন, ভুল কোনো কিছু বলিনি। গাড়ির ভেঁপু’র পাশাপাশি রিক্সার ঘণ্টাধ্বনি টুংটাং করে টানা বেজে যায়। তাছাড়া উঁচুনিচু রাস্তা ধরে রিক্সার চলে যাওয়া দেখে মনে হয়, টিনের কংকাল যেন বয়ে নিয়ে যাচ্ছে কেউ, কোথাও!

অ্যাবস্ট্রাক ফিল্স ইউটিউবে রিক্সার ওপরে একটি ছোট্ট তথ্যচিত্র আপলোড করেছেন। তথ্যচিত্রটিতে রিক্সাওয়ালাদের জীবন, পেশাগত চ্যালেঞ্জের দিকগুলো ওঠে এসেছে।

বাংলাদেশে রিক্সার আগমন ১৯৩০ সালের দিকে। সত্তর দশক পর্যন্ত এটি ঢাকা’র সাধারণ বাহন ছিল। এখনও সস্তা, পরিবেশবান্ধব বাহন হিসেবে রিক্সা টিকে আছে। বর্তমানে ঢাকার ৪০ শতাংশ মানুষই রিকশায় চড়ে। রিক্সার উপর বিপুল সংখ্যক মানুষের জীবিকাও নির্ভর করে।

Rickshaw Art. Image by Anduze traveler used under Creative Commons license (CC BY-NC 2.0).

রিক্সা চিত্র। ছবি তুছেলেন অ্যান্ডুজ ট্রাভেলার। ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় প্রকাশিত।

বাংলাদেশে শুরুর দিকের রিক্সাগুলোতে তেমন একটা অলংকরণ করা থাকতো না। ষাটের দশকে রিক্সাগুলোতে নানা ধরনের অলংকরণ করা শুরু হয়। বিশেষ করে, রিক্সার পিছনের দিকে। এই অলংকরণ এখন শহুরে শিল্পের মর্যাদা পেয়েছে। এতে সাধারণত সিনেমার নায়ক-নায়িকা, পশু-পাখি, প্রাকৃতিক দৃশ্য, সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয়াবলী এমনকি বিন লাদেনের ছবিও দেখা যায়। রিক্সা আর্ট নামের একটি ফেসবুক পেইজে ঢাকা শহরের রিক্সাগুলোর মোটিভ তুলে ধরা হয়েছে।

তবে রিক্সা আর্ট এখন শুধু রিক্সাতে সীমাবদ্ধ নেই। শাড়ি, পোশাকের ডিজাইনেও স্থান পেয়েছে। আবার প্রতিবাদের মাধ্যম হিসেবেও এখন রিক্সাকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

A Rickshaw Puller takes short break to rejuvenate him for the rest of the day's hardship. Images by Mirza Ferdous Alam used under Creative Commons license (CC BY-NC 2.0).

সারাদিন হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের পর একটু জিরিয়ে নিচ্ছেন এক রিক্সাওয়ালা। ছবি তুলেছেন মির্জা ফেরদৌস আলম। ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় প্রকাশিত।

ঢাকায় রিক্সার একটি বধ্যভুমি আছে। বিশ্বাস হয় না। দেখুন টুইট করা এই ছবিতে:

বাংলাদেশের রিক্সার বধ্যভুমি…

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .