বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

· ডিসেম্বর, 2015

গল্পগুলো আরও জানুন দক্ষিণ এশিয়া মাস ডিসেম্বর, 2015

31 ডিসেম্বর 2015

রাজ্য সরকারের সমালোচনাকারী গানের জন্য দক্ষিণ ভারতের গায়কের বিচার করা হয়েছে

'সঙ্গীত শিল্পী, কার্টুন শিল্পী এবং লেখকদেরকে অনবরত গ্রেফতার করার জন্য একটি আইন যার গণতন্ত্রে কোন স্থান নেই--এবং অবশ্যই বাতিল করতে হবে।'

28 ডিসেম্বর 2015

জলবায়ুর পরিবর্তন ইতিমধ্যেই যুদ্ধের চেয়েও বেশি মানুষকে গৃহহারা করছে

“আমরা দেখি যে একটা চরম বিন্দুতে পৌঁছনো পর্যন্ত কষ্ট সহ্য করা হয় এবং মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয় -তারপর অন্য জায়গায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।”

সতেরো ছবিতে উঠে এলো সারাবিশ্বের বড়দিন উৎসব

গ্লোবাল ভয়েসেস-এর যারা যারা বড়দিন উদযাপন এবং রাতের খাবার-দাবারের ছবি শেয়ার করেছেন, তাদের সবাইকে ধন্যবাদ।

26 ডিসেম্বর 2015

নেপালের দক্ষিণাঞ্চলীয় সমভূমিতে রাজ মৃগয়ার ইতিহাস বর্বরতা ছাড়া আর কিছুই নয়

'১৯১৪ সালে যার হত্যাকাণ্ড প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সূত্রপাত করে এমনকি সেই আর্চডিউক ফ্রান্তস ফার্দিনান্দও মার্চ ১৮৯৩ সালে মহারাজা বীর শমশের কর্তৃক আমন্ত্রিত হয়ে নেপালে শিকার করতে...

23 ডিসেম্বর 2015

নেপালী বাঘ সংরক্ষণবিদ যিনি একটি চোখ হারিয়েছেন এবং লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিয়-এর রোদচশমা লাভ করেছেন

'যে বাঘটি আমাকে আক্রমণ করেছিল আমি সেটিকে খুঁজে মেরে ফেলতে চেয়েছিলাম, কিন্তু তারপর আমি ভাবলাম এটি হয়তো বিপদ থেকে নিজেকে বাঁচানোর জন্য আমাকে আক্রমণ করেছে।

21 ডিসেম্বর 2015

সেন্সর বোর্ডে আটকে আছে চাকমা ভাষায় নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র

সম্প্রতি বাংলাদেশে মর থেঙ্গারি নামে চাকমা জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রা নিয়ে চাকমা ভাষায় একটি সিনেমা নির্মিত হয়েছে। তবে ছবিটি দীর্ঘদিন ধরে ছাড়পত্রের জন্য সেন্সর বোর্ডে আটকে আছে।

20 ডিসেম্বর 2015

ভারতীয় উপমহাদেশের গৃহকর্মীরা আরো বেশি কিছু আশা করেন

ভারতীয় উপমহাদেশের গৃহকর্মীরা অল্প বেতন, আইনি সুরক্ষার অভাব, দুর্ব্যবহারের শিকার হয়ে থাকেন প্রায়ই। তবে ধীর গতিতে হলেও অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে।