বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

· মার্চ, 2011

গল্পগুলো আরও জানুন প্রযুক্তি মাস মার্চ, 2011

সিরিয়া: মিশরীয়-মার্কিন টুইটারকারী গুপ্তচর হিসেবে অভিযুক্ত হয়েছে

মিশরীয়-মার্কিন টুইটার ব্যবহারকারী মুহাম্মেদ রাদোয়ানকে (@বাতুত্তা) সিরিয়ায় গ্রেফতার করা হয়েছে এবং সেদেশের টেলিভিশনে তাকে এক গুপ্তচর হিসেবে প্রদর্শন করা হয়েছে, যার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, সে “ গোপন এক ভ্রমণে ইজরায়েল গিয়েছিল এবং সে বাইরের রাষ্ট্র থেকে সিরিয়ার অভ্যন্তরের ছবি এবং ভিডিও প্রদানের বিনিময়ে অর্থ গ্রহণ করেছে"। ধারণা করা হচ্ছে তার গ্রেফতারের ঘটনায়, পুরো মিশরীয় সাইবার জগৎ-এর বাসিন্দারা আসাদের শাসনের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করবে।

পোস্টটি পড়ুন

মায়ান্মার: ৩০০০ এর বেশী মানুষ মান্দালয় বারক্যাম্প ২০১১ এ অংশগ্রহন করেছে

  25 মার্চ 2011

মায়ান্মারের মান্দালয় শহর ফেব্রুয়ারী মাসের ১২ থেকে ১৩ তারিখ পর্যন্ত তাদের প্রথম বারক্যাম্প এর আয়োজন করেছে যাতে ৩০০০ জনের ও বেশী লোক অংশ নেয়। ট্যান বার্মিজ ভাষার ব্লগ এবং ওয়েবসাইট থেকে অনুবাদ করে আমাদের জানাচ্ছেন এই বারক্যাম্পের খবর।

পোস্টটি পড়ুন

চীন: তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ার গুজব; সব জায়গায় পাগলের মত লবণ কেনা আতঙ্কে ঘি ঢেলেছে

  21 মার্চ 2011

জনতাকে নিশ্চিত করার জন্য একটি সরকারি বার্তা প্রচার করা হয় যে জাপানের পারমাণবিক দুর্ঘটনা থেকে সমুদ্রে তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ার কারণে তা চীনের লবণ সরবরাহের উপর প্রভাব ফেলবে না। এই বিষয়টি গুজব ছড়াতে থাকে এবং এর ফলে প্রধান শহরগুলোতে পাগলের লবণ কেনার মত এক আতঙ্কের সৃষ্টি করে, যার ফলে শহরগুলোর দোকান এখন লবণ শূন্য হয়ে পড়েছে।

জর্ডান: আমি জর্ডানকে ভালবাসি কারন…

জর্ডানের টুইট পরিমণ্ডলের বাতাসে ভালবাসা ভেসে বেড়াচ্ছে। জর্ডানবাসীরা কেন তাঁদের দেশকে ভালবাসে সে বিষয়ে তাঁদের অনুভূতি টুইটার এর নতুন হ্যাশট্যাগ# আমিজর্ডানকেভালবাসি-এর মাধ্যমে ব্যক্ত করেছেন। বেটসি ফিশার এই সব প্রতিক্রিয়াগুলোকে তুলে ধরেছেন।

ভিয়েতনাম: ফেসবুক সেন্সরশীপ এবং নাগরিকদের তা উপেক্ষা করা

  11 মার্চ 2011

যদিও ভিয়েতনামে কর্তৃপক্ষ নিয়মিত ভাবে ফেসবুক বন্ধ করে রাখে, তারপরেও ভিয়েত টান মনে করেন যে ফেসবুক ভিয়েতনামের নাগরিক অবাধ্যতার (সিভিল ডিসঅবিডিয়েন্স/আইন না মানা) একটি উপাদান হতে পারে।