বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

· জানুয়ারি, 2010

গল্পগুলো আরও জানুন ডিজিটাল অ্যাক্টিভিজম মাস জানুয়ারি, 2010

ইরান: সবুজ এক সঙ্গীতকে প্রতিবাদের সমর্থক হিসেবে ব্যবহার করা

  30 জানুয়ারি 2010

একটি গানকে মোবাইলের একটি রিঙটোনে পরিণত করা হয়েছে। ১৯৮০-এর দশকে ইরান-ইরাক যুদ্ধের সময় এই গানটি তরুণ ইরানীদের যুদ্ধে যাবার জন্য উৎসাহিত করত। সেই গানটি এখন ইরানের বিরোধীদের সমর্থনে বাজানো হচ্ছে। হামিদ তেহারানি "ইয়ে ইরান" গানটির ব্যাপারে ব্লগারদের প্রতিক্রিয়া পর্যালোচনা করছেন।

পোস্টটি পড়ুন

মিশর: বলার অধিকার

  30 জানুয়ারি 2010

২২ জানুয়ারি মিশরীয় ব্লগার এবং এক্টিভিস্টরা এক সম্মেলনের আয়োজন করে। তাদের এই সম্মেলন ছিল বলার অধিকার নিয়ে যা ২০ জন ব্লগারকে গ্রেফতার করা উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হয়। কিছুদিন আগে নাগা হাম্মাদিতে এক গণহত্যায় বেশ কিছু কপ্ট খ্রীস্টান নিহত হয়। সে সময় একদল ব্লগার ও এক্টিভিস্ট ট্রেনে করে নাগা হাম্মাদিতে পৌঁছায়। তারা সেখানে নামার সাথে সাথে ২০ জন ব্লগারকে গ্রেফতার করা হয়। মারওয়া রাখা এই পোস্টে গ্রেফতারের ঘটনার উপর তাদের প্রতিক্রিয়ার সারাংশ তুলে ধরেছেন।

রাশিয়া: বিরোধী ব্লগার অবশেষে বিদেশে যাবার অনুমতি পেল

রুনেট ইকো  30 জানুয়ারি 2010

রাশিয়ার একজন প্রতিবাদী ব্লগার ওলেগ কজলোভস্কি সেই গল্প বলেছেন যে কি ভাবে তার ব্লগের একটি লেখা তাকে পাসপোর্ট পেতে সাহায্য করেছে যার ফলে তিনি বিদেশে যেতে পেরেছেন। দেশের ফেডারেল নিরাপত্তা সংস্থা (এফএসবি) কজলোভস্কিকে একটি নতুন পাসপোর্ট প্রদান করতে অস্বীকৃতি জানালে তিনি এই ব্যাপারটি নিয়ে তার ব্লগে লিখেছিলেন। ফলশ্রুতিতে নিরাপত্তা সংস্থাটি...

গাজায় সংঘটিত যু্দ্ধের উপর নির্মিত “টু শুট এন এলিফেন্ট” এর বিশ্বব্যাপি প্রদর্শন

  29 জানুয়ারি 2010

টু শুট এন এলিফেন্ট একটি তথ্যচিত্রের নাম। এটি তৈরি করেছে স্প্যানিশ নাগরিক আলবার্টো এরেস এবং প্যালেস্টাইনের মোহাম্মেদ রুজাইলাহ। এক বছর আগে গাজায় সংঘটিত যুদ্ধের উপর এই চলচ্চিত্র তৈরি করা হয়েছে। যুদ্ধের সমাপ্তির প্রখম বছর পূর্তি উপলক্ষে এই চলচ্চিত্র মুক্তি দেওয়া। ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে এই চলচ্চিত্রটিকে মুক্তি দেওয়া হয়। সারা বিশ্বে বিশেষভাবে এটিকে প্রদর্শন করা হয়।

ভিডিও: মাদক বৈধকরণ এবং জীবনের উপর প্রাক-প্রতিবন্ধকতা তৈরি

  27 জানুয়ারি 2010

সংসারে এমন অনেক ব্যক্তি রয়েছেন যারা উচ্চকণ্ঠে মাদককে বৈধ করার দাবি জানাচ্ছে, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তার মানে কি? হান্গেরি থেকে কলম্বিয়া, তরুণ থেকে শিক্ষক, পুলিশ থেকে যাজক, ব্যক্তি থেকে দল, এর সবাই সম্ভাব্য এই বিতর্কিত বিষয়টির পক্ষে যুক্তি প্রদান করতে সিটিজেন মিডিয়া বা নাগরিক প্রচার মাধ্যম ব্যবহার করছে।

পোস্টটি পড়ুন

তিউনিশিয়া: এবার তারা এরাবিকা বন্ধ করে দিয়েছে!

  26 জানুয়ারি 2010

তিউনিশিয়ার ব্লগার ফাতমা এরাবিকা। দুই মাস আগে তাকে একবার গ্রেফতার করা হয়েছিল। গত সপ্তাহে তিনি আবার ব্লগ করার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি তার নতুন ব্লগে একটি মাত্র লেখা পোস্ট করেন। কর্তৃপক্ষ দ্রুততার সাথে তার ব্লগ বন্ধ করে দেয়। তিউনিশিয়ার ব্লগাররা তার ব্লগ এবং সাথে অন্য ব্লগ বন্ধ করে দেবার ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে।

পোস্টটি পড়ুন

আজারবাইযান: ভিডিও ব্লগার দুই তরুণ এক্টিভিস্টকে জেলে বন্দি রাখার কারণে লন্ডন ও প্যারিসে বিক্ষোভ প্রদর্শন

  25 জানুয়ারি 2010

যে দিন বন্দি তরুণ ব্লগিং এক্টিভিস্ট আদনান হাজিজাদে এবং এমিন মিলির আবেদনের শুনানি হবার কথা ছিল, সেদিন এই দুই ব্যক্তির সমর্থকরা লন্ডন ও প্যারিসে অবস্থিত আজারবাইযান দুতাবাসের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছে

পোস্টটি পড়ুন

আলজেরিয়া: স্বায়ত্তশাসনের জন্য আদিবাসীদের প্রতিবাদযাত্রা

  23 জানুয়ারি 2010

আলজেরিয়ার আদিবাসী কাবিলি সম্প্রদায়ের লোকেরা কেন্দ্রের কাছ থেকে আরো স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে রাস্তায় বিক্ষোভ করেছে। সরকার এই বিষয়ে প্রচার মাধ্যমে এক অন্ধকার অবস্থার সৃষ্টি করে রেখেছে। এই আন্দোলনের সমর্থকরা ঘটনাটি ইন্টারনেটে তুলে ধরেছে।

পোস্টটি পড়ুন

তিউনিশিয়া: ব্লগাররা ছাত্রদের জেলে পাঠানোর বিরুদ্ধে

  21 জানুয়ারি 2010

সম্প্রতি তিউনিশিয়ায় একদল ছাত্রের বিচার করা হয়। বিচার শেষে তাদের শাস্তি হিসেবে বিভিন্ন মেয়াদের জেল প্রদান করা হয়। এর মধ্য ছয়মাস থেকে তিন বছরের জেলও রয়েছে। এই সমস্ত ছাত্রদের অপরাধ তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক ব্যবস্থা নিয়ে এক জায়গায় বসে থেকে আন্দোলন করেছিল। হলে মেয়েদের অধিকার আদায়ের জন্য তাদের এই আন্দোলনের ফলে তাদের উপর এত বড় শাস্তি নেমে এল। এই ঘটনায়, ব্লগাররা দ্রুত তাদের সমর্থনে এক আন্দোলন শুরু করে। এই আন্দোলনে তারা শাস্তি পাওয়া ছাত্রদের মুক্তি দাবি করে। বিস্তারিত লিখেছেন লিনা বেন মেন্নি।

পোস্টটি পড়ুন

সিরিয়া: সাংবাদিক মায়েন আকেলকে এখনো বন্দি করে রাখা হয়েছে

  21 জানুয়ারি 2010

মায়েন আকেল সিরিয়ার একজন সাংবাদিক। তিনি ১১ নভেম্বর, ২০০৯-তারিখে গ্রেফতার হন। সিরিয়ান ইন্টেলিজেন্সি ডিপার্টমেন্ট (রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা) তাকে দামেস্ক থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে তাকে তার পত্রিকা আল থাউরা থেকে বহিষ্কার করা হয়। এটি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পত্রিকা। কেন তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তার কারণ এখনো জানা যায়নি।