বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

· মার্চ, 2016

গল্পগুলো আরও জানুন শিল্প ও সংস্কৃতি মাস মার্চ, 2016

সৌভাগ্যের প্রত্যাশায় আগুনের উপর দিয়ে ঝাঁপ দেয়া ইরানের নওরোজের ঐতিহ্য

২১ মার্চ সারা বিশ্বের মানুষ নওরোজ উদযাপন করে। নতুন বছরের প্রথম দিন শুধু ছুটি নয়, বরং এটা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা, রান্না করা, পরিবার-পরিজন নিয়ে উদযাপনের উৎসব।

২০ শতকের ঔপনিবেশিক সময়ের রঙিন ছবিতে ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর ও ফিলিপাইনের রাস্তার চিত্র উঠে এলো

ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করলে ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর ও ফিলিপাইনের হাতে রং করা এমন কিছু ছবি পাওয়া যাবে, যেগুলো ২০ শতকের শুরুর দিকের। ছবিগুলো আপনাকে স্মৃতিকাতর করে তুলবে।

নেপালের ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলিতে রাস্তা শিল্পীরা সমবাহু ত্রিভুজের ছবি আঁকছেন

কাঠমুন্ডুর রাস্তাগুলো এখন একটি নতুন ধরণের শিল্পকর্মের জন্য ক্যানভাস হয়ে উঠেছে – আর তা হচ্ছে, ভূমিকম্পে ভেঙ্গে পড়া জীর্ণ ভবনের সম্মুখে আঁকা সমবাহু ত্রিভুজ চিত্র।

শিল্পের মাধ্যমে মেক্সিকোতে রাস্তায় সংঘঠিত যৌন হয়রানী বিরুদ্ধে লড়াই করছে দি ডটার অফ ভায়োলেন্স-এর নারীরা

তিনজন মেক্সিকান নারী রাস্তায় যৌন সহিংসতার বিরুদ্ধে কৌতুক এবং পাঙ্ক রক গানের মাধ্যমে লড়াই করে যাচ্ছে।

ভালবাসা দিবসে মাদাগাস্কার থেকে অবিশ্বাস্য প্রেমের চারটি কবিতা

আমার সমগ্র হৃদয় আজ উন্মত্ত, আর সে ভুলে যেতে চায়, যাকে আমি ভালবাসি তার চারপাশ ঘিরে আজ নীরবতা, কিন্তু আমি আমার বিশ্বাসের প্রতি অটল রয়েছি।

হাতে নির্মিত কবচ বিনিময়ের বলকান ঐতিহ্য “দিদিমা মার্চ দিবস”

বলকান মানুষের দিদিমা মার্চ দিবসকে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে রক্ষা করার জন্য ২০১৩ সালে চার দেশ-ম্যাসেডোনিয়া, বুলগেরিয়া, রোমানিয়া ও মলদোভা একত্রিতভাবে ইউনেস্কোর কাছে আবেদন জমা দিয়েছে।

মালয়েশিয়াতে “স্বাধীন প্রচার মাধ্যমের জন্য” গ্রাফিক্স শিল্পীদের অনলাইন পোস্টার প্রচারাভিযান শুরু

"আমরা মনে করি যে মালয়েশিয়ায় বাক স্বাধীনতার উপর সর্বশেষ হামলার আলোকে মালয়েশীয়দের প্রচার মাধ্যম এবং ইন্টারনেটের স্বাধীনতা দাবি করার সময় এসেছে।"

জাপানে আয়েশী খাবার হিসেবে পরিচিত রামেন এখন শিল্পে উন্নীত হয়েছে

জাপানি খাবার হিসেবে বিশ্ববাসী জানে সুশির কথা। কিন্তু খোদ জাপানের সবচে' জনপ্রিয় খাবার হচ্ছে রামেন।