বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভারতীয় সেনাবাহিনীর পুরস্কারপ্রাপ্ত মেজরের বিরুদ্ধে কাশ্মীরি যুবককে নির্যাতনের অভিযোগ

কাশ্মীরে ভারতীয় বিশেষ বাহিনী। ছবি উইকিপিয়া। সিসি-বিওয়াই-এসএ-৪.০ এর আওতায় প্রকাশিত।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে সেনাবাহিনীর এক মেজরের বিরুদ্ধে কাশ্মীরি যুবককে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার শাদিমার্গ গ্রামে অবস্থিত ভারতীয় সেনাবাহিনীর ৪৪ ইউনিটের রাশতিয়া রাইফেলস ক্যাম্পে। এই ইউনিট জঙ্গী বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে থাকে।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর মেজর রোহিত শুক্লা পুলওয়ামার সেনাক্যাম্পে এক শিক্ষার্থীকে নির্যাতন করেন। এরপর তাকে জঙ্গী হিসেবে দেখাতে তার হাতে রাইফেল ছবি দিয়ে তুলতে বলেন। এরপর ভুয়া এনকাউন্টারেও তাকে হত্যা করার কথা বলেন।

নির্যাতনের শিকার কাশ্মীরি যুবকের নাম তৌসিফ আহমেদ ওয়ানি। চিকিৎসার জন্য তাকে শ্রীনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে সে দাবি করে মেজর রোহিত শুক্লা তাকে নির্যাতন করেছে। মেজর শুক্লা ভারতীয় বাহিনীর একজন পদস্থ কর্মকর্তা। তিনি ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৃতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘সূর্য চক্র’ পুরস্কার পেয়েছেন। ২০১৮ সালে জঙ্গী বিরোধী অভিযানে সফল ভূমিকা রাখায় রাষ্ট্রপতি তাকে এই পুরস্কারে ভুষিত করেন।

ওয়ানি দাবি করেন, মেজর তাকে রাইফেল হাতে পোজ দিতে বলেন। না হলে তাকে এনকাউন্টারে হত্যার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। আর রাইফেল হাতে ছবি তুলে ফেইসবুকে পোস্ট করলে স্পষ্টতঃ তাকে জঙ্গী বলে মনে হবে।

সাবাশ ভারতীয় সেনাবাহিনী এবং মেজর শুক্লা। ভারতীয় সেনার হাতে নির্দয়ভাবে আহত তৌসিফকে এসএইচএমএস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও তাকে অস্ত্র হাতে ছবি তোলা এবং তার বোনকে অপহরণের হুমকি দেয়া হয়েছে।

যদিও ভারতীয় বাহিনী দাবি করেছে, এটা জঙ্গীদের প্রোপাগান্ডা। তারা চাপ সৃষ্টি করতে সেনাবাহিনী কর্তৃক ব্যক্তি বিশেষকে নির্যাতনের অভিযোগ এনেছে।

সেনাবাহিনী কাশ্মীরে অন্যায় কোনো কিছু করেনি: মেজর শুক্লা সম্পর্কে কাভিন্দার গুপ্তা
শ্রীনগর ফেব্রুয়ারি ৬: রাজ্যের সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপির সিনিয়র নেতা কাভিন্দার গুপ্তা বলেছেন যে, কাশ্মীরে কাশ্মীরিদের সাথে সেনাবাহিনী কখনোই অন্যায় কিছু করবে না।

ওয়ানির ভাই ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি করেন। সংবাদে প্রকাশ, তিনি বর্তমানে কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত রয়েছেন। কিছু কিছু সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার বাবাকে জঙ্গীরা হত্যা করেছে।

এই ঘটনা ইতোমধ্যে রাজনৈতিক রূপ নিয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরের সাবেক মূখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি হাসপাতালে গিয়ে আহত যুবককে দেখতে গিয়েছেন। এবং জড়িত মেজরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার নির্যাতিত যুবকের স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিতে মেহবুবা মুফতি এসএইচএমএস হাসপাতালে গিয়েছেন।

মেহবুবা মুফতি: গভীর সমবেদনা রইলো
তৌসিফ আহমেদ ওয়ানি: ভোটের জন্য বুঝি

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে:

দেখুন, ভারত কীভাবে কাশ্মীরে জঙ্গী বানাচ্ছে!
একজন সাইকোপ্যাথ আর্মি মেজর জোর করে সাধারণ নাগরিককে জঙ্গী বানাচ্ছে। আর জঙ্গী সাজতে রাজি না হলে তাকে ভুয়া এনকাউন্টারে হত্যার হুমকি দিচ্ছে।

মেজর শুক্লা কেন কোনো কারণ ছাড়াই যুবকদের আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু বানাচ্ছেন?

মেজর শুক্লা:
বন্দুক হাতে ছবি তুলে আগামীকাল পোস্ট করতে হবে। আর তা যদি না করো, তাহলে সামনের দিনের এনকাউন্টারে আমি তোমাকে হত্যা করবো।
.
.
এরপর তারা বলবে, কেন কাশ্মিরীরা ভারতীয় সেনাবাহিনীকে ঘৃণা করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .