বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

নেট-নাগরিক প্রতিবেদন: ইথিওপিয়ায় ‘জরুরী অবস্থা'য় নেতৃস্থানীয় সাংবাদিক ও রাজনৈতিক কর্মীদের গ্রেপ্তার

২১ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে কারাগার থেকে মুক্তি লাভের পর বেফেকাদু হাইলুকে স্বাগত জানিয়েছেন মাহলেত ফান্তাহুন এবং তার বন্ধুরা। ছবি @মিনিলিকসালসাভি

অ্যাডভক্স নেট-নাগরিক প্রতিবেদন বিশ্বজুড়ে ইন্টারনেট অধিকারগুলির ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা, সমস্যা থেকে উত্তরণ এবং উদীয়মান প্রবণতাগুলির একটি আন্তর্জাতিক আলোকপাত উপস্থাপন করে।

মার্চ মাসের ২৬ তারিখে, ইথিওপীয় কর্তৃপক্ষ সাংবাদিক এস্কিন্দার নেগা টেমেসঘেন দিসালি, অঞ্চল৯ ব্লগার বেফেকাদু হাইলুমাহলেত ফান্তাহুন, এবং দে বিরহান ব্লগ লেখক যেলালেম ওয়ার্কাজেয়নুকে গ্রেপ্তার করেছে। ইতিপূর্বেও এদের সবাইকে সাংবাদিক বা মানবাধিকার কর্মী হিসেবে তাদের কাজের জন্যে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল।

২৬ মার্চের সপ্তাহে তারাই একমাত্র লক্ষ্যবস্তু ছিলেন না। নাম প্রকাশ না করার শর্তে গ্লোবাল ভয়েসেসের একটি স্থানীয় উৎস আনুমানিক ২০ জনের বেশি সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ এবং বিশিষ্ট বিরোধীদলীয় সদস্যকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে। ইথিওপিয়ার মানবাধিকার সমিতির জারি করা একটি চিঠিতে সারা বিশ্বের নাগরিক সমাজের সমর্থকরা  ১১জন সাংবাদিকের মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে।

বিশিষ্ট রাজনৈতিক সাংবাদিক নেগা এর আগে সন্ত্রাসের অভিযোগে প্রায় সাত বছর জেলে কাটিয়েছিলেন। এই সপ্তাহে গ্রেপ্তার করার জন্যেই তাকে কয়েক সপ্তাহ আগে ১৪ ফেব্রুয়ারি তারিখে কারাগার থেকে মুক্ত করা হয়।

নেগা কারাগারে সংঘটিত “অমানবিক” অবস্থা বর্ণনা করে সেখান থেকে একটি বার্তা পাঠিয়েছেন:

…অল্প কথায় বলতে গেলে কারাগারে আমাদের অবস্থা ছিল অমানবিক। কারাগারে থাকার চেয়ে একে গাদাগাদি করে থাকা বলা ভাল। ৮মিটার (২৬.২৪ ফুট) দৈর্ঘ্য এবং ৫মিটার (১৬.৪ ফুট) প্রস্থের একটি কক্ষে আমাদের ২০০ জনকে তিনটি অংশে ভাগ করে রাখা হয়েছিল। ভালভাবে শুতে বা বসতে না পারা এই জায়গায় সবার একটি টয়লেটে যাওয়ার সীমিত সুযোগ ছিল। এটা আমাদের মতো অন্যায়ভাবে (গ্রেপ্তারকৃতদের) তো নয়ই, অপরাধ নির্বিশেষে কোন ব্যক্তির জন্যেই যোগ্য নয়। বিশ্ব সম্প্রদায়কে এই ধরনের একটি ঘটনা সম্পর্কে সচেতন হতে এবং আমাদের দুঃখকষ্টের অবসান ঘটানোর জন্যে প্রত্যেক সম্ভাব্য উপায় ব্যবহার করতে হবে।

“সাম্প্রতিক অতীতে জেলে থাকার সময় মেরুদণ্ডে মারাত্মক ব্যথা অনুভব করার কারণে” টেমেসঘেনকে কারাগার থেকে জিউদাতু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

হাইলু এবং ফান্তাহুন দু'জনই গ্লোবাল ভয়েসেস সম্প্রদায়ের সাথে কাজ করেছেন। ২০১৪ সালে সমষ্টিগত ব্লগ অঞ্চল৯-এ অংশগ্রহণের কারণে আরো ৭জন ব্লগার এবং সাংবাদিক সহকর্মীদের সাথে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। সেখানে তারা মানবাধিকার ও সাংবিধানিক আইন বিষয়ে তাদের সরকারের দায়িত্ব সম্পর্কে লিখেছিলেন।

বিধিবহির্ভূতভাবে ১২ সপ্তাহ আটক থাকার পর লেখকদের ইথিওপিয়ার সন্ত্রাসবাদবিরোধী ঘোষণার অধীনে অভিযুক্ত করে এক বছরেরও বেশি সময় কারান্তরালে রাখা হয়। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে রাষ্ট্রপতি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার রাষ্ট্রীয় সফরের অব্যবহিত পূর্বে কোন রকম ব্যাখ্যা ছাড়াই কাউকে কাউকে মুক্তি দেয়া হয়। বাকিদের বেকসুর খালাস দেয়া হয় ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে।

তারপর থেকে উভয় ব্লগারই রাষ্ট্রীয় কর্তৃপক্ষের নজরদারিতে রয়েছেন।

এর সবই ঘটেছে একটি ঝঞ্ঝাপূর্ণ রাজনৈতিক পরিবেশে। ২০১৫ সালের মাঝামাঝি থেকে হাজার হাজার ইথিওপীয় আরো বেশি রাজনৈতিক স্বাধীনতা এবং সামাজিক সমতাসহ  ইথিওপিয়ার বৃহত্তম জাতিগত গোষ্ঠীর বাসস্থান অরোমিয়া অঞ্চলে সরকারি জমি দখল বন্ধের দাবি করতে শুরু করেছে। সরকারি প্রতিক্রিয়াটি ছিল নৃশংস: শত শত মানুষ নিহত, হাজার হাজার গ্রেপ্তার হয়েছে এবং অফলাইন বা অনলাইন উভয় ধরনের সমালোচনামূলক কণ্ঠস্বর পদ্ধতিগতভাবে থামিয়ে দেয়া হয়েছে।

২০১৭ সালের শেষের দিকে ইথিওপিয়ার ক্ষমতাসীন জোট বিভক্ত হয়ে পড়লে এর রাজনৈতিক পতন ঘটে এবং ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে হাইলেমারিয়াম দেসালিন পদত্যাগ করেন।

এখন পর্যন্ত ৭,০০০ লোকের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রত্যাহার করা হয়েছে অথবা তাদের ক্ষমা করা হয়েছে – কিন্তু এই সপ্তাহে মুক্তিপ্রাপ্ত অনেককে আবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের ভাগ্য অনিশ্চিত।

ক্যামব্রিজ এ্যানালিটিকা ট্রেনের পরবর্তী গন্তব্য: ভারত

ক্যামব্রিজ এ্যানালিটিকার সাবেক গবেষণা প্রধান সত্য ফাঁস করে দেয়া ডেটা বিজ্ঞানী ক্রিস্টোফার উইলি ভারতের অন্যতম প্রধান বিরোধী দল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস বিতর্কিত ডেটা আহরণকারী প্রতিষ্ঠানটির একটি ক্রেতা ছিল বলে যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্যদের জানিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের কোম্পানিটির সাথে (প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিজেপিসহ) অন্যান্য ভারতীয় রাজনৈতিক দলের চুক্তি থাকার অভিযোগও প্রচারে এসেছে

মার্চের ২৮ তারিখে যুক্তরাজ্যের সংসদীয় কমিটির সামনে উইলি তার জবানবন্দিতে ডেটা আহরণকারী প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা উল্লেখ করেছেন যা মধ্য মার্চে প্রতিষ্ঠানটি যে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের না জানিয়েই তাদের আচরণ ও মানসিক মানচিত্রের ডেটা মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারে ব্যবহার করেছে একথা অবজার্ভার এবং নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকার সাংবাদিকরা প্রকাশ করার পর থেকে শিরোনামগুলির উপর প্রভাব বিস্তার করে আসছে

উইলি তার জবানবন্দিতে ভারত এবং কেনিয়াতে কোম্পানিটির কাজের সমালোচনা করেছেন। কেনিয়াতে ক্ষমতাসীন জুবিলী পার্টি ক্যামব্রিজ এ্যানালিটিকাকে ভাড়া করেছিল। একটি টুইটে তিনি “আধুনিক দিনের উপনিবেশবাদ”-এর সঙ্গে এটির তুলনা করেছেন

আফ্রিকার সবচেয়ে জনবহুল দেশ নাইজেরিয়াতেও নির্বাচন ভূলুণ্ঠিত করার উদ্দেশ্য ডেটা  আহরণের কাজে ক্যামব্রিজ এ্যানালিটিকা জড়িত ছিল।

জাপানে ডেটা নিয়ে সন্দেহ দানা বেধেছে

কেমব্রিজ এ্যানালিটিকা কেলঙ্কারী উন্মোচনের উত্তাপে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের প্রধান মন্ত্রীপরিষদ সচিব ২৭ মার্চ তারিখে সাংবাদিকদের বলেছেন ফেসবুক থেকে সংগৃহীত ব্যক্তিগত তথ্য বেআইনী ব্যবহারের তদন্ত করছে জাপানী সরকার। জাপানের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিধিতে ব্যবহারকারীদের সুস্পষ্ট সম্মতি ছাড়া কোম্পানি গুলির জন্যে তৃতীয় পক্ষের সাথে ব্যবহারকারীদের তথ্য ভাগাভাগি করা নিষিদ্ধ।

ডেটা খোদকদের হাত থেকে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রক্ষা করুন

সম্মতি না নিয়ে ক্যামব্রিজ এ্যানালিটিকা'র ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ডেটা ব্যবহারের খবর ছড়িয়ে পড়ার অল্প সময়ের মধ্যেই ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ্লিকেশানগুলিতে আপনার ডেটাতে প্রবেশাধিকারের মাত্রা সীমিত করতে সাহায্য করার জন্যে ইলেকট্রনিক সীমান্ত ফাউন্ডেশন একটি সংক্ষিপ্ত নির্দেশিকা প্রকাশ করে। এটি এখানে দেখুন।

তুরস্ক অনলাইন ভিডিও আইন কঠোর করেছে

তুরস্কের সংসদ দেশের সম্প্রচার নিয়ন্ত্রককে ইউটিউব, পেরিস্কোপ এবং সম্ভবতঃ ফেসবুকের মতো অনলাইন ভিডিও মঞ্চগুলির জন্যে একটি অনুমোদন গ্রহণের ব্যবস্থা প্রবর্তনের ক্ষমতা দিয়ে একটি নতুন আইন পাশ করেছে যা নিয়ন্ত্রকটিকে সরকারের বিষয়বস্তু অপসারণের অনুরোধ সঙ্গে সঙ্গে না মানা মঞ্চগুলিকে নিরীক্ষণ এবং এদের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার অনুমতি দেবে। সকল মঞ্চকে নিয়ন্ত্রকের কাছ থেকে একটি লাইসেন্স নিতে হবে এবং যারা এটা করবে না তারা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে।

সাইবার অপরাধের জন্যে সিরিয়ায় বিশেষ আদালত সৃষ্টি

সিরিয়ার মন্ত্রী পরিষদ সাইবার অপরাধ আইন ১৭/২০১২-এর একটি সংশোধনী পাশ করেছে, যা “কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে অপরাধের উস্কানীদাতা অথবা প্রচারকারী যে কোন ব্যক্তি”–কে এক থেকে তিন বছর কারাদণ্ড এবং দেড় হাজার মার্কিন ডলার (প্রায় ১লক্ষ ২২৬ হাজার বাংলাদেশী টাকা) পর্যন্ত জরিমানা শাস্তি প্রদান করবে। এই সংশোধনীটি সাইবার অপরাধের প্রথম উদাহরণের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ আদালত তৈরি করেছে যার  আদেশগুলিকে আপীল আদালতে চ্যালেঞ্জ করা যাবে। পূর্বে সাইবার অপরাধ আইনে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিচার সামরিক আদালতসহ কোনো আদালতে  করা যেত।

মিয়ানমারে রাজনৈতিক কর্মীদের মানহানি আইনের প্রতিবাদ

মায়ানমারের কুখ্যাত ফৌজদারি মানহানি আইনের প্রতিবাদে স্থানীয় প্রযুক্তি হাব ফন্দেয়ার ২২ টি নাগরিক সমাজের সমাজ সংগঠনের একটি জোটের অংশীদারিত্বে #৬৬ঘ-কে_না_বলুন  নামে একটি অনলাইন ডাটাবেজ চালু করেছে। ৬৬ঘ ধারা অনুসারে “টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে কোন ব্যক্তিকে জবরদস্তি, জোর খাটানো, অন্যায়ভাবে বাধা প্রদান, সুনামহানী, বিরক্ত, অযৌক্তিকভাবে প্রভাবিত বা হুমকি প্রদান” করার ক্ষেত্রে দোষী সাব্যস্ত হলে যে কোন ব্যক্তিকে জরিমানা এবং/অথবা তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড প্রদান করা যেতে পারে।

ডাটাবেজ অনুসারে এই আইনের অধীনে ৬১%কে “বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো এবং অন্যদেরকে জবাবদিহিতায় আনা”র জন্যে বিচার করা হয়েছে। এসব  মামলার অর্ধেক রাষ্ট্রের সমালোচনা বিষয়ক। এই আইনের অধীনে অভিযুক্তদের দোষী সাব্যস্তও করা হয়েছে।

অস্ট্রেলীয় আইন প্রণেতারা (প্রকৃতপক্ষেই) সংকেতায়ন সুরক্ষা করতে চান

অস্ট্রেলীয় গ্রিন পার্টির সিনেটর জর্ডান স্টিলে-জন ডিজিটাল যোগাযোগ প্রযুক্তিতে শক্তিশালী সংকেতায়ন সুরক্ষা এবং অপরাধমূলক কার্যকলাপের সন্দেহজনক নাগরিকদের ডিজিটাল নজরদারি করার আগে তদন্তকারীদের একটি সমনের প্রয়োজনীয়তা জোরদার করার জন্যে বিভিন্ন আইনকে সমর্থন করার উদ্দেশ্যে একটি প্রস্তাব উপস্থাপন করেছেন

নতুন গবেষণা

  • The Yemen War Online: Propagation of Censored Content on Twitter (অনলাইনে ইয়েমেন যুদ্ধ: টুইটারে সেন্সরকৃত সামগ্রী প্রচার) – ইন্টারনেট ও সমাজের জন্যে বার্কম্যান ক্লেইন কেন্দ্র
  • Digital stop and search: how the UK police can secretly download everything from your mobile phone (ডিজিটাল বিরতি এবং অনুসন্ধান: কিভাবে যুক্তরাজ্যের পুলিশ গোপণে আপনার মোবাইল ফোন থেকে সবকিছু ডাউনলোড করে নিতে পারে) – আন্তর্জাতিক গোপনীয়তা
  • Apps, Trackers, Privacy and Regulators: A Global Study of the Mobile Tracking Ecosystem (অ্যাপ্লিকেশন, অনুসরনকারী, গোপনীয়তা এবং নিয়ন্ত্রকবৃন্দ: মোবাইল ফোন অনুসরন প্রতিবেশের একটি বৈশ্বিক অধ্যয়ন) – নেটওয়ার্ক ও ডিস্ট্রিবিউটেড সিস্টেম নিরাপত্তার সিম্পোজিয়ামের জন্যে আব্বাস রাজঘপনা এট আল

 

নেট-নাগরিক প্রতিবেদনের গ্রাহক হোন

 

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .