বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ফিলিস্তিনি এক নাগরিকের লক্ষ্য শহুরে কৃষিকে আরো টেকসই করে তোলা


টড রেউবোল্ডের লেখা এই প্রবন্ধটি প্রথমে এনশিয়া.কম-এ প্রকাশিত হয়েছিল, এটি এমন এক পত্রিকা যা আন্তর্জাতিক পরিবেশ বিষয়ক জটিলতার সমাধান সংক্রান্ত কার্যক্রমের সংবাদ তুলে ধরে এবং কন্টেন্ট বিনিময় চুক্তি অনুসারে এই প্রবন্ধটি এখানে পুনরায় প্রকাশ করা হল।

বিশ্বজুড়ে শহুরে কৃষি বিশ্বের বাড়তে থাকা জনসংখ্যার মুখে আহার যোগানোর জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে তা মধ্য আমেরিকা অথবা মধ্যপ্রাচ্য, যেখানেই হোক না কেন।

উপরের এই ভিডিওতে সাঈদ সালিম আবু নাসেরকে তুলে ধরা হয়েছে, যিনি টেকসই কৃষির এক প্রবক্তা। তার বাস এবং কর্মক্ষেত্র ভূমধ্যসাগর উপকূলে অবস্থিত ফিলিস্তিনের গাজা সিটিতে

আবু নাসের ২০০ স্কয়ার মিটার (প্রায় ২,০০০ স্কয়ার ফুট)-এর এক ক্ষুদ্র কৃষি খামার গড়ে তুলেছেন, যেখানে তিনি ব্যবহার করছেন মাটি ছাড়া শস্য জন্মানোর এক বিশেষ প্রক্রিয়া যাকে হাইড্রোপনিক পদ্ধতি নামে অভিহিত করা হয়ে থাকে। আর এই সকল শস্য চাষে তিনি ব্যবহার করেন রসুন, মরিচ এবং সাবান এবং আরো অন্যান্য সামগ্রী দিয়ে তৈরী অর্গানিক কীটনাশক নিয়ন্ত্রণ উপাদান।

প্রতি বছর তিনি গড়ে প্রায় ৩.৫০০ কিলোগ্রাম (৭,৭০০ পাউন্ড) সব্জি উৎপাদন করে থাকেন,যা প্রায় ৩০ জন নাগরিককে খাওয়ানোর জন্য যথেষ্ট। সম্ভবত তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ, তার এই শহুরে কৃষি খামার তাদের জন্য আদর্শ হতে পারে যারা ক্ষুদ্র পরিসরে খাদ্য উৎপাদন করতে ইচ্ছুক।

এনশিয়ার জন্য এই ভিডিওটি ধারণ, সম্পাদনা ও প্রস্তুত করেছেন ইয়াসের আবু ওয়াজনা, যিনি ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে বাস করা একজন ফ্রিল্যান্স চলচ্চিত্রকার।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .