বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

অস্ট্রেলীয় শিশুসাহিত্যিক যুক্তরাস্ট্রের সীমান্তে আটক থাকাকে ‘পীড়াদায়ক’ বলেছেন

Mem fox at Ubud Writers and Readers Festival 2014

২০১৪ উবুদ লেখক ও পাঠক উৎসবে মেম ফক্স। ছবি: ফ্লিকার ব্যবহারকারী আঙ্গারা মহেন্দ্র। সিসি বাই ২.০

অনেক পছন্দের অস্ট্রেলীয় শিশুসাহিত্যিক মেম ফক্স-কে মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের সীমান্ত কর্তৃপক্ষের একটি সাম্প্রতিক আটক এবং আগ্রাসী জিজ্ঞাসাবাদের পর অস্ট্রেলিয়া এবং এর বাইরের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জ্বলে উঠেছে।

৭০-বছর বয়সী ফক্সকে ফেব্রুয়ারির প্রথমদিকে মিলওয়াকি শহরে একটি সম্মেলনে যাওয়ার পথে লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দরে এক ঘন্টা এবং ৪০ মিনিট আটক রেখে ১৫ মিনিট ধরে “জিজ্ঞাসাবাদ” করা হয়েছিল। তার আটক থাকা দৃশ্যত: মার্কিন শুল্ক ও সীমান্ত সুরক্ষা এজেন্টদের তাকে দেয়া ভিসার একটি ভুলের ফল, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিবাসন নীতির জন্যে নয়।

২৫ ফেব্রুয়ারি তারিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদটি যখন বেরোয়, প্রথম প্রতিক্রিয়াগুলো ছিল অবিশ্বাস আর ক্ষোভের:

প্রিয় লেখিকা, মেম ফক্স। আমি তার প্রতি আচরণে আতংকিত। এটা অগ্রহণযোগ্য। — লরেন কার্স্টেন (@লরেনকার্স্টেন)

ধ্যাৎ, মূর্খ জঘন্যগুলো ট্রাম্পের আমেরিকার দায়িত্বে রয়েছে। আমাদের মেম ফক্সের জন্যে সবকিছু করা উচিৎ এবং আর ভ্রমণ নয়। — ম্যারেলিন পার্কার (@ম্যারেলিনপার্কার)

মেম গার্ডিয়ান পত্রিকার মতামতের একটি অংশে তার “পীড়াদায়ক” অভিজ্ঞতা এবং অন্যান্যদের প্রতি আচরণ সবিস্তারে বর্ণনা করেছেন:

সেই মুহূর্তে আমি আমেরিকাকে ঘৃণা করেছি। আমি সমগ্র দেশটিকে ঘৃণা করেছি। আর এটা ছিল দেশটিতে আমার ১১৭তম ভ্রমণ, আর তাই আমি জানি যে অধিকাংশ মানুষ খুব উদার ও উষ্ণ হৃদয়ের। বছরের পর বছর ধরে তারা আমার প্রতি বিস্ময়কর আচরণ করেছে। আমি এক বা দুই দিনের মধ্যে এই ঘৃণা ভুলে যাবো। কিন্তু এই ভাবে করে বন্ধুদের জেতা যায় না, এমন অস্ট্রেলীয় বন্ধুদের সঙ্গে করা যেই আমরা তাদের প্রতিটি যুদ্ধেই সমর্থন দিয়েছি। এটা একেবারেই ভয়ানক।

আটককৃতদের সঙ্গে এজেন্টদের কথাবার্তার বিষয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “সবকিছু তারা চিৎকার করে এবং সবকিছু প্রকাশ্যে বলছিল”, এবং বিশেষ করে একটি হুইলচেয়ারে বসা একজন বৃদ্ধ ইরানী নারী এবং তাইওয়ানের একজন নারীর সঙ্গে – মনে হচ্ছিল না নারীদের দু’জনের কেউই ইংরেজিতে কথা বলতে পারেন – আচরণের কথা।

ল্যাম বলেছেন ক্যানবেরাস্থ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের একটি অভিযোগ দায়ের করার পর তিনি মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে একটি লিখিত ক্ষমাপ্রার্থনা লাভ করেছেন। তবে ক্ষমাপ্রার্থনাটি তার সমর্থকদের শান্ত করতে পারবে বলে মনে হচ্ছে না:

@ইউএসেম্বেসিইনওজেড কি রকম একেবারে লজ্জাজনকভাবে একজন অস্ট্রেলীয় কিংবদন্তী মেম ফক্সের সঙ্গে আচরণ করা হয়েছে! এতো অসম্মান! কোন অজুহাত নয়! ক্ষমাপ্রার্থনা অপর্যাপ্ত!
— ডেবোরা হগ (@ডেবহগওজেড)

আমেরিকা আমি ইতোমধ্যে তোমার প্রতি রেগে তেতে আছি, এখন আবার তুমি মেম ফক্সকে কাঁদিয়েছো, আমি মনে করি আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের সম্পর্কে ইতি হয়ে গেছে। — বেক ~ বোতল পুলিশ (@বিসিগ্যালোর)

অনলাইন প্রতিক্রিয়ায় মেম-এর বই এবং চরিত্রগুলো বিশেষ করে একটি নির্দিষ্ট সবুজ ভেড়ার মীম বারবার ঘুরে ফিরে আসে:

মেম ফক্স মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আটক, সবুজ ভেড়াটি কোথায় লুকিয়ে রয়েছে সেটা ট্রাম্পকে না বলা পর্যন্ত।@ব্যাঞ্জোএইচফুহরুহুর @এমজিলিক্সম্যানএমডিপিএইচডি  — জোনাথন ট্রেভিথিক (@জনট্রেভিথিক)

অন্যান্য টুইটার ব্যবহারকারীরা এই দু:খজনক গল্পের মধ্যে নিজেদের হাস্যরস খূঁজে পেয়েছেন:

প্রথমে তারা শিশুসাহিত্যিকের জন্যে এসেছিল এবং আমি বলিনি কিছু…
আচ্ছা, তারা একজন শিশুসাহিত্যিকের জন্যে এসেছিল? — আর্ন ম্যালি (@জিওফশ্যাডবোল্ড)

সারাহ জে স্মিট অনেক পিতামাতাদের পক্ষে বলেন:

আরে না, না। তোমরা মেম ফক্সের সঙ্গে যা-তা করো না। আমার ছেলেরা তোমাদের সঙ্গে যুদ্ধ করবে! — সারাহ জে. স্মিট (@এসজেস্মিট)

ফক্সের সর্বশেষ শিশুদের বইয়ের শিরোনাম “আমিও অস্ট্রেলীয়”, বিশেষভাবে এই অভিজ্ঞতাটির সঙ্গে প্রাসঙ্গিক:

দুঃখের বিষয় যে আমি একজন উদ্বাস্তু, আমি এখনো অস্ট্রেলীয় নই। কিন্তু যদি আপনার দেশ আমাকে ঢুকতে দেয়, … মেম ফক্সের নতুন বই সম্পর্কে এখানে শুনুন: https://t.co/XC80TCfGkK 
— জেনি ডার্লিং এ্যান্ড এসো (@এজেন্টসজেডিএ)

বস্তুত: ফক্স তার বইটিতে এর গভীর তাৎপর্য প্রতিফলিত করেছেন:

কী পরিহাস! আমার কাছে আমার নতুন বই “আমিও অস্ট্রেলীয়”-এর একটি কপি ছিল – এটা অভিবাসন ও সুখী দেশে মানুষকে স্বাগত জানানো নিয়ে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .