বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কিরগিজস্তানের বিশ্ব যাযাবর গেমস এর বিখ্যাত তীরন্দাজ ইন্টারনেট দুনিয়াকে হতবাক করে দিয়েছেন

Photoshopped version of a TASS/Getty Images photoof XX using her feet to shoot a bow and arrow. Image used on Kloop.kg. Creative commons.

তাস/গেটি ইমেজের ফটোশপ সংস্করণ যেখানে চাইনারা মাদিমকুলভা তার পায়ের সাহায্যে ধনুক ব্যবহার করে তীর ছুড়ছেন। ছবিটিপ Kloop.kg-এ ক্রিয়েটিভ কমন্সে প্রকাশিত।

কিরগিজস্তানে গত সেপ্টেম্বরের ৩ থেকে ৮ তারিখে অনুষ্ঠিত দর্শনীয় ওয়ার্ল্ড নোম্যাড গেমস (বিশ্ব যাযাবর ক্রীড়াপ্রতিযোগিতা) শেষ হওয়ার পর অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, ৪০টি দেশে থেকে অংশ নেওয়া ২০টি ঐতিহ্যবাহী খেলা সম্বলিত এই আসরটিতে এতো টাকা খরচ করার বিষয়টি আসলেই কতটা যৌক্তিক।

কিরগিজ সরকার যদিও আসরটি আয়োজনে কত খরচ হয়েছে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলেননি — ও এখানে বিভিন্ন স্পন্সরও টাকা দান করেছে– কিন্তু প্রাপ্ত তথ্যানুসারে, তাদের খরচ ২০ মিলিয়ন ডলারও ছাড়িয়ে গেছে।

কিরগিজস্তান একটি দরিদ্র দেশ যেখানে বিদ্যালয়ের পাঠ্যপুস্তকের অভাবসহ বৈদেশিক ঋণের বোঝা রয়েছে তাদের জন্য কয়েক মিলিয়ন ডলারও অনেক বেশি। কিন্তু তারপরও এই আসরটি মধ্যএশিয়ার সাবেক সোভিয়েত অঞ্চলের দেশটিকে বহি:বিশ্বে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করেছে যদিও বিশ্বের কাছে এটি খুব কমই পরিচিত।

অন্তত, এক সপ্তাহের জন্য দেশটির মনোরম আইজেক-খাল হ্রদের ধারে অনুষ্ঠিত এই আসরটি বিশ্ব মিডিয়ার দৃষ্টি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। সবচেয়ে বেশি বিক্রিত ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ‘দ্য সান’ তাদের শিরোনামে লেখে: কিরগিজস্তানে অনুষ্ঠিত বিশ্ব যাযাবর গেমসে তীরন্দাজ ও আগুণ খেলিয়েদের কসরত দেখে জনতা বাহবা দিচ্ছে

দ্য সান, অন্যান্য মিডিয়ার হোস্ট, টুইটার ও অনলাইন সম্প্রদায় রেডিটে মূল আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন চেইনারা মাদিমকুলভা নামক একজন তীরন্দাজ যিনি উল্টো হয়ে দুটি হাতলের উপর তার ভার রক্ষা করে ও পা দিয়ে তীর ছুঁড়ে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছিলেন।

ইন্টারনেট ফোরামে পুরুষেরাঃ নারীরা আমাদের থেকে নিকৃষ্ট। নারীরাঃ

প্রতিভাবান মাদিমকুলভা, যার এই ছবিটি রাশিয়ার তাস সংবাদ সংস্থার আলোকচিত্রী দ্বারা ক্যামেরাবন্দি হয়েছে, এটি কিরগিজস্থানের জন্য একটি ভালো বিজ্ঞাপণ হতে পারে।

ছবিটি টুইটারে হাজারের অধিক রিটুইটসহ রেডিটের প্রধান পাতায় স্থান পায় ও অনেক ব্যবহারকারী এটিকে ফটোশপের মাধ্যমে জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘দ্য হাঙার গেমস’ এর পোস্টারের মত করে তৈরি করে প্রকাশ করেছেন যা পরবর্তিতে কিরগিজ মিডিয়া Kloop.kg-এও পায়:

Mal3ficent

ছবিটি তৈরি করেছেন রেডিট ব্যবহারকারী Mal3ficent

বিদ্যজন এদ্রিয়ানি মায়োর, যিনি দ্য অ্যামাজনস: লাইভস এন্ড লেজেন্ড অব ওয়ারিয়র ওইমেন এক্রস দ্য এনসিয়েন্ট ওয়ার্ল্ড মাদমিকুলভার ঐতিহাসিক মুহূর্তটিও উল্লেখ করেন:

যাযাবরদের ঐতিহ্যঃ ঘোরায় চড়া আর ধনুকখেলার মাধ্যমে শত্রুদের ভীতিপ্রদর্শন

কিরগিজিস্থানের অন্যান্য স্বেচ্ছাচারী প্রতিবেশী দেশের চেয়ে দেশটি বর্তমানে তার পর্যটন খাতের উপর গুরত্বারোপ করছে। দেশটির কমিউনিটি ভিত্তিক পর্যটন যেখানে গ্রাম্য এলাকায় পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা করা — এছাড়াও ৩০টি দেশেরও বেশি নাগরিকদের ভিসা মুক্ত চলাচল দেশটিকে বিদেশী পর্যটক বৃদ্ধি করতে সহয়তা করছে

সময়ই বলে দেবে এই নানা রঙ-এর বিশ্ব যাযাবর গেমসটি ফলপ্রসুভাবেই তার যাত্রা শুরু করেছে, নাকি এটি ব্যয়বহুল আসর হয়েই থাকবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .