বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ল্যাটিন আমেরিকীয় লেখকরা আন্দীয় আদিবাসী ভাষাগুলোকে পুনরুদ্ধার করতে ‘সাহায্য’ করে

Obras de Mario Vargas Llosa. Imagen de Flickr de la usuaria Laura (CC BY-NC-ND 2.0).

মারিও ভারগাস ইয়োসা রচিত শিরোনামগুলো। ছবি ফ্লিকার-এ লরা এর সৌজন্যে (CC BY-NC-ND 2.0)।

কুসকো বিকেন্দ্রীভূত সংস্কৃতি অধিদপ্তর (ডিডিসিসি)-এর একটি উদ্দ্যোগ হিসেবে পেরুভীয় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, আন্দীয় আদিবাসী ভাষাগুলোর অন্যতম একটি ভাষা কেচুয়াতে বেশ কয়েকজন ল্যাটিন আমেরিকীয় লেখকের কাজ ভাষান্তর করার সাহায্য করছে।

বর্তমানে, কেচুয়া-ভাষাভাষীর পাঠকরা পেরুভীয় মারিও ভারগাস ইয়োসা, কলম্বীয় গাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ, উরুগুয়ের হুয়ান কার্লোস ওনেত্তি, আর্জেনটিনীয় আদোল্ফো বিওয় কাসারেস, এবং ব্রাজিলীয় ক্লারিস লিসপেকটর-এর বইগুলোকে তাদের নিজেদের মাতৃভাষায় উপভোগ করতে পারবে।

ডিডিসিসি-এর পরিচালক এবং কুসকো-এর একজন লেখক লুইস নিয়েতো দেগ্রেগরি বলেছেন:

Con estas publicaciones en lenguas originarias se da mayor reconocimiento a Cusco y los hablantes, definitivamente estas traducciones otorgan un valor simbólico al quechua y los hablantes deben de dejar de tener vergüenza de expresarse en este idioma.

আদিবাসী ভাষার এই সংস্করণগুলোর মাধ্যমে কুসকো ও এই ভাষাভাষীদেরকে আরও বেশী করে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে, কারণ এই ভাষান্তরগুলো কেচুয়াকে একটি প্রতিকী মূল্য প্রদান করে, এবং এই ভাষাভাষীর ব্যক্তিদেরকে আর কখনওই এই ভাষায় নিজেদেরকে প্রকাশ করার জন্য লজ্জিত হতে হবে না।

এই শিরোনামগুলো ২০১৫ সালের নভেম্বরের মাঝামাঝি প্রকাশিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বর্তমান অনুমান অনুযায়ী দক্ষিণ আমেরিকাতে প্রায় আশি লাখ থেকে এক কোটি কেচুয়া ভাষাভাষী ব্যক্তি বাস করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .