বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

অঞ্চল ৯ ব্লগাররা আর একা নয়: আরও ইথিয়পীয় নেটিজেনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীর অভিযোগ আনা হয়েছে

writers

বাঁ থেকে ডানে: জেলালেম, ইওনাতান, বাহিরু এবং এব্রাহাম। ছবি ডেবারহানডটকম এর অনুমতি নিয়ে ব্যবহার করা হয়েছে।

প্রচুর সংখ্যক আটককৃত ইথিয়পীয় ব্লগার, অনলাইন কর্মী এবং রাজনীতিবিদ আছে যাদের নাম এখনো পর্যন্ত মানচিত্রে আসে নি। বিখ্যাত অঞ্চল ৯ ব্লগার মামলাটি ছাড়াও আরও অনেক তরুণ একই ধরনের অভিযোগের বিরুদ্ধে লড়াই করছে।

গত বছর ২০১৪ সালের ৮ই জুলাই ইথিয়পীয়া বেশ কিছু সংখ্যাক স্থানীয় বিরোধী নেতা, ব্লগার, অনলাইন কর্মী এবং সচেতন নাগরিককে আটক করেছে। কয়েক জনকে চার মাস জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দেয়া হয়। যদিও ১০ জনের বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ৩১শে অক্টোবর জিনবোট ৭ এর মতো দেশের বাইরে অবস্থিত ইথিয়পীয় বিরোধী দলগুলোর সাথে সংশ্লিষ্টতা থাকা, একটি অনলাইন নিরাপত্তা প্রশিক্ষণে যোগদানের আবেদন করা এবং অনলাইন কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগে ইশতেহার নং ৬৫২/২০০৯ এর অধীনে  অভিযোগ গঠন করা হয়। এই দশজনের মধ্যে তিনজন অভিযুক্ত কোন রাজনৈতিক দলের সদস্য নয় কিন্তু সাধারণ নাগরিক যাদেরকে একটি কোর্সে যোগদানে আবেদন করার কারণে গ্রেফতার করা হয়। এরা হলো জেলালেম ওর্য়কাজেনেগু, ইওনাতান ওয়ল্ডে এবং বাহিরু দেগু।

বিতর্কিত সন্ত্রাসবিরোধী ইশতেহার নং ৬৫২/২০০৯ ২০০৯ সালের জুলাই মাসে জারি করা হয়। ইথিয়পীয়ার কর্মকর্তারা এই আইনকে সমর্থন করার চেষ্টা চালায় এই যুক্তিতে যে এই বিতর্কিত নীতিগুলোকে যুক্তরাজ্যের মতো দেশেগুলোতে চালু বর্তমান আইন থেকে হুবহু নেওয়া হয়েছে।

বাকস্বাধীনতা রোধ করতে ব্যবহার করা সন্ত্রাসবিরোধী ইশতেহারের অনুচ্ছেদ ৬এ উদাহরণস্বরূপ বলা হয়েছে:

[w]hosoever publishes or causes the publication of a statement that is likely to be understood by some or all of the members of the public to whom it is published as a direct or indirect encouragement or other inducement to them to the commission or preparation or instigation of an act of terrorism [is subject to between 10 and 20 years in prison].

যে কোন ব্যক্তি এমন একটি বিবৃতি প্রকাশ করে বা তা প্রকাশনা করায় সহায়তা করে যার মাধ্যমে কোন কোন ব্যক্তি বা সকল জনগণ যাদের উদ্দেশ্যে এটি প্রকাশ করা হয়েছে তারা সেটিকে তাদের প্রতি কোন একটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কর্মভার প্রদান বা প্রস্তুতি বা প্ররোচনায় প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ অনুপ্রেরণা বা অন্য কোন ধরনের প্রণোদনা হিসেবে ধরে নেয় [তবে তার ফলে ১০ থেকে ২০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে]।

প্রথম বিবাদী জেলালেম একজন মানবাধিকার কর্মী ডেবারহান-এ ব্লগ লেখে। ইওনাতান এবং বাহিরু যাদেরকে সচেতন নাগরিক হিসেবে বর্ণনা করা যেতে পারে তারা জেলালেম-এর সাথে একত্রে শুধুমাত্র একটি সামাজিক মাধ্যম এবং ইন্টারনেট নিরাপত্তার উপর একটি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করার জন্য আবেদন করেছিল, যেটি সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক একজন ইথিয়পীয় সাংবাদিক তাদেরকে জানিয়েছিল। ইথিয়পীয় সাংবাদিকের পাঠানো ইমেইলটি তাদের নিকটে পাওয়া গিয়েছিল। জেলালেমকে যখন আটক করা হলো এবং পরবর্তীতে ‘একটি সন্ত্রাসী প্রশিক্ষণে’ অংশগ্রহণের আবেদনের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হলো তখন দেখা গেল বাস্তবিকভাবে প্রশিক্ষণটি ছিল একটি ইন্টারনেট নিরাপত্তা সম্বন্ধীয় প্রশিক্ষণ।

জেলালেম, ইওনাতান এবং বাহিরু-এর পরবর্তী আদালত হাজিরা ২০১৫ সালের নভেম্বর ৭ থেকে ৯ এর মধ্যে।

প্রথম বিবাদী জেলালেম-এর সাথে যোগাযোগ থাকার অভিযোগে আটককৃত এব্রাহাম সলোমনসহ বিরোধী এরেনা টিগ্রে দলের একজন কর্মকর্তা ও সামাজিক মাধ্যমের একজন কর্মী আব্রাহা দেস্তা, নীল (সেমাওয়াঈ) দলের পরিষদ সদস্য ইয়েশিওয়াস আসেফা, গণতন্ত্র ও ন্যায্যতার জন্য একতা (ইউডিজে) নামের বর্তমানে বিলুপ্ত দলের কর্মকর্তা ড্যানিয়েল শিবেশি এবং বর্তমানে বিলুপ্ত ইউডিজে দলের প্রাক্তন জনসংযোগ প্রধান হাবটামু এয়ালিউ নামের আরও চারজন বিরোধী দলের রাজনীতিককে ইথিয়পীয়ার আদালত গত মাসে খালাস দিয়ে দিয়েছে। কিন্তু আজকে পর্যন্ত তাদেরকে মুক্তি দেয়া হয় নি কারণ আইন কর্মকর্তা এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পুণর্বিবেচনার আর্জি প্রদান করেছে বলে জানা গেছে।

ইলেক্ট্রনিক ফ্রন্টিয়ার ফাউন্ডেশন (ইএফএফ) কর্তৃক রচিত একটি প্রবন্ধে ইথিয়পীয়াতে অনলাইন কর্মী ও নেটিজেনদেরকে নীরব করার ক্রমবর্ধমান প্রচেষ্টা দেখা যায়। সংস্থাটি ইথিয়পীয়াকে আহ্বান জানিয়েছে:

Immediately free all journalists in prison, including the remaining Zone 9 bloggers, and relieve them of all charges for the “crime” of reporting the news.
End the prosecution of individuals for pursuing security training and using encryption technologies, and free Zelalem Workagegnehu, Yonatan Wolde, Abraham Solomon, and Bahiru Degu.

যাতে কারাগারে থাকা অঞ্চল ৯ ব্লগারসহ সকল সাংবাদিকদেরকে ততক্ষণাৎ মুক্ত করা হয় এবং সংবাদ পরিবেশনের ‘অপরাধ’-এর সকল অভিযোগ থেকে তাদেরকে রেহাই দেওয়া হয়।
নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ এবং সংকেতাবদ্ধতা সম্পর্কিয় প্রযুক্তি ব্যবহার করার প্রচেষ্টাকারী ব্যক্তিদের মামলা খারিজ করা হয়, এবং জেলালেম ওর্য়কাজেনেগু, ইওনাতান ওয়ল্ডে, এব্রাহাম সলোমন এবং বাহিরু দেগুকে মুক্ত করে দেয়া হয়।

আর্‌গ এশাইন ২০১৫ সালের ২১শে সেপ্টেম্বর তারিখে লিখেছে

জেলালেম, ইওনাতান, এব্রাহাম এবং বাহিরু সন্ত্রাসী কার্যকলাপের অভিযোগে অন্যায্যভাবে কারাদণ্ড ভোগ করছে, জেই শুধুমাত্র ইন্টারনেট নিরাপত্তা প্রশিক্ষণের জন্য আবেদন করেছিল, যা সংঘটিতই হয় নি

ইএফএফ ইথিয়পীয় সরকারকে তার নাগরিকদের উপর গোয়েন্দাগিরি করায় প্রযুক্তি ব্যবহার করা বন্ধ করতে আহ্বান জানিয়েছে:

Cease and desist from using invasive surveillance technologies like FinFisher and Hacking Team’s Remote Control System to spy” on Ethiopian journalists, Diaspora, and opposition groups.

ফিনফিশার এবং হ্যাকিং দলের দূর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার মতো পুঙ্খানুপুঙ্খ নজরদারি প্রযুক্তির ব্যবহার করে ইথিয়পীয় সাংবাদিক, দেশের বাইরে অবস্থিত ব্যক্তি এবং বিরোধী দলের উপর গোয়েন্দাগিরি করা থামান ও নিবৃত্ত হোন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .