বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তাজিকিস্তানের “ভুয়া নবীকে” ১৬ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে

When the state TV broadcasted Sheykh Temur's story, al social and economic problems went to shadow of it in the people's discussions

শেখ তেমুরের বিস্তারিত কাহিনী তাজিকিস্তানে নাগরিকদের কাছে অনেক বেশী জাগতিক, কিন্তু এই ঘটনা দেশটির প্রবল সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমস্যা নিয়ে তাদের আলোচনা থেকে খানিকটা বিরত রাখে যখন ফেব্রুয়ারি মাসে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে তার কাহিনী প্রচারিত হয়। ছবি আরএফই/ আরএল দ্বারা প্রকাশিত তাজিক রাষ্ট্রীয় প্রচার মাধ্যমের সংবাদের স্ক্রিনশট থেকে গ্রহণ করা হয়েছে।

সাইদমাহদিকোন সাত্তারোভ নামের ৬৫ বছর বয়স্ক এক ব্যক্তি, যিনি তাজিকিস্তান জুড়ে শেখ তেমুর নামে পরিচিত, তাকে এই সপ্তাহের শুরুতে অবৈধ জমি দখল, বহুবিবাহ, জোর পূর্বক অর্থ আদায়, মৃতদেহ ও কবরস্থানকে অপবিত্র করা এবং বাধ্যতামূলক ভাবে মৌলিক শিক্ষা অর্জনে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগে ১৬ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। সাত্তারোভা দাবী করে যে সে হচ্ছে সর্বশেষ নবী, তার এই দাবীর কারণে শখানেক পদচুম্বন কারী ভক্ত তার প্রতি মনোযোগ আকর্ষণ করেছে, যদিও এই দাবী হচ্ছে এমন এক দাবী, যা কেবল ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক নবী হজরত মুহাম্মদ (সঃ)–এর জন্য সংরক্ষিত।

এই ঘটনার বিষয়ে পাঠ করুন-তাজিকিস্তানে ভূমি দখল এবং বহুবিবাহের অভিযোগ নিজেকে শেষ নবী বলে দাবি করা ব্যক্তি কারাদণ্ডের মত শাস্তির মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।

ফেব্রুয়ারিতে তেমুরের গ্রেফতার হওয়ার পর তার মামলার শুনানিতে, এই শেখ স্বীকার করেন যে তার একাধিক স্ত্রী রয়েছে, সে এমন জায়গায় ঘর বানিয়েছে, যা তার নিজের সম্পত্তি নয়, এবং সে তার সন্তানদের স্কুলে যাওয়ার অনুমতি প্রদান করেনি। সে তার এই বৃদ্ধ অবস্থায়, তার প্রতি সহানুভূতি এবং ক্ষমা প্রদর্শনের অনুরোধ জানায় , যদিও পবিত্র রমজান মাসে মাঝে ৮ জুলাই তারিখে তাকে শাস্তির শাস্তির মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

তবে এই মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্রে সোভিয়েত পরবর্তী যুগে অনুষ্ঠিত বিচারে, বিচারক এই শেখের প্রতি করুণা প্রদর্শনে ব্যর্থ হয়, সে মাত্র কয়েক মাস আগে তরুণী স্ত্রীর সান্নিধ্যে, স্বাধীন ভূমিতে দিন কাটাচ্ছিল এবং সে সময় তার অনুসারীরা এই শেখের হাত ধোঁয়া পানি খেত।

স্থানীয় এক সংবাদপত্রের ওয়েবসসাইটে পাঠকেরা তার প্রতি ছিল আরো বেশী ক্ষমাশীল। যদিও কয়েক মাস আগে তাজিক নেট নাগরিকেরা তার প্রতি ক্ষুব্ধ ছিল এবং সে সময় তার কঠোর শাস্তি দাবী করেছিল। কিন্তু যখন আদালতের রায় যখন জনগণের কাছে এসে পৌঁছায় তখন অনেকে তাকে মুক্তি প্রদানের আহ্বান জানায়।

ওজোদাগান-এ খায়ের নামের এক পাঠক লিখেছে :

Хамин бечораро озод кунед,о дар тамоми макомот низ тамачуи аст,мухтарам судя хамон мошину хонаву чихози гаронарзиши шумо магар бо маош дастрас шуда?озодагон чоп !

এই গরীব ব্যক্তিটিকে ছেড়ে দিন। সকল কর্মকর্তা দুর্নীতিগ্রস্ত। শ্রদ্ধেয় বিচারক, আপনি কি আপনার দামী গাড়ী এবং বিলাসবহুল বাড়ী বেতনের টাকা দিয়ে কিনেছেন? ওজোদাগান এই [এই [মন্তব্যটি]] প্রকাশ করছে !

মারহাবো নামের আরেকজন ওজোদাগান পাঠক এই বিষয়ে একমত :

Зуратон танхо ба бечорахо мерасад. а где гуманность. ин муйсафед дар хабсхона мурданаш мумкин аст.

আপনারা কেবল গরীবদের [কারাগারে] পুরতে পারেন, মানবতা কোথায়? এই বয়স্ক মানুষটি হয়ত কারাগারে মারা যাবে।

ধারাভাষ্যকার কালেখোজনিক দি এশিয়া প্লাস ওয়েব-সাইট শেখের শাস্তি নিয়ে লেখা একটি প্রবন্ধ লিখেছেন, ওয়েবসাইট যার বাক্যের দৈর্ঘ্যে বিস্মিত হয়েছিল:

Вообще сложно понять смысл этого приговора, вроде шейх принадлежит суффийскому тарикату, в политике не заинтересован, жил где-то в горах никого не трогал, а те статьи по которым его уличили можно предъявить к любому госслужащему, за что его решили показательно покарарать – тайна за семью печатями!

এই রায়ের পেছনে কারণটি উপলব্ধি করা খুব কঠিন, শেখ একজন সুফি, যার রাজনীতিতে কোন আগ্রহ নেই, তিনি কোন এক পাহাড়ের পাদদেশ বাস করেন। তিনি কাউকে বিরক্ত করেন না, এবং তার বিরুদ্ধে যে সমস্ত অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে… এই বিষয়টি গোপনীয় থেকে যাচ্ছে যে কেন তারা তাকে প্রকাশ্যে শাস্তি দিতে চায়।

তবে পর্যবেক্ষকদের মতে, এই ফলাফল অবশ্যম্ভাবী। তাজিকিস্তান সরকার রাষ্ট্রীয় অনুমোদন এবং ধর্মীয় দিক থেকে পবিত্র ব্যক্তি ব্যাতিত সকল ধরনের ইসলামিক কর্মকাণ্ডের প্রতিনিধিত্ব করে এমন ব্যক্তির প্রতি কঠোর, যার মাঝে সরকার পন্থী ইমামরা দেশটির একমাত্র ধর্মীয় মতাদর্শ ভিত্তিক বিরোধী দল বিরুদ্ধে খুতবা প্রদান করে, এদিকে সংবাদ পাওয়া গেছে যে পুলিশ যে সমস্ত মুসলমান দাঁড়ি রেখেছে তাদের জোর করে দাঁড়ি কেটে ফেলতে বাধ্য করেছে।

এদিকে শেখ তেমুর-এর ভণ্ডামিপূর্ণ আচরণ ছিল কোরানের নিয়ম নীতির অনেক বাইরে। এই ঘটনার মধ্যে দিয়ে কর্তৃপক্ষ অন্য সকল সম্প্রদায়ের কাছে এক বার্তা প্রদান করেছে যে যেন ধর্মীয় অনুশীলনের সময় রাষ্ট্রের একচ্ছত্র আধিপত্যকে যেন উপেক্ষা না করা হয়।

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .