বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সিএনএন-এর, গ্রীসের দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার দিন গণনার শুরুর প্রতিক্রিয়া ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে

Screenshot από το ρολόι αντίστροφης μέτρησης του CNN

সিএনএন স্থাপিত কুখ্যাত দিন গণনার ঘড়ির স্ক্রিনশট

যেদিন গ্রীস আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয় এবং যার ফলে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করার মত পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়, সেই ১ জুলাই-এ, সন্ধ্যা নামার এক ঘন্টা আগে, সিএনএন এক বিতর্কিত ভাবনা তার পরিকল্পনায় গ্রহণ করে। তারা গ্রীসের দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার চূড়ান্ত দিনক্ষণ নির্ধারণে টিভির পর্দায় এক ঘড়ি স্থাপন করে, যা এই ক্ষণ গণনা করা শুরু করে।

এই বিষয়টি মোটেও বিস্ময়কর নয় যে, এই ঘটনায় সাথে সাথে সারা বিশ্বজুড়ে গ্রীক নেট নাগরিকরা দ্রুত তাদের প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে, যারা এই ঘটনাকে অপমানজনক অথবা এক নোংরা রসিকতা হিসেবে চিহ্নিত করে। .

ব্যবহারকারী স্পিরোস ফোটিস জুনিয়র বিস্মিত :

কোন একটি বোমা কি এক বিস্ফোরণের অপেক্ষায় আর সিএনএন কি তার ক্ষণ গণনা শুরু করেছে?

এদিকে জনি ফেভারিট ঘোষণা প্রদান করেছে :

ভাই সকল, এমনকি সিএনএন-ও আমাদের আনুষ্ঠানিক ভাবে সংস্থা থেকে বের হয়ে বিষয়টি আমাদের সাথে উদযাপনে প্রস্তুত।

অন্য এক ব্যবহারকারীর টুইটের জবাবে ব্যবহারকারী @ড্রুনুচ্চি “সিএনএনকে “সুযোগ গ্রহণকারী” হিসেবে অভিহিত করেছে:

ইয়োন্না মামাই বিক্ষুব্ধ:

সিএনএন, শালা বেজন্মা! আমাদের দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার ক্ষণ গুনছিস?

ব্যবহারকারীরা গ্রীসের বিষয়টি নিয়ে আলাপ করার সময় পরিহাস ক্রমে এই ঘটনার সাথে নতুন বছরের উদযাপনের বিষয়টি তুলনা করছে:

গ্রীসের রাজধানী এথেন্স থেকে সিএনএন সরাসরি ক্ষণ গণনার বিষয়টি তুলে ধরছে। গ্রীস আতশবাজীর জন্য প্রস্তুত, ভানুয়াতু, শুভ নববর্ষ।

ভাসিলিকি পরিহাসের সাথে এই তথ্য তুলে ধরেছে যে “যুক্তরাষ্ট্র” এখন গ্রীসকে উত্তমরূপে অবিহিত করার বিষয়ে সচেতন :

যুক্তরাষ্ট্রের তাজা সংবাদ অনুসারে, আমরা এখন আনুষ্ঠানিক ভাবে দেউলিয়া।

হেলেনা ডেসকোয় এতে শ্রদ্ধা এবং মর্যাদার অভাবের দিকটি উল্লেখ করেছে:

সিএনএন ক্ষণ গুনছে কখন আমরা চূড়ান্ত ভাবে দেউলিয়া হয়ে যাবে। কেউ গ্রীসের নাগরিকদের শ্রদ্ধা করে না।

এদিকে ব্যবহারকারী @টু_পাপাগালাকি এই পরিস্থিতি নিয়ে মজা করেছে, সে প্রমাণ করেছে যে গ্রীস কখনো রসিকতার মেজাজ ত্যাগ করেনি:

“দি ফাইনাল কাউন্টডাউন” নামক গান শুনছি এবং দেউলিয়া হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি।

এই সকল চতুর মন্তব্য সত্ত্বেও-এই গুরুত্বপূর্ণ এবং জটিল বিষয়ে ক্ষণ গণনার জন্য এক ঘড়ি স্থাপন করার চিন্তার ক্ষেত্রে বলা যায়-একটি রাষ্ট্রের সামগ্রিক ভবিষ্যৎ মোটেও রসিকতার বিষয় নয়-দৃশ্যত কোন এক ভাবে এটা মোটেও যথাযথ নয়।

কিন্তু সিনএনএন এমন এক টিভি চ্যানেল যা সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ভুল করছে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, গত মাসে এই চ্যানেল সমকামী শোভাযাত্রায় এক ডিলডো ব্যানারকে ভুলে আইএসআইএস-এর পতাকা হিসেবে চিহ্নিত করে:

এর আমাদের ভুলে যাওয়া উচিত নয়, এই চ্যানেলের ভুগোল সম্বন্ধে বিশেষ জ্ঞানের কথা, যেমনটা সাম্প্রতিক সময়ে গ্লোবাল ভয়েসেস এর প্রবন্ধে তুলে ধরা হয়েছে, প্রিয় সিএনএন, উগান্ডা দেশটি তানজানিয়া নয়:

২৯ জুনের সন্ধ্যায়, গ্রীসের ভবিষ্যত বিপন্ন আবস্থায় ছিল। বিদেশী নেতাদের সাথে সাংঘর্ষিক এক আলোচনার পর হাজার হাজার গ্রীক নাগরিক কঠিন শর্তে আন্তর্জাতিক ঋণ থেকে দায়মুক্তি প্রত্যাখ্যানের দাবীকে সমর্থন করে এক র‍্যালি বের করে। একই সময়ে গ্রীসের সব ব্যাংক বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে দেশটি এক অর্থনৈতিক বিশৃঙ্খলার মধ্যে পতিত হয়, এদিকে দেশের রাজনৈতিক দলগুলো রাজনৈতিক দায় নিয়ে বাণিজ্য করা শুরু করে।

তবে কয়েকজন গ্রীক নাগরিকের কাছে ঋণ সঙ্কটের সংবাদ দেখার ক্ষেত্রে সিএনএন-এর বার্তা হয়ত একটা ধন্যবাদের যোগ্য, কারণ সর্বোপরি এই রকম এক কঠিন সময়ে এই সংবাদ খানিকটা মজার খোরাক হয়ে এসেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .