বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইকুয়েডোরের সারাইয়াকু জনগোষ্ঠীর কাছে পানিই জীবন

Invitation to Forum for the premier of the Sarayaku videos.

সারাইয়াকু ভিডিওর এক মহরত অনুষ্ঠানে এক ফোরামের আমন্ত্রণ পত্র

সারাইয়াকুর কিচোয়া জনগোষ্ঠীর নাগরিকদের তাদের এলাকার তেল, গ্যাস এবং খনিজ সম্পদ আরোহণের বিরুদ্ধে দীর্ঘ সময় ধরে এক এক উত্তমরূপে নথিবদ্ধ করা লড়াই চালিয়ে গেছে, যা ইকুয়েডোরের আমাজান এলাকার দক্ষিণের মধ্যাঞ্চলে অবস্থিত। নিজেদের ভূমির রক্ষায়, সারাইয়াকু সম্প্রদায় সেখানে খনি খননের বিরোধিতার বিষয়ে তাদের কাহিনী তুলে ধরার জন্য ডিজিটাল মিডিয়ার সাহায্য গ্রহণ করেছে। এই সম্প্রদায়ের সাথে অন্যতম সহযোগী পুরস্কার প্রাপ্ত তথ্যচিত্র “ জাগুয়ারের শিশুরা, তাদের এই প্রতিরোধের এক ঝলক তুলে ধরছে।

এই তথ্যচিত্রের সাফল্য নতুন প্রজন্মের একদল আদিবাসী চলচ্চিত্র নির্মাতাদের উৎসাহিত করেছে তাদের নিজেদের চলচ্চিত্র নির্মাণে। চলচ্চিত্র নির্মাতা এরিব্রের্তো গুয়ালিঙ্গা তাদের এলাকার এ রকম এক নেতা, তিনি তার ইউটিউব চ্যানেলে বেশ কিছু স্বল্প দৈর্ঘ্য ভিডিও আপলোড করেছে। ভিডিও ছাড়াও সম্প্রদায়টি একটি ওয়েবসাইট স্থাপন করেছে এবং তারা স্যোশাল মিডিয়ার চ্যানেল যেমন টুইটার (@সারাইয়াকু_লিব্রে) এবং ফেসবুকে অত্যন্ত সক্রিয়, যা তাদের সমর্থকদের সংস্পর্শে থাকার সুযোগ করে দেয় এবং কোন নতুন ঘটনার সংবাদ সরাসরি প্রদানের সুযোগ করে দেয়।

এই তথ্যচিত্রের সাফল্য নতুন প্রজন্মের একদল আদিবাসী চলচ্চিত্র নির্মাতাদের উৎসাহিত করেছে তাদের নিজেদের চলচ্চিত্র নির্মাণে। চলচ্চিত্র নির্মাতা এরিব্রের্তো গুয়ালিঙ্গা তাদের এলাকার এ রকম এক নেতা, তিনি তার ইউটিউব চ্যানেলে বেশ কিছু স্বল্প দৈর্ঘ্য ভিডিও আপলোড করেছে। ভিডিও ছাড়াও সম্প্রদায়টি একটি ওয়েবসাইট স্থাপন করেছে এবং তারা স্যোশাল মিডিয়ার চ্যানেল যেমন টুইটার (@সারাইয়াকু_লিব্রে) এবং ফেসবুকে অত্যন্ত সক্রিয়, যা তাদের সমর্থকদের সংস্পর্শে থাকার সুযোগ করে দেয় এবং কোন নতুন ঘটনার সংবাদ সরাসরি প্রদানের সুযোগ করে দেয়।

যখন ইন্টার–আমেরিকান কোর্ট অফ হিউম্যান রাইটস (আইএএইচআর) ২০১২ সালে সারাইয়াকু সম্প্রদায়ের পক্ষে রায় প্রদান করে , কোর্ট বিবৃতি প্রদান করে যে ইকুয়েডোর সরকার কোন সম্পদ অনুসন্ধান বা খনন বিষয়ক চুক্তি করার আগে সরকারকে আক্রান্ত সম্প্রদায়ের সাথে আলোচনা করতে হবে, সারাইয়াকুর লোকজন এখনো তাদের উপর এই চাপ অনুভব করছে ।

অংশগ্রহণমূলক ভিডিও টুলসের কতটা ব্যবহার করা যায় তা আবিস্কারের এক ক্রমাগত যাত্রায়, সারাইয়াকু সম্প্রদায় এল চুয়োরো কালেকটিভ–এর সাথে এক অংশীদারিত্বে যুক্ত হয়েছে, যাতে সম্প্রদায়ের তরুণদের পাশাপাশি আশেপাশের সম্প্রদায়ের আদিবাসী নাগরিকদের প্রশিক্ষন প্রদান করা যায়, কি ভাবে ডিজিটাল ভিডিও তৈরী করা যায়, যা তাদের বাস্তব অবস্থা ধারণ করবে এবং নিজেদের চারপাশের যে সমস্ত প্রাকৃতিক সম্পদ রয়েছে সে সব সংরক্ষণের জন্য তাদের প্রতিশ্রুতি পুনরায় নিশ্চিত করবে। এই প্রকল্প রাইজিং ভয়েসেস-এর প্রকল্প আমাজোনিয়া উদ্যোগ–এর এক অংশ হিসেবে ২০১৪ সালের রাইজিং ভয়েসেস-এর অনুদান লাভ করেছিল।

এই প্রকল্পের প্রথম ভিডিওতে ধারাভাষ্যকার কিচোয়া ভাষায় বলছেন সারাইয়াকু জনগোষ্ঠীর জন্য পানি কতটা গুরুত্বপূর্ণ। আমারা নামক সাবটাইটেল প্লাটফর্ম ব্যবহারের মাধ্যমে, এখন এই ভিডিও ইংরেজি সাব টাইটেলে পাওয়া যাচ্ছে এবং অন্য ভাষায় সাব টাইটেল যোগ করার জন্য এটি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

কুইটো এবং সারাইয়াকুর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এই ভিডিও প্রদর্শন করা হয়েছে, পাশাপাশি তাদের মাঝ থেকে উঠে আসা এই বিষয়টি নিয়ে এক আলোচনা এবং বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহ ধরে পর্যায়ক্রমে আমরা এই প্রকল্পের আরো কয়েকটি ভিডিও তুলে ধরব।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .