বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আইএসআইএস যোদ্ধারা ইরাকের রামাদি শহর দখল করেছে

রামাদি, ইরাকের আল আনবার প্রদেশের রাজধানী, আইএসআইএস যোদ্ধাদের দ্বারা অধিকৃত হয়েছে। জোয়ি আইয়ুব গ্লোবাল ভয়েসেস এবং মিদান চেকডেস্কের সমন্বিত প্রকল্প গ্লোবাল ভয়েসেস চেকডেস্কের পক্ষ থেকে নাগরিক সাংবাদিকদের রিপোর্ট, খবর এবং সাক্ষ্য একত্রিত করা এবং তুলে ধরার কাজ করে যাচ্ছেন।

শহরটি ইরাকের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে, বাগদাদের প্রায় ১১০ কিলোমিটার পশ্চিমে এবং ফালুযা থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার পশ্চিমে। শত শত মানুষ নিহত হয়েছে বলে রিপোর্ট পাওয়া গেছে, এবং হাজার হাজার মানুষ নিজেদের বাস্তুভিটা থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

আইএসআইএস, আল কায়েদার একটি অঙ্গসংগঠন, ইরাক ও সিরিয়ার একটি বড় অংশ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে এবং এসকল অঞ্চলে বসবাসরত বেসামরিক নাগরিকদের সাথে তাদের ভয়াবহতার কারণে তারা খবরের শিরোনাম হয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সমন্বয় অফিসের মতে, জাতিসংঘের ইরাক বিষয়ক মানব সহযোগিতা:

UN agencies are rushing humanitarian assistance to people fleeing Ramadi for the second time in a month.

Close to 25,000 people have fled Ramadi following ISIL attacks and fierce fighting in the city. Most of the displaced are fleeing towards Baghdad, with many trying to enter through security checkpoints.

জাতিসংঘের সংস্থাসমূহ এক মাসের মধ্যে দ্বিতীয় বারের মতো মানবীয় সহযোগিতা পৌঁছে দেবার জন্য রামাদি ছুটে যাচ্ছে।

প্রায় ২৫০০০ মানুষ রামাদি ছেড়ে চলে গেছে আইএসআইএলের আক্রমণ পর থেকে এবং শহরে প্রচণ্ড যুদ্ধ চলছে। বাস্তুচ্যুত অধিকাংশই বাগদাদ অভিমুখে যাচ্ছে, যাদের অনেকেই চেকপয়েন্টের মাধ্যমে প্রবেশ করতে চেষ্টা করছে।

রিপোর্টটি আরো যুক্ত করেছে:

Within the past month, UN agencies and non-governmental organisations have provided life- assistance to more than 130,000 people who fled Ramadi following ISIL attacks in April. Tens of thousands of kits and rations have been distributed to more than 35 locations across Anbar Governorate. Thousands of families who had fled earlier had returned to their homes in Ramadi, when fighting again broke out, forcing them to flee a second time.

গত মাসের মধ্যে, জাতিসংঘের সংস্থাসমূহ এবং বেসরকারি সংস্থাসমূহ এপ্রিলে আইএসআইএলের হামলার পর রামাদি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়া ১৩০০০০ এর অধিক মানুষকে সহায়তা প্রদান করেছে। আনবার প্রদেশ জুড়ে অধিক ৩৫টিরও বেশি অবস্থানে শত সহস্র মানুষের মাঝে রশদ ও রেশন বিতরণ করা হয়েছে। আগে পালিয়ে আসা হাজার হাজার পরিবার নিজ নিজ গৃহে ফিরে আসে, কিন্তু আবার যুদ্ধ শুরু হওয়ায় তারা দ্বিতীয়বারের মতো পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়।

In July, the food pipeline will break. “Nothing is more important right now than helping the people fleeing Ramadi. They are in trouble and we need to do everything possible to help them.” Lise Grande, the UN's Humanitarian Coordinator said. “Thousands of people had to sleep in the open because they didn't have places to stay. We would be able to do much more if we had the funding.”

জুলাই মাসে, খাদ্য সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাবে। “রামাদি থেকে পালিয়ে মানুষকে সাহায্য করার চেয়ে এই মুহূর্তে বেশি গুরুত্বপূর্ণ অন্য কিছু নয়। তারা এখন বিপদের সম্মুখীন এবং তাদের সাহায্য করার জন্য যা কিছু করার সম্ভব সবকিছু করতে হবে।” লিসে গ্র্যান্ডে, জাতিসংঘের মানবিক সমন্বয়কারী বলেন। “হাজার হাজার মানুষকে খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাতে হয়েছেকারণ তাদের থাকার জায়গা ছিল না। আমরা আরো অনেক কিছু করতে পারতাম যদি আমাদের হাতে তহবিল থাকতো।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .