বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

নতুন এক প্রতিবেদনে প্রদর্শন করছে, প্রতিদিন ছয় কোটি রুশ নাগরিক অনলাইনে প্রবেশ করে

In 2014, Internet audience and penetration in Russia continued to grow. Image from Wikimedia Commons.

২০১৪ সালে, রাশিয়ার ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এবং নতুন ব্যবহারকারী দুটোরই সংখ্যা বেড়েছে। ছবি উইকিমিডিয়া কমন্সের

রুনেটের এক বিশাল প্রতিষ্ঠান ইয়ানডেক্সের নতুন শ্রোতা গবেষণা উপাত্তে (ব্যবহারকারী গবেষণা তথ্য) উন্মোচিত হয়েছে এখন বিআরআইসিএস বা সিআইএস-এর (সোভিয়েত ইউনিয়ানের প্রাক্তন রাষ্ট্রসমূহের সংগঠন) রাষ্ট্রসমূহের চেয়ে রাশিয়ায় ইন্টারনেটে প্রবেশের হার অনেকে বেশী, তবে তা বাল্টিক রাষ্ট্রগুলোর চেয়ে কম। বর্তমানে রাশিয়ার শতকরা ৬০ শতাংশ প্রাপ্ত বয়স্ক নাগরিক নিয়মিত ওয়েব ব্যবহার করে থাকে।

ইয়ানডেক্সের ডাটা অনুসারে (যার সূত্র পাবলিক ওপিনিয়ন ফাউন্ডেশন), ২০১৪ সালের শরৎ পর্যন্ত ৭ কোটি ২৩ লক্ষ রুশ নাগরিক (দেশটির প্রায় ৬২ শতাংশ নাগরিক) অন্তত মাসে একবার হলেও ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকে এবং ৬ কোটি নাগরিক অন্তত দৈনিক একবার ইন্টারনেটে প্রবেশ করে। ২০১৩ এর শরৎ-এর তুলনায় ২০১৪ সালে একই সময়ে রুনেটইকোয় নতুন প্রবেশকারীর সংখ্যা প্রায় ৬০ লক্ষ।

ইয়ানডেক্সের ইন্টারনেট ডেভলপমেন্ট (ইন্টারনেট ব্যাবহার উন্নয়ন) প্রতিবেদন একই সাথে অঞ্চল ভিত্তিক ডাটা সরবরাহ করেছে, যেখানে ইন্টারেনেটে প্রবেশের পরিমাণ এবং এর গড় গতিবেগ, ব্রডব্যান্ডের মূল্য এবং মোবাইলের মাধ্যমে ইন্টারনেটে প্রবেশের সুযোগ এবং ইয়ানডেক্স.ম্যাপ ডিরেক্টরিতে নিবন্ধিত কোম্পানির ও সংগঠনের সংখ্যা উল্লেখ করেছে যা তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটের তালিকা তৈরী করে। এ ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে রাশিয়ার অন্য অঞ্চলের তুলনায় মস্কো এবং সেন্ট পিটার্সবাগ এই সব বিষয়ে ঢের এগিয়ে রয়েছে।

Internet penetration levels in various Russian regions: Moscow and Saint Petersburg top the list with close to 80% of adults regularly going online. Image from Yandex.ru.

রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে ইন্টারনেটে প্রবেশের হার (এখানে লাল অংশটি প্রদর্শন করেছে ২০১৪ সালে উক্ত বিষয়ে কতখানি অগ্রগতি হয়েছে সে বিষয়টি)। মস্কো এবং পিটার্সবার্গ তালিকার সবার উপরে অবস্থান করছে, যেখানে প্রায় ৮০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক নিয়মিত অনলাইনে প্রবেশ করে। ছবি ইয়ানডেক্স.রু থেকে নেওয়া।

এই প্রতিবেদনে একটি বিষয় বিতর্কের সৃষ্টি করেছে, রুশ সেনার ক্রিমিয়ায় প্রবেশের পর এই প্রথম এ বছর ইয়ানডেক্স তার প্রতিবেদনে একে রাশিয়ার এক অঞ্চল হিসেবে উল্লেখ করেছে। টিজার্নাল উল্লেখ করেছে যে রাশিয়ার যে কোন অঞ্চলের তুলনায় সবদিকে থেকে ক্রিমিয়ার অবস্থান পেছনে, তবে এর একমাত্র ব্যতিক্রম হচ্ছে ২৬১ রুবেল (৪.৭৫ ডলার) মূল্যের নির্ধারিত ফিক্সড ইন্টারনেট লাইন, যার বিপরীতে ফেব্রুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত রাশিয়ায় ফিক্সড লাইনের গড় মূল্য প্রতি মাসে প্রায় ৩৬২ রুবেল।

Number of online media websites by region (purple shows growth, grey shows decline). Moscow at the top, Crimea at the bottom and the only "region" showing a decline. Image from Yandex.ru.

রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চল ভিত্তিক অনলাইন মিডিয়া ব্যবহারকারী সংখ্যা (বেগুনি রঙ ব্যবহারকারী ক্রমশ বাড়তে থাকা, আর ধূসর ক্রমশ কমতে থাকার বিষয়টি প্রদর্শন করছে) এতে সবার উপরে রয়েছে মস্কো, আর সবার নিচে রয়েছে ক্রিমিয়া, আর এটি হচ্ছে সমগ্র রাশিয়ার একমাত্র অঞ্চল যেখানে এই সংখ্যা ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে।

রাশিয়াতে ক্রিমিয়া হচ্ছে একমাত্র অঞ্চল যেখানে উক্ত সময়ে সক্রিয় ইন্টারনেট মিডিয়ার সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে, যার অন্যতম কারণ হচ্ছে ক্রিমিয়ার তাতার ও স্থানীয় মিডিয়ায় বিরুদ্ধে পরিচালিত অভিযান, যারা এখন রুশ মিডিয়া হিসেবে নিবন্ধিত হতে বাধ্য হচ্ছে, যাদের অনেকে ইতিমধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে অথবা বন্ধ হওয়ার উপক্রম প্রায়।

সর্বোপরি, ইয়ানডেক্স আবিষ্কার করেছে যে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত রাশিয়ায় প্রায় ৪,৫০০টি সক্রিয় মিডিয়া ওয়েবসাইট রয়েছে, যার এক চতুর্থাংশ সক্রিয় মস্কো অঞ্চলে। এই সমস্ত ওয়েবসাইট একসাথে মিলে, প্রতিদিন প্রায় এক লক্ষের কাছাকাছি সংবাদ ছাপিয়ে থাকে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .