বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পেরুতে সমুদ্রতটে যাওয়া ব্যক্তিরা মানববন্ধন রচনার মাধ্যমে ডুবন্ত সাঁতারুদের উদ্ধার করেছে

Cadena humana en okaya peruana. Foto ampliamente difundida en Twitter.

আরিকার সমুদ্রতটে মানব বন্ধন রচনা। ছবি টুইটারে ব্যাপকভাবে প্রদর্শিত হয়েছে।

রোববার, ১ মার্চ পেরুর রাজধানী লিমা থেকে ১৮ মাইল দূরে অবস্থিত আরিকা সমুদ্রতটে মানবতার এক অসাধারণ কার্য সংঘঠিত হয়েছে।

আলেহান্দ্রো এসপিনোজা, এল কোমার্সিও নামক সংবাদপত্রের হোয়াটস এ্যাপ একাউন্টে সংবাদ প্রদান করেন যে প্রবল সামুদ্রিক ঢেউয়ের সাথে লড়াই করতে থাকা চারজন সাঁতারুর জীবন রক্ষায় সমুদ্র তট উপস্থিত ব্যক্তিরা এক মানব বন্ধন তৈরী করে, যার ফলে উপকূলে ডুবে যাওয়া থেকে মানুষদের রক্ষায় নিয়োজিত ব্যক্তিদের আর সমুদ্রে নামতে হয়নি। পরে পেরুর সংবাদ বিষয়ক ওয়েবসাইট তাউয়ি.পে এই সংবাদটি তুলে ধরে।

এই সাইটটি ব্যাখ্যা করেছে:

[…] al percatarse que los rescatista no se abastecían para sacar del agua a los bañistas, los que se encontraban en el lugar armaron una cadena humana espontáneamente para poder ayudar.
A pesar de que había salvavidas, era complicado sacara (sic) a los bañistas, pues la corriente y las olas eran muy fuerte. Pero finalmente, la cadena humana pudo salvarlos y los que participaron del rescate recibieron los aplausos del público.

[…] যখন সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিরা খেয়াল করে যে তাদের পক্ষে আর পানি থেকে সাতারুদের উদ্ধার করা সম্ভব নয়, তখন তারা স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে এক মানব বন্ধন তৈরি করে, যাতে তারা এদের সাহায্য করতে পারে।

যদিও সেখানে জীবন রক্ষাকারী বাহিনীর লোকজন উপস্থিত ছিল, কিন্তু সাতারুদের সমুদ্রের ঢেউ থেকে উদ্ধার করে আনাটা ছিল জটিল একটা কাজ। কিন্তু অন্তত এই মানববন্ধন তাদের রক্ষা করতে সমর্থ হয়, আর যারা এই উদ্ধার কার্যে অংশ নিয়েছিল তারা জনতার করতালি লাভ করে।

বেশ কিছু সংবাদপত্রে এই ঘটনাটি শিরোনাম হয়, টুইটার ব্যবহারকারীরা এই মানববন্ধনের ছবি প্রদর্শন করে:

চারজন সাঁতারুকে উদ্ধারে সমুদ্রস্নানে অংশ নেওয়া ৫০ জন নাগরিক এক মানববন্ধন তৈরী করে…

এক মানববন্ধন আরিকা সমুদ্র তটে ডুবে যাওয়ার উপক্রম চারজনকে উদ্ধারের করেছে।

আরিকা সমুদ্র তটে ডুবে যাওয়ার উপক্রম চারজনকে উদ্ধারের জন্য সেখানে সাঁতার কাটা ব্যক্তিরা এক মানববন্ধন তৈরী করে।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী এক পরিপূর্ণ আশার বাণী প্রদান করেছে :

আরিকা সমুদ্র তটে মানব বন্ধন গড়ে কয়েকজন ব্যক্তিকে ডুবে যাওয়া থেকে বাঁচানোর জন্য সাতারুরা যে একাত্মতা প্রদর্শন করেছে তা মানবতার প্রতি বিশ্বাস রাখতে আমাকে বাধ্য করেছে!

সৌভাগ্যক্রমে এই ধরনের মহানুভবতা প্রদর্শন পেরুতে অস্বাভাবিক কিছু নয়। কয়েকদিন আগে পেরুর শত শত মোটর সাইকেল-এর চালক রাতের বেলা তাদের মোটর সাইকেলে লাইট জ্বালিয়ে রাখে যাতে উকাইলির রানওয়ে উজ্জ্বল হয়ে উঠে, যেন এই আলোতে মুমূর্ষু তিন রোগীকে নিয়ে যাত্রা করা বিমান আকাশে উড্ডয়ন করতে পারে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .