বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তদন্ত কর্মকর্তার রহস্যজনক মৃত্যু সত্বেও, আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি সন্ত্রাসী হামলার প্রমাণ মুছে ফেলার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে রয়েছেন

Argentine President Cristina Kirchner in Buenos Aires, May 16, 2013, photo by Filippo Fiorini, Demotix.

১৬ মে, ২০১৩ তারিখে বুয়েন্স আইরেসে-এ আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি ক্রিষ্টিনা ক্রিচনার। ছবি ফিলিপ্পো ফিওরিনির। ছবি ডেমোটিক্সের।

তদন্ত কর্মকর্তা আলবার্টো নিসম্যানের রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে, যাকে গত মাসে বাথরুমের মেঝেতে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়, সে আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি ক্রিস্টিনা ফার্নানদেজ ডে ক্রিচনারের বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগ না এনে ছাড়েনি। এর আগে নিসম্যানের সাথে কাজ করা আরেকজন কেন্দ্রীয় তদন্ত কর্মকর্তা জেরার্ডো পিলিসিতা, এক বিচারককে নিসম্যানের আনা মূল অভিযোগের ঘটনা পুনরায় খতিয়ে দেখার আহ্বান জানিয়েছে, যে ঘটনায় অভিযোগ আনা হয় যে আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি ক্রিচনার এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেক্টর টিমারম্যান ১৯৯৪ সালে বুয়েন্স আইরেসে সংঘঠিত এএমআইএ বোমা হামলার তদন্তে হস্তক্ষেপ এবং এরপর এই ঘটনায় ইরানের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ মুছে ফেলায় সাহায্য করেছে।

যখন নাগরিকরা জানতে পারল যে ক্রিচনার এবং টিমারম্যানের বিরুদ্ধে আনা নিসম্যানের অসমাপ্ত অভিযোগ প্রমাণ করার দায়িত্ব পলিসিতা গ্রহণ করেছে, তখন তার নামের শেষ অংশ টুইটারে এক আলোচিত ধারায় পরিণত হয়। সেখানে ব্যবহারকারীরা এই তার এই পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করে, পলিসিতার জীবন নিয়ে তাদের আশঙ্কা ব্যক্ত করে। ক্রিচনারের সংসদ বিষয়ক মন্ত্রীর সাথে সুর মিলিয়ে অন্যেরা রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে আনা এই অভিযোগের প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারা বৈধ অভ্যুথান সক্রিয় করা (গোলপিসমোজুডিশিলাএকটিভো) ও সকলে ক্রিস্টিনার পাশে আছে (টোডোসকনক্রিস্টিনার) নামক দুটি হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে টুইট করেছে:

আমি জানি না, কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তা পলিসিতাকে অবশ্য সকল ধরনের বাজে ঘটনা থেকে রক্ষা করতে হবে …যেন [এই তদন্তকারী] আবার “আত্মহত্যা” না করে বসে…
এই সপ্তাহের দীর্ঘ ছুটির দিনে পলিসিতা প্রাতঃকর্ম করার জন্য বাথরুমে প্রবেশ করছে, এরপর রহস্যজনকভাবে ঘুমিয়ে এবং বুলেটের আঘাতে শুয়ে পড়ছে….

কোন প্রমাণ ছাড়াই নিসম্যান অভিযোগ করেছে, আর পলিসিতা তার খেলা দেখাচ্ছে এবং মূল ধারার প্রচার মাধ্যম কেবল বৈধ অভ্যুথান ঘটানোর পাঁয়তারা কষছে।

সকলে ক্রিস্টিনাকে জেলে দেখতে চায়।

আর এতে যা হয়েছে, সিএফকে [ক্রিস্টিনা ফার্নানদেজ ডে ক্রিচনার] এক অনুভূতিতে পরিণত হয়েছে, নাগরিকেরা তার প্রেমে পড়েছে- এটা কেবল আমি না- আমরা লক্ষ লক্ষ নাগরিক।

দেশটির বিভিন্ন অংশের তদন্ত কর্মকর্তা এবং বিচারকদের ১৮ ফেব্রুয়ারিতে গ্রহণ করা এক মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচির মাত্র কয়েকদিন আগে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় পদে অধিষ্ঠিত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের পুনরায় তদন্তের নির্দেশ এসেছে। “নীরবতার মিছিল” নামের এই মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে নিসম্যানের মৃত্যুর এক মাস অতিক্রান্ত হওয়া উপলক্ষে। যার মধ্যে দিয়ে সরকারের প্রতি তার সেবাকে স্মরণ করা হবে এবং অ্যাটর্নি জেনারেল-এর দপ্তরকে এই ঘটনার প্রতি মনোযোগ প্রদানের আহ্বান জানানো হবে। নীচে তুলে ধরা ভিডিও সাথে টুইটার হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা ১৯ ফ্রেব্রুয়ারির এই বিক্ষোভ কর্মসূচির কথা সবাইকে জানিয়ে দিচ্ছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .