বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

রাশিয়া এবং ইউক্রেনের টুইটার ব্যবহারকারীরা তাদের রাষ্ট্রপতি সম্বন্ধে কি বলছে?

Photo by Kamyar Adl on Flickr. CC BY 2.0.

ছবি ফ্লিকারের কাম ইয়ার আদল-এর, সিসি বাই ২.০

এই প্রবন্ধ নাগরিক প্রচার মাধ্যমে তথ্য বিশ্লেষণ প্রকল্পের এক অংশ, রুনেট ইকো এবং ম্যারিল্যান্ড ইন্সটিটিউট ফর টেকনোলজি ইন দি হিউমানিটিজ-এর যৌথ উদ্যোগের ফসল। অল দি প্রেসিডেন্টস টুইট পাতায় সম্পূর্ণ সিরিজ প্রবন্ধ দেখুন।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে স্যোশাল মিডিয়ার রাডারে ধরা পড়ছে যে ইউক্রেন এবং রাশিয়া উভয়কে এখন বেশি বেশী দেখা যাচ্ছে, তবে এখানে এর শেষ নয়, ইউরোময়দান বিক্ষোভ-এর ফলে ঘটা সামাজিক এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা এবং ক্রিমিয়া এবং পূর্ব ইউক্রেন নিয়ে চলতে থাকা আন্তর্জাতিক সংঘর্ষ যার কারণ।

রাজনৈতিক, সামরিক এবং তথ্যগত সংঘর্ষের মাঝেও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা প্রায়শ জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব, কর্মকর্তা এবং নিজ দেশের সবচেয়ে সেরা এবং বাজে রাজনীতিবিদদের নিয়ে আলোচনা শুরু করে এবং দুটি দেশের রাজনীতিবিদদের মতো আর কোন ঘটনা এসব আলোচনার কেন্দ্রে অবস্থান করে না।

রুনেট ইকো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে রুশ এবং ইউক্রেন–এর ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা তাদের উভয়ের রাষ্ট্রপতি-ভ্লাদিমির পুতিন এবং প্রেট্রো পোরশেঙ্কোকো নিয়ে কি আলোচনা করে, সে বিষয়ে তারা এক অনুসন্ধান চালাবে। কাকে নিয়ে তারা বেশী আলোচনা করে? কোন প্রেক্ষাপটে তারা কি বলে? এই প্রখ্যাত রাজনীতিবিদদের সাথে কোন ধরনের ছবি এবং মাল্টিমিডিয়া তারা যুক্ত করে? এই সমস্ত ও অন্য অনেক প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে আমরা অক্টোবর ২০১৪ থেকে আমরা টুইট সংগ্রহ করা শুরু করি এবং এখন আমাদের কাছে ইংরেজি, রুশ এবং ইউক্রেনের ভাষায় করা লক্ষ লক্ষ টুইট রয়েছে যেখানে পুতিন এবং পোরোশেঙ্কোর কথা উল্লেখ করা হয়েছে। নিঃসন্দেহে বিশাল এই সংখ্যক ডাটা যা টুইটের প্রতিনিধিত্ব করে, তার মধ্যে সামান্য পরিমাণ রুশ এবং ইউক্রেনের নাগরিকদের করা। কিন্তু তার পরিমাণ হিসেব করলেও আমাদের কাছে হাজার হাজার পরিমাণ ডাটা রয়েছে যা উক্ত দুই ব্যক্তি সম্বন্ধে সাধারণ জনতার ধারণা কি তা উন্মোচন করবে।

আগামী কয়েক মাস, আমরা আমাদের এই বিশ্লেষণের ফলাফল প্রকাশ করতে থাকব এবং টুইটার ডাটা থেকে পাওয়া কাহিনী আপনাদের সামনে তুলে ধরব। পাঠককে যুক্ত করে এমন ইনফোগ্রাফিকস, ধারণার বাইরে কিছু বিষয় আবিস্কার, এবং মজার মাল্টিমিডিয়া সংগ্রহের সাথে থাকুন, যার সবগুলো হচ্ছে রাশিয়া এবং ইউক্রেনের টুইটার ব্যবহারকারীরা তাদের রাষ্ট্রপতি সম্বন্ধে কি বলছে তা নিয়ে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .