বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

অ্যান্টার্টিকার ভুল অভিযান রাশিয়ার সংসদ সদস্যদের কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ফেলেছে

Images edited by Kevin Rothrock.

ছবি সম্পাদনা কেভিন রথরক-এর

রুশ আইনসভা দুমার সংসদ আলেকজান্ডার সিদইয়াকিন, যিনি তাতারস্তান থেকে নির্বাচিত রাশিয়ার শাসকদল ইউনাইটেড রাশিয়ার এক সদস্য, গত ডিসেম্বরে তিনি গর্বের সাথে উচ্চারণ করেন যে তিনি অ্যান্টার্টিকার সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গে রুশ পতাকা উত্তোলন করবেন, যদি নতুন বছর শুরু নাগাদ তার টুইটার একাউন্ট পুনরায় ১১,০০০ টি টুইট লাভ করে।

এমনকি তার স্বদেশপ্রেমের স্বরকে আরো জোরালো করে সিদইয়াকিন তার টুইটার প্রস্তাবনা “অ্যান্টার্টিকা আমাদের” (#антарктиданаша) নামক হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে ইতি টানে। এই বাক্যটি দিয়ে “ক্রিমিয়া আমাদের” (“Крым наш!) নামক এখনকার বিখ্যাত স্লোগান নিয়ে খেলা করা হয়েছে।

এই লেখা শুরুর সময় পর্যন্ত সিদইয়াকিনের পোস্ট ২০০০-এর চেয়ে কম পুনরায় টুইট করা হয়েছে, কিন্তু এই বিষয়টি তাকে কোন এক ছুটির দিনে অ্যান্টার্টিকা অভিযানে যাওয়ার ইচ্ছে থেকে বিরত রাখতে পারেনি। এমনকি তার এক সহযোগী এক সংসদ, ইউনাইটেড রাশিয়ার সদস্য ওলেগ সাভচেঙ্কো তার সাথে যোগ দেওয়ার ইচ্ছে পোষণ করে।

এরপর, ১৪ জানুয়ারিতে এই জুটি আকস্মিক ভাবে জাতীয় সংবাদে উঠে আসে, যখন সিদইয়াকিন-এর প্রেস সচিব টুইট করে যে সাভচেঙ্কোর সাথে চুক্তির ইতি টানা হয়েছে এবং সম্ভবত অ্যান্টার্টিকা অভিযানের সময় তাদের উভয়ের মাঝে কিছু একটা সংঘঠিত হয়েছে।

ওই দিনে পরবর্তীতে বিবিসির সংবাদদাতা তাদের পরিবহন কোম্পানির মাধ্যমে দুমার এই দুই সংসদের সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয় এবং সিদইয়াকিন-এর মুখপাত্র আবারো টুইটারে মাধ্যমে এই বিষয়টি নিশ্চিত করে যে সিদইয়াকিন এবং সাভচেঙ্কো উভয়ে জীবিত এবং সুস্থ রয়েছে।

স্বদেশপ্রেমী এই দুই অ্যান্টার্টিকা অভিযাত্রী জাতীয় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু থেকে নিজেদের অক্ষত রেখে তা থেকে বের হয়ে আসতে পারেনি, বরঞ্চ তার বদলে উভয়ে নিজেদের এক রাজনৈতিক কেলেঙ্কারির মাঝে আবিস্কার করে।

সিদইয়াকিন এবং সাভচেঙ্কো

নাভালনেই-এর ওয়েবসাইটের এক পোস্ট-এর গ্রাফিক থেকে নিচের এই লেখা গ্রহণ করা হয়েছে। যা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়

সংসদদের এই বিনম্র জীবনের মাঝে; এই দুই সংসদ এক পর্বত শৃঙ্গ জয় করার লক্ষ্যে অ্যান্টার্টিকা যাত্রা করেন, এর এ কাজে তাদের সাহায্য করে ভ্রমণ বিষয়ক এক কোম্পানী “সেভেন সামিট”। “মস্কোভস্কি কমসমোলেট”–এর এক হিসেব মতে প্রতিটি সংসদের এই যাত্রায় খরচ পড়েছে ৩.৫ মিলিয়ন রুবেল [৫৩,৬৯৫ মার্কিন ডলার]। তাদের এই অ্যান্টার্টিকা অভিযান যা সংসদ চলাকালীন সময়ে আয়োজন করে, এর জন্য যে খরচ পড়েছে তার পরিমাণ সিদইয়াঙ্কোর দাপ্তরিক বাৎসরিক বেতনের পুরোটার এবং সাভচেঙ্কোর দাপ্তরিক বাৎসরিক বেতনের এক তৃতীয়াংশের সমান। “ইউনাইটেড রাশিয়া”–জালিয়াত এবং প্রতারকের দল। সবসময় তাদের বিরুদ্ধে ভোট দেও এবং তাদের উত্তেজিত কর।

রাশিয়ার বিভিন্ন প্রচার মাধ্যম, যার সাথে দূর্নীতি বিরোধী একটিভিস্ট যেমন আলেক্সি নাভালনেই-এর সাথে কাজ করা দল, দ্রুত সিদইয়াকিন এবং সাভচেঙ্কোর এই অভিযানের ক্ষেত্রে দুটি জটিলতা তুলে ধরে।

তার ব্লগের এক লেখায় নাভালনেই ছোট আকারে দুটি জটিলতা তুলে ধরছে:

Правда, сразу же выяснились ещё два интересных факта:
1. Депутаты нарушили их собственный закон о порядке посещения Антарктиды гражданами РФ.
2. Поездка осуществляется в рабочие дни, и непонятно какого чёрта вся страна работает, а депутаты с зарплатой в 450 тысяч рублей в месяц шастают по Антарктиде.

বাস্তবে, দুটি কৌতূহলজনক তথ্য সাথে সাথে পরিষ্কার হয়ে উঠেছে:
১. এই সংসদ সদস্যরা রুশ নাগরিক হিসেবে অ্যান্টার্টিকা ভ্রমণের সময় তাদের নিজেদের গড়া আইনি প্রক্রিয়া ভঙ্গ করেছে।
২. তারা তাদের কর্ম দিবসে এই ভ্রমণ করে, আর এটা একটা রহস্য যে কি ভাবে এই দেশটি চলছে, যখন ৪৫০,০০০ রুবেল [৬,৯০৩ মার্কিন ডলার] বেতনের সংসদ সদস্যরা কাজের সময় অ্যান্টার্টিকা ঘুরে বেড়াচ্ছে।

স্লোনরু.এর সংবাদ অনুসারে উভয় সংসদ সদস্য ২০১২ সালের এই আইনটিকে সমর্থন করেছিল, যার অধীনে যে কোন রুশ নাগরিকের যে কোন ধরনের অ্যান্টার্টিকা ভ্রমণের জন্য কেন্দ্রীয় জলীয়-আবহাওয়াবিদ্যা এবং পরিবেশ পর্যবেক্ষণ বিভাগের অনুমতি প্রয়োজন। কেন্দ্রীয় দপ্তরের মতে সিদইয়াকিন এবং সাভচেঙ্কো উভয়ে তাদের বর্তমান এই যাত্রার যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণে ব্যার্থ হয়েছে

অনলাইন এবং প্রচার মাধ্যমে এই নিয়ে আরো বেশী আলোচনার সূত্রপাত ঘটেছে যে তারা কি ভাবে এরকম এক ব্যায়বহুল যাত্রার সামর্থ্য অর্জন করল।

মস্কোভোস্কি কমোসমোলেটস-এর এক হিসেব অনুসারে এই ধরনের যাত্রায় একজন ডেপুটির খরচ পড়েছে অন্তত ৩.৫ মিলিয়ন রুবেল [প্রায় ৫৩,৬৯৫ মার্কিন ডলার]। নাভানলেই-এর ওয়েবসাইট যে বিষয়টির উপর জোর দিয়েছে তা হচ্ছে এই অর্থ সিদইয়াকিনের পুরো বাৎসরিক বেতনের এবং সাভচেঙ্কোর বাৎসরিক বেতনের এক তৃতীয়াংশ।

সিদইয়াকিন-এর মুখপাত্রের একেবারে সাম্প্রতিকতম টুইট অনুসারে মনে হচ্ছে সিদইয়াকিন ও সাভচেঙ্কো অ্যান্টার্টিকার সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গে রাশিয়ার পতাকা উত্তোলন করতে সফল হয়েছে।

তবে মনে হচ্ছে, এখন দেখার বিষয় স্বদেশে তাদের কি বীরোচিত সম্বর্ধনা প্রদান করা হবে, নাকি তাদের কেবল নির্বাচক মণ্ডলীর কাছ থেকে প্রচুর প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .