বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ব্রিসবেনের জি২০ শীর্ষ সম্মেলনে বিশ্ব নেতাদের কি আলোচনা করা উচিত

G20 Summit in Brisbane Australia. Flickr photo from GovernmentZA (CC License)

G20 Summit in Brisbane Australia. Flickr photo from GovernmentZA (CC License)

নভেম্বর ১৫-১৬, ২০১৪ তারিখে অনুষ্ঠিত জি২০ সম্মেলনের কারণে এমন কিছু ঘটেছে যা সন্ত্রাসীরাও করতে পারেনি-অস্ট্রেলিয়ার একটি শহরের কেন্দ্রস্থল পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে, যার নাম ব্রিসবেন। কেবলমাত্র প্রেসিডেন্ট ওবামার আগমন সবাইকে আকৃষ্ট করেছে।

শুক্রবার, ফেসবুক ব্যবহারকারী পিটার ব্ল্যাক এর কারণ ব্যাখ্যা করেন:

South Bank Brisbane for G20

South Bank Brisbane G20 – Courtesy Peter Black Facebook

On my walk home from South Bank this afternoon, I got stopped by a police officer by the name of Chenin Newson on the river walk in front of the Stamford Plaza. He wanted to know why I had taken this photo of the Stamford Plaza a few minutes earlier. He also wanted to know what I was doing in the area. I explained that I lived in New Farm and had been walking around all afternoon observing the G20. He asked for my name and identification, both of which I happily provided. He took down my name, license number, address and phone number. He explained that under the G20 (Safety and Security) Act the police were required to be extra vigilant around restricted areas. I said I understood but that there was also nothing in the Act that made it an offence for me to take photos. He agreed. He then asked me what I did. I said I was lecturer in law at QUT. He thanked me for my time and understanding, and wished me a good afternoon.

আজ বিকেলে সাউথ ব্যাংক থেকে বাড়ি ফেরার সময়, নদীর পাশের হাঁটা পথে স্টামফোর্ড প্লাজার সামনে চেনিন নিউসন নামের একজন পুলিশ আমাকে থামান। তিনি আমার কাছে জানতে চান কয়েক মিনিট আগে স্টামফোর্ড প্লাজার এই ছবিটি আমি কেন তুলেছি। তিনি আরও জানতে চান আমি ঐ এলাকায় কি করছিলাম। আমি ব্যাখ্যা করে বললাম যে আমি নিউ ফার্ম এলাকায় বাস করি, এবং সারাটা বিকেল আমি হেঁটে হেঁটে জি২০ সম্মেলন পর্যবেক্ষণ করছিলাম। তিনি আমার নাম এবং পরিচয়পত্র দেখতে চান, আমি আনন্দের সাথে সেসকল তথ্য সরবরাহ করি। তিনি আমার নাম, লাইসেন্স নম্বর, ঠিকানা এবং ফোন নম্বর লিখে নেন. তিনি আমাকে ব্যাখ্যা করে বলেন যে, জি২০ (সেফটি এবং সিকিউরিটি) আইনের অধীনে পুলিশ কিছু কিছু এলাকায় অতিরিক্ত সতর্কতা নিয়েছে। আমি তাকে বললাম যে, আমি বুঝতে পেরেছি কিন্তু এই আইনের আওতায় ছবি তোলা কোন অপরাধ না। তিনি এব্যাপারে একমত হন। তিনি এরপর আমাকে জিজ্ঞেস করেন, আমার পেশা সম্পর্কে। আমি তাকে জানাই যে আমি কুইন্সল্যাণ্ড ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে আইন বিভাগের একজন লেকচারার ছিলাম। তিনি আমার সময় এবং বোঝার জন্য আমাকে ধন্যবাদ জানান, এবং আমার জন্য একটি সুন্দর বিকেল কামনা করেন।

বিশ্বনেতাদের এই সমাবেশ সম্পর্কে আলোচনার অধিকাংশ বিষয় প্রকৃত এজেণ্ডা বহির্ভূত। জি২০ মূলত একটি অর্থনৈতিক ফোরাম। জলবায়ু নিয়ে কথা বলতে কম আগ্রহী অস্ট্রেলিয়ান প্রধনামন্ত্রী টনি অ্যাবট চেষ্টা করেছেন জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়টিকে দূরে রাখতে।

ম্যাক্রোবিজনেস ব্লগ পুরো ব্যাপারটির হাল্কা দিক দেখছে এবং দেখাচ্ছে যে, হাতি আসলে ঘরের বাইরে:

More on the ironic G20 weather forecast. If it reaches the forecast 39C it will break the November record by more than 4 degrees

জি২০ বিষয়ে আরও কিছু বিদ্রূপাত্মক আবহাওয়া পূর্বাভাস। যদি পূর্বাভাস ৩৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস হয়, তবে তা নভেম্বরের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যাবে, যা ৪ ডিগ্রী বেশি।

ইউক্রেনের সংকট বিষয়ে রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও অন্যরা তাদের মতবিরোধ সমাধানের চেষ্টা করবে না। দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে রাশিয়ান যুদ্ধজাহাজ উপস্থিতি টনি অ্যাবটের সঙ্গে ভ্লাদিমির পুতিনের ঠাণ্ডা সম্পর্ককে আরও সংকট্ময় করে তুলেছে:

ইউক্রেন সংকটে রাশিয়ার মনোভাবের মাঝেই, মস্কো অস্ট্রেলিয়ান উপকূলে লুকিয়ে থাকার জন্য যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে।

যাদের হাতে সময় আছে, তারা টুইটার হ্যাশট্যাগ #শার্টফ্রন্ট (#shirtfront) এর মাধ্যমে এ দ্বন্দ্বের প্রকাশ আরও দেখতে পারেন।

আপনি টুইটারের বেশ জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগ থেকে যেকোনটি নির্বাচন করতে পারেন। এদের মধ্যে পুরানো কিন্তু অনুরক্ত #ব্রিসি (#Brissie) এবং প্রচলিত #ব্রিসভেগাস (#Brisvegas) রয়েছে। #জি২০ব্রিসবেন (#G20Brisbane)

বেশি ব্যবহৃত হচ্ছে কিন্তু তা সারা বিশ্ব থেকে ট্যাগ হচ্ছে, যেমনটি হচ্ছে #জি২০

ইবোলা সংকট বিষয়ে অনেকে বিতর্ক করতে চাইবেন। নার্সরা বিষয়টিকে আরও বিস্তৃত করেছে স্বাস্থ্য তহবিল সম্পর্কে সাধারণভাবে কথা তুলে:

বরাবরের মত এবারও স্বাভাবিকভাবে অন্যান্য কার্যক্রম এবং বিক্ষোভ মিছিল আছে। আলোচনার এক বিষয় হচ্ছে এনোনিমাসের মত মুখোশ পরিধানের বৈধতা যা বিশেষ জি২০ আইনের অধীনে পড়ে:

এনোনিমাস মুখোশ পড়ার আইনকে পাস কাটাতে বিসব্রেনে বোরখা পরতে পারে।

জি২০ কার্যবিবরণীর আনুষ্ঠানিক অংশ শুরুর পর এ বিষয়ে আরও জানতে গ্লোবাল ভয়েসে চোখ রাখুন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .