বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

গোয়েন্দাগিরি'র অপবাদ ছাড়াই কীভাবে চিনে রেলগাড়ির ছবি তুলবেন

railkingjp

রেলকিংজেপি'র ইউটিউব ভিডিও'র স্ক্রিনশট।

আপনি যদি চিনে গিয়ে রেলগাড়ির ছবি তুলতে চান, তাহলে আপনাকে যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। নইলে আপনার কাঁধে গোয়েন্দাগিরি'র অপবাদ জুটতে পারে। এমন তথ্যই জানিয়েছেন বিশিষ্ট রেলগাড়ি ফটোগ্রাফার এবং ইউটিউবের ভিডিও ব্লগার রেলকিংজেপি

কারণ জাপানের মতো চিনে রেলগাড়ির ছবি তোলা এবং তা অনলাইনে শেয়ার করা ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়নি। তবে চিনে এখনো বাষ্পীয় ইঞ্জিনের রেলগাড়ি চলে, যা জাপানি রেলগাড়ি ফটোগ্রাফারদের চিনের দিকে টেনে নিয়ে যায়।

তাই যারা চিনে গিয়ে রেলগাড়ির ছবি তুলতে চান, তাদেরকে নানা ধরনের পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রেলকিংজেপি (ইউটিউবে তার অনেক ভিডিও-তে ইংরেজি ক্যাপশন রয়েছে):

রেলকিংজেপি শুধু রেলের ছবি তোলার ক্ষেত্রেই পরামর্শ দেননি, চিনে কীভাবে হোটেলের রুম ভাড়া পাওয়া যায় সে বিষয়েও পরামর্শ দিয়েছেন।

হোটেল রুম ভাড়ার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জ-টা কী? চ্যালেঞ্জ-টা হচ্ছে একটি কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ পাওয়া, যেটা বিদেশি নাগরিকরা ব্যবহার করতে পারবেন।

তাছাড়া রাস্তায় যেসব টাউট-বাটপারের দেখা পেয়েছেন, তাদেরকেও তিনি তথ্যচিত্রে তুলে এনেছেন:


রেলের ফটোগ্রাফারদের জন্য শিক্ষণীয় কী? এটা নিশ্চিত করা যে, হোটেলে ইন্টারনেট সংযোগ আছে। এবং রুম ছাড়ার সময়ে টাকা ঠিক আছে কি না, তা দেখে নিতে দ্বিধা না করা।

অন্য একটি ভিডিওতে তিনি দেখিয়েছেন, বাষ্পীয় ইঞ্জিন কীভাবে ফ্লাই অ্যাশ (ধূলি কণা) ছড়ায়। এই ধূলি কণা দেখতে অনেকটা “মাশরুমের মেঘের” মতো:


চিনে রেলকিংজেপি'র বেশিরভাগ চিত্র খুবই ভালো হয়েছে। এই ভিডিও-তে তিনি ন্যারো গেজ রেলপথ ধরে অন্ধকারের ভিতর দিয়ে হেঁটে গেছেন। তার ভিডিও-তে চিনের গ্রামীণ সমাজ-সংস্কৃতি এবং পরিবহন ব্যবস্থার চমৎকার চিত্র ফুটে ওঠে:

রেলগাড়ি যদি পছন্দের বাহন হয়ে থাকে, তাহলে রেলকিংজেপি আপনার জন্য চমৎকার কিছু ফুটেজ আপলোড করেছেন। এই ভিডিও-তে চিনের দ্রুতগতির রেল লাইনের সাথে বাষ্পীয় ইঞ্জিনের ছবিও দিয়েছেন:

রেলকিংজেপি-কে শুধু চিনে নয়, জাপানের টোকিওতেও দেখা গেছে। তিনি আসলে একজন ব্যবসায়ী। ব্যবসার কাজে তাকে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে হয়। তিনি যেখানে ঘুরতে যান, সেখানকার রেলগাড়ির ছবি তোলেন। তিনি জাপানেরও কিছু রেলগাড়ির ছবি আপলোড করেছেন (যদিও তার সবগুলোর ইংরেজি ক্যাপশন দেয়া নেই)।

তিনি জাপানে তোলা কিছু ভিডিওচিত্রে জাপানের রেলগাড়ির ছবি তোলার ব্যাপারে কিছু পরামর্শও দিয়েছেন।
উদাহরণ হিসেবে নিচের ভিডিও-টা দেখুন। রেলকিংজেপি জাপানের বুলেট ট্রেনের সবচে’ ভালো জায়গার কথা বলেছেন:


এই ভিডিও-তে রেলকিংজেপি আকিহাবারা থেকে কেনা একটি দরকারি ওয়্যারলেস ডিভাইসের ব্যবহার দেখাচ্ছেন, যা দিয়ে জানা যায় কখন রেলগাড়ি আসবে:

আরো অনেক রেলগাড়ি প্রেমিকের মতো রেলকিংজেপি-ও দুর্লভ রেলগাড়ির ছবি তোলেন। আর এজন্য প্রায়ই তিনি জাপানের ক্ল্যাসিক রেলগাড়ির জায়গাগুলোতে যান। তিনি কিছু দুর্লভ রেলগাড়ির সামনের দিকের ভিডিওচিত্র আপলোড করেছেন। ইউটিউবের মাধ্যমে জাপানের রেল ব্যবস্থা ঘুরে দেখার অন্যতম উপায় হলো রেলগাড়ির সামনের দিকের আপলোড করা ছবি দেখা।

রেলকিংজেপি সম্প্রতি টোকিও'র শিনজুকু থেকে হাকোনের হট স্প্রিং রিসোর্টে গিয়েছিলেন। আর যাওয়ার পথেই ওডাকু রোমান্স কারের সামনের দিকের ছবি নিয়েছেন:

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .