বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইউটিউব মাতালো এ্যাপলের দ্বারা অনুপ্রাণিত ইউক্রেনিয়ান ব্যান্ডের দূর্দান্ত মিউজিক ভিডিও

The "Knock Knock" video was shot in one take and uses 14 different screens to tell its story. Image from YouTube.

“নক নক” শিরোনামের পুরো ভিডিওটির শুটিং একবারেই চূড়ান্ত করা হয়েছে এবং এতে মূল গল্প তুলে ধরার জন্য ১৪ টি ভিন্ন ভিন্ন ছবির পর্দা ব্যবহার করা হয়েছে। ছবিটি ইউটিউব থেকে নেওয়া হয়েছে।

অখ্যাত একটি ইউক্রেনিয়ান ইন্ডি রক ব্যান্ড দল দূর্দান্ত একটি মিউজিক ভিডিও দিয়ে ইউটিউব ব্যবহারকারী এবং এ্যাপলের ভক্তদের হৃদয় জয় করে নিয়েছে। ভিডিওটি এ পর্যন্ত ইউটিউবে অর্ধ মিলিয়নেরও বেশি সংখ্যক বার দেখা হয়েছে।

ক্রিভিই রিহ থেকে আসা ব্রুনেট শুট ব্লন্ডেস নামক ইন্ডি রক ব্যান্ড দলটি তাদের “নক নক” গানের মিউজিক ভিডিওটির শুটিঙের জন্য একটি অগতানুগতিক কৌশল অবলম্বনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ক্রিভিই রিহ হচ্ছে পূর্ব ইউক্রেনের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত একটি শিল্প প্রধান নগরী। আড়াই মিনিট দীর্ঘ ভিডিওটিতে ১৪টি ভিন্ন ভিন্ন এ্যাপল ডিভাইসের পর্দা ব্যবহার করে চিত্রধারণ করা হয়েছে। এ্যাপল ডিভাইসগুলো হচ্ছেঃ স্মার্টফোন, ট্যাবলেট এবং ল্যাপটপ। ভিডিওতে গল্পের চরিত্রগুলো এমনভাবে এক পর্দা থেকে আরেক পর্দাতে লাফিয়ে যায় যেন মনে হয় তারা জাদু দিয়ে এক ডিভাইস থেকে আরেক ডিভাইসে চলে যাচ্ছেন।  

ভিডিওটি তৈরি করতে নিশ্চয়ই অনেক প্রস্তুতি নিতে হয়েছে। ভিডিওটির গল্পের লেখক শুরু থেকেই বলছেন বাস্তবে কেবলমাত্র একটি ক্যামেরা ব্যবহার করে একবার টেক করেই গানটির চিত্রধারন করা হয়েছে। আর চিত্রধারনের পর তাতে কোন রকম সম্পাদনা করা হয়নি। এর ফলাফলস্বরূপ সকলের কাছে অত্যন্ত প্রিয় হয়ে ওঠা একটি ভালোবাসার গল্প পাওয়া গেছে যা অত্যন্ত রোমাঞ্চকর একটি গানের ভিডিও। ভিডিওটিতে খুব সম্ভব ঘন্টার পর ঘন্টা খরচ করে বিভিন্ন ডিজাইন এবং এ্যানিমেশনের কাজ করা হয়েছে। তাঁর সাথে সাথে ভিডিওটির সারণীতে যত্নের সাথে ছোট যন্ত্রগুলোর নাচের মুদ্রা ঠিক করা হয়েছে। আর এতে সময়ের হিসাবগুলোও একেবারে যথার্থ হয়েছে।

ব্যবহারকারীরা ইউক্রেনিয়ান ব্যান্ড দলটির ভিডিওর মূল কপিটি ওয়েবে শেয়ার করলেও তাদের কেউ কেউ বেশ কৌতুকের সাথে অনুমান করে বলছেন, ভিডিওটি হয়তোবা এ্যাপল কোম্পানির কোন গোপন বিজ্ঞাপন হবে। তাদের এমন অনুমানের কারন, ভিডিওটির বেশ উল্লেখযোগ্য অংশ জুড়েই ডিভাইসগুলো দেখা যাবে। আমরা বিস্মিত হয়েছি, এ্যাপল যদি গান-এবং তাঁর সাথে দেয়া ভিডিওটিতে নিজেদের নাম জুড়ে দিতে পারতো, তবে এটি এ্যাপলের একটি দারুণ বিজ্ঞাপনে পরিণত হত।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .