বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

স্কপিয়েতে দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে হাঁটা কর্মসূচীর জন্য প্রস্তুত মেসেডোনিয়ানরা

মেসেডোনিয়া ইউরোপের অন্যতম দরিদ্র একটি দেশ। হিসেব অনুযায়ী, এখানকার শতকরা ৩০ শতাংশ জনগণ দরিদ্র এবং একই শতাংশ লোক বেকার। এমনকি দেশটি দ্যা ইকোনমিস্ট পত্রিকার ২০১২ সালের দূর্গতি ইনডেক্সে বিশ্বের সবচেয়ে দূর্দশাগ্রস্ত দেশ হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। এ ইনডেক্সে বেকারত্বের হার এবং তাঁর সাথে মূল্যস্ফীতির হারের উপর ভিত্তি করে দেশগুলোকে ক্রমানুসারে সাজানো হয়।

মেসেডোনিয়ার দুইটি বেসরকারি সংস্থা, দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে মঞ্চ এবং ৮ সেপ্টেম্বর এ ব্যাপারে কিছু কাজ করার চেষ্টা করেছে। এই লক্ষ্যে রাজধানী শহর স্কপিয়েতে ১ মার্চ, ২০১৪ তারিখে তারা দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে একটি হাঁটা কর্মসূচী পালনের আয়োজন করেছে। স্কপিয়েতে সকাল ১১ টা ৫৫ মিনিটে “৫ থেকে ১২ মিনিট” নামের স্মারক শিরোনামের অধীনে এই হাঁটা কর্মসূচী পালন করা হবে।   

একটি ফেসবুক ইভেন্ট পেজ এবং একটি ব্লগের মাধ্যমে এই হাঁটা কর্মসূচীর আয়োজন এবং প্রচার করা হয়েছে। স্মারক শিরোনামের নামেই ফেসবুক ইভেন্ট এবং ব্লগের নাম দেয়া হয়েছে। তাঁর পাশাপাশি #৫মিনিটথেকে১২ এবং #5do12 নামের হ্যাশট্যাগের অধীনেও টুইটারে প্রচারণা চালানো হয়েছে। একটি উন্মুক্ত কনসার্ট আয়োজনের মধ্য দিয়ে এই হাঁটা কর্মসূচির সমাপ্তি ঘটবে। কনসার্টটির নাম দেয়া হয়েছে “মর্যাদার জন্য কনসার্ট”।

"5 to 12" flyer explains the march route: Parliament, Government and Jadran Square.

“৫ থেকে ১২ মিনিট” ফ্লায়ার সমাবেশটির যাত্রা পথ ব্যাখ্যা দিয়েছেনঃ পার্লামেন্ট, সরকার এবং জাড্রান স্কয়ার।  

আয়োজকবৃন্দ তাদের দাপ্তরিক ওয়েবসাইটে এই হাঁটা কর্মসূচি আয়োজনের কারন ব্যাখ্যা [মেসেডোনিয়ার ভাষা] করেছেনঃ 

Одговорот е многу едноставен, затоа што граѓаните имаат потреба од тоа. Овој настан ги повикува да се приклучат и да ја подржат иницијативата сите оние кои живеат во сиромаштија, но и оние кои сакаат да застанат на страната на народот и да зборуваат во името на оние кои немаат глас

Нé радува и тоа што граѓаните почнуваат да прашуваат „зашто треба да излезат“, а не инструирано да се движат по маршови за оваа или онаа тема.

Ние преку овој марш сакаме да покажеме дека граѓаните живеат се полошо и полошо, дека ниту една влада досега не придонела за унапредување на нивниот квалитет на живот. Дека статистиките кои ни ги презентираат за економски раст и раст на социјалните трансфери не се реални, граѓаните живеат во беда и сиромаштија. Воедно, сметаме дека сите претходни биле успешни и добри настани затоа што секое излегување на народот на улица значи и кревање на гласот за подобар живот.

উত্তরটি খুব সাধারনঃ কারণ নাগরিকদের প্রয়োজনে এই কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। দরিদ্র সীমায় বাস করা সকলকে এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তবে যারা এই দরিদ্রদের পাশে এসে দাঁড়াতে চান এবং এই বাকশক্তিহীনদের হয়ে কথা বলতে চান তারাও এতে অংশ নিতে পারেন।

আমরা অত্যন্ত আনন্দিত যে নাগরিকরা জিজ্ঞাসা করতে শুরু করেছেন, “আমাদের কেন রাজপথে নামা উচিৎ”। আমরা এটা জেনেও আনন্দিত যে শুধুমাত্র কারও নির্দেশেই তারা প্রতিবাদে অংশ নিচ্ছেন না।

আমরা সারা মার্চ মাস জুড়েই দেখাতে চাই যে নাগরিকেরা [আগের চেয়েও] অনেক খারাপ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তাদের জীবনমান উন্নয়নে এ পর্যন্ত কোন সরকারই যথেষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। সরকার অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং সামাজিক পরিবর্তন উন্নয়ন সম্পর্কে আমাদের যে পরিসংখ্যান দেখিয়েছে তা সঠিক নয়। প্রকৃত সত্য হচ্ছে, নাগরিকেরা অত্যন্ত দুর্দশা এবং দারিদ্র্যের মাঝে জীবন যাপন করছেন। আমরা অতীতের সবগুলো আয়োজনকে সফল এবং ভালো বলেই ধরে নিচ্ছি। কারন যতবার জনগণ রাজপথে নেমে এসেছে ততবার তারা আরও উন্নত জীবনের জন্য তাদের আওয়াজ তুলতে পেড়েছে।

মার্চ মাসের আগে আয়োজকেরা ফোকাস গ্রুপকে সাথে নিয়ে গবেষণা [মেসেডোনিয়ান ভাষা] করেছেন। তারা জনগণের কাছ থেকে তথ্য এবং মতামত পেতে জনগণকে নিয়ে বিতর্কের আয়োজন করেছেন। সামাজিক নিরাপত্তা আইন পরিবর্তনের উদ্যোগ যেন নিতে পারেন সে লক্ষ্যে তারা জনগণের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করেছেন। তারা সবার জন্য ভদ্রোচিত নূন্যতম আয় নিশ্চিত করার জন্য এভাবে সংসদে বিতর্ক সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছেন। 

এই প্রচারে সাহায্য করতে এবং বাকশক্তিহীন এসব মানুষের পক্ষে আওয়াজ তুলতে স্কপিতে নাট্যকলা অনুষদের কয়েকজন শিক্ষার্থী কয়েকটি ভিডিও তৈরি করেছেন। এসব ভিডিওতে তারা জরিপ থেকে পাওয়া বিভিন্ন বিবৃতির কিছু অংশবিশেষ পড়ে শুনিয়েছেন। 

উপরের ভিডিওটিতে [মেসেডোনিয়ান ভাষা] একক দৃশ্যে বলা কথাগুলো নিচে প্রতিলিপি করা এবং অনুবাদ করা হয়েছেঃ 

Јас сум самохрана мајка и имам две деца. Не сум вработена и зимам социјална помош три илјади денара. Кај нас е срамота да кажеш дека си сиромашен – сите ќе ти се смејат. Едноставно, нема да те прифанат. Тоа и за децата е лошо. У која установа да отидеш, никој нема да ти помогне. Толку години се влечам по социјално, по секакви установи… Никој не ти помага. Само ти викат чекај, чекај… и цел живот ќе помине у чекање. А децата па нема шо да јадат. Тие деца треба да јадат нешто. Ќе тргнат еден ден у школо. Треба да ги облечеш нешто. Само полошо си праеш за себе ако кажеш дека си сиромашен. Ја шо да праам со тие две деца и со тие три илјади денара. Со шо да ги ранам? Шо да ги облечам?

আমি দু’টি পিতাহারা সন্তানের একজন মা। আমি বেকার। আমি সামাজিক উপকার ভাতা থেকে ৩,০০০ ডেনার [প্রায় ৬৭ মার্কিন ডলার] পাই। আমাদের যে সামাজিক অবস্থা তাতে আপনি খুব দরিদ্র, এটা বলা আপনার জন্য বেশ লজ্জাজনক – এখানে সবাই আপনাকে নিয়ে হাসাহাসি করবে। সহজ কথায় যদি বলি, তারা আপনাকে গ্রহণ করে নিবে না। এই পরিস্থিতি বাচ্চাদের জন্যও বেশ খারাপ। আপনি কোন প্রতিষ্ঠানের কাছে যাচ্ছেন সেটা কোন বিষয় নয়। কেউই আপনাকে সাহায্য করবে না। সব ধরনের সামাজিক কল্যাণ প্রতিষ্ঠানগুলোতে গত কয়েক বছর ধরেই আমি সাহায্যের জন্য বার বার গিয়েছি…কেউ সাহায্য করেনি। তারা শুধু অপেক্ষা করতে বলেন… আর এভাবে অপেক্ষা করেই আপনার সারা জীবন পেড়িয়ে যাবে। অথচ সে সময়ে হয়তোবা আপনার বাচ্চাকে খাওয়ানোর জন্য কিছুই নেই। বাচ্চাদের জন্য কিছু খাবার প্রয়োজন। তাদেরকে স্কুলে ভর্তি করা প্রয়োজন। তাদের জন্য আপনার কিছু কাপড় কেনা প্রয়োজন। আপনি যদি বলেন আপনি দরিদ্র তবে আপনার জন্য বিষয়গুলো আরও কঠিন হয়ে পরবে, ব্যস আর কিছুই হবে না। আমার দু’টি বাচ্চা রয়েছে। মাত্র এই ৩,০০০ ডেনার দিয়ে আমার কি হয় ? এ পরিমাণ অর্থ দিয়ে তাদেরকে আমি খাওয়াবো কি ? আর আমি তাদের জন্য কাপড়ই বা কিনবো কি দিয়ে ?  

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .