বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মার্কিনীদের পরামর্শ দিল মিসরিয় পুলিশ এবং একটি চমৎকার হ্যাশট্যাগে টুইটার ব্যবহারকারীদের প্রতিক্রিয়া

মিসৌরির ফার্গুসনে চলমান অস্থিতিশীলতা কি করে নিয়ন্ত্রণ করা যায় সে বিষয়ে মিসরিয় এবং মিসরিয় নন এমন সকল টুইটার ব্যবহারকারী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশকে পরামর্শ দিচ্ছেন।

ফার্গুসনের উপর “নিয়ন্ত্রণ দেখানোর” প্রতি জোর দিতে মিসরিয় সরকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষকে উদ্দেশ্য করে যে বিবৃতি দিয়েছে, তাঁর প্রতিক্রিয়ায়  টুইটারে #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস শিরোনামে একটি ব্যঙ্গাত্মক হ্যাশট্যাগ চালু করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ফার্গুসনে একজন পুলিশ অফিসার নিরস্ত্র একটি কৃষ্ণাঙ্গ ছেলেকে গুলি করে মেরে ফেলার পর সেখানে স্থানীয় পুলিশের সামরিক গ্রেডের দাঙ্গা গ্রেড এবং প্রতিবাদকারীরা গত ১১ দিন ধরে সংঘর্ষে লিপ্ত রয়েছে। ফার্গুসনের পুলিশ বাহিনীতে মুলত শ্বেতাঙ্গদের প্রাধান্য রয়েছে এবং এই প্রতিবাদ মুখর দৃশ্যে তারা শক্তিশালী সশস্ত্র সাংবাদিকের ভূমিকা পালন করছে। তারা প্রতিবাদকারীদের ঠেকাতে কাঁদুনে গ্যাস এবং রাবার বুলেট ব্যবহার করেছে।

টুইটার ব্যবহারকারীদের মতে, মিসর সম্ভবত সর্বশেষ এমন একটি দেশ যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে এমন উপদেশ দিল। খোদ মিসরে চলমান অস্থিতিশীলতা নিয়ন্ত্রণ করার অভিজ্ঞতা থেকেই তারা এমন দূর্গম পথের দিক নির্দেশনা দিয়েছে। মিসরে ২০১১ সালের ২৫ জানুয়ারি থেকে মিসরিয় বিপ্লবের সূচনা হয়েছে। সে সময় থেকে প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে মিসরিয় কর্তৃপক্ষ কিছু নৃশংস আচরণ করে আসছে। সেগুলোই এই হ্যাশট্যাগে তুলে আনা হয়েছে। আধুনিক প্রতিবাদের ইতিহাসে অন্যতম একটি রক্তাক্ত দিনের জন্ম দিয়েছে মিসরিয় কর্তৃপক্ষ। ২০১৩ সালের ১৪ আগস্ট তারিখে রাবাতে হামলায় ৮ শতেরও বেশি সংখ্যক প্রতিবাদকারী নিহত হয়েছিলেন

মেনা গবেষণা এ্যাসোসিয়েশনের সুরক্ষা কমিটিতে কর্মরত সাংবাদিক জেসন স্টার্ন তাঁর অনুসারীদের উদ্দেশ্যে টুইট করেছেনঃ 

#ফার্গুসনের মার্কিন পুলিশের জন্য #মিসরপুলিশেরটিপসগুলো কি কি? 

মিসরিয় পুলিশের নৃশংসতা এবং কৌশল দেখিয়ে তিনি কিছু ভিডিও এবং নিচের টিপসগুলো শেয়ার করেছেনঃ 

৩. যখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে তখন ঠগদের উটে চড়ে বসতে দিন, আপনারা আপনাদের নোংরা কাজ করুন 

৪. সাংবাদিকদের শুধুমাত্র গুলি করার হুমকি দেবেন না। তাদের আসলেই গুলি করে দিন  

১. যদি আপনি একজন মহিলাকে মারার সময় তাঁর পোশাক একটানে ছিঁড়ে ফেলেন, তবে তাকে আবারও মারার আগে তিনি পোশাক পড়ে আছেন কিনা তা নিশ্চিত হোন।  

অন্যান্য টুইটার ব্যবহারকারীরা তাদের নিজস্ব টিপস দিয়েছেন।

@বিফ্রগলড ব্যবহারকারীর ৭৬০ জন টুইটার অনুসারী রয়েছেন। ২০১১ সালে তাহরির স্কয়ারে মিসরিয় সেনাবাহিনী নারী প্রতিবাদকারীদের জোর করে যে কুমারীত্ব পরীক্ষা করেছিল তাঁর উল্লেখ করেছেন।  

নারী প্রতিবাদকারীদের কুমারীত্ব পরীক্ষা করতে গোল করে বসান। এটি ছিল নারী প্রতিবাদকারীদের সাথে প্রেসিডেন্ট সিসি’র সবচেয়ে প্রিয় আচরণ। #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

তারা প্রতিবাদকারীদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়তে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অজুহাত দেখাত। তিনি কর্তৃপক্ষের পাল্টা-সন্ত্রাসী দল ব্যবহারের প্রতিও ইঙ্গিত দিয়ে বলেছেনঃ  

যদি আপনি এ বিষয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন যে প্রতিবাদকারীদের উপর আপনার ঝাঁপিয়ে পড়া ফলাফল হিসেবে জনগণের মাঝে ভয়ার্ত চিৎকারের সৃষ্টি করবে, তবে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ প্রার্থনা করুন। #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

বিলাল জ্রেবেল তাঁর ৫,২০০ জন অনুসারীকে উদ্দেশ্য করে বলেছেনঃ 

সাদা পোশাকের পুলিশরা এক্ষেত্রে দ্বিগুণ কাজের। তারা প্রতিবাদকারীদের হত্যা করতে এবং তাদেরকে সশস্ত্র হওয়া থেকে বিরত রাখতে কাজ করতে পারেন! জিতে যান-জিতে যান #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

রাবায় নৃশংস গণহত্যার ঘটনায় মিসরিয় সরকারী বাহিনী এক বছর আগে ৮ শতেরও বেশি লোককে হত্যা করেছিল। এদের মাঝে কয়েকজনকে আগুনে পুড়িয়ে মারা হয়। সে ঘটনার কথা উল্লেখ করে তিনি লিখেছেনঃ 

তাদেরকে জীবিত অথবা মৃত পুড়িয়ে মারুন। নিঃসন্দেহে আগুনে কোন প্রমাণ অবশিষ্ট থাকে না! #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

২০১১ সালের ডিসেম্বর মাসে এক সেনাবাহিনী বিরোধী প্রতিবাদের সময়ে মিসরীয় সেনাবাহিনীর সদস্যরা কীভাবে “ব্লু ব্রা প্রতিবাদকারীদের” পিটিয়েছিল সে সম্পর্কে উল্লেখ করেছেন ওথমানেশন। তাঁর ১,৫০০ জন অনুসারী আছেন। 

নারীদের পোশাক যখন ছিঁড়বেন, তখন দাবি করেবেন যে আপনাদের ভদ্র সেনা সদস্যদের কলঙ্কিত করতে তারা নিজেরাই তাদের পোশাক ছিঁড়েছেন। #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

আইনজীবী শেরিফ সাদনি তাঁর ৩,৯০২ জন অনুসারীর সাথে তাঁর পরামর্শটি শেয়ার করেছেনঃ 

লোকের ভীড়কে ছত্রভঙ্গ করে দিতে ধীর ও জীবন-রক্ষাকারী কোন পদক্ষেপ নিবেন না। যদি তাই করেন তবে এর মাঝে মজা এবং বাঁধা কোথায় থাকবে? #মার্কিনিদেরজন্যমিসরিয়পুলিশেরটিপস

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .