বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বারাক ওবামার জন্মদিনে মস্কো কার্ড উপহার দিয়েছে। এটা কি বর্ণবিদ্বেষী নয়?

"A banner unveiled across the exterior of the U.S. embassy in Moscow," RuptlyTV, YouTube screen capture.

“মস্কোর মার্কিন দুতাবাসের বাইরে ওবামার ব্যঙ্গচিত্র সম্বলিত একটি ব্যানার প্রদর্শিত হচ্ছে। রাপ্টলি টিভি এবং ইউটিউব থেকে স্ক্রিন প্রিন্টটি নেয়া হয়েছে।

গত ৪ঠা আগস্ট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বারাক ওবামার ৫৩তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। অন্যদিকে মস্কোতে ঘটেছে উল্টো ঘটনা। একদল অজ্ঞাত পরিচয়ধারী যুবক মার্কিন দুতাবাসের দেয়ালে উঠে ওবামাকে নিয়ে ব্যঙ্গ করা একটি ব্যানার ঝুলিয়ে দিয়েছে। ব্যানারে ওবামার ৩টি ব্যঙ্গচিত্রের সাথে লেখা আছে- “আমি কিছুই দেখি না, আমি কিছুই শুনি না, আমি কোনো সত্য বলি না”। দেখে যে কারো মনে পড়বে জাপানি প্রবাদের সেই তিন জ্ঞানী বানরের কথা।

রাশিয়ায় ওবামাকে নিয়ে মজা করা অসংখ্য ছবি রয়েছে। এর বেশিরভাগই হয়েছে কিয়েভের নতুন সরকারকে সমর্থন দেয়ার পর। এসময়ে ওবামা রাশিয়ায় অনেক বেশি অজনপ্রিয় হয়ে পড়েন। গ্লোবাল ভয়েসেস-এর রুনেট ইকো সম্পাদক প্রথম আফ্রিকান-আমেরিকান মার্কিন প্রেসিডেন্টকে নিয়ে করা ব্যানারটিকে বর্ণবাদী আক্রমণ হিসেবে উল্লেখ করলে আলোচনা ভিন্ন খাতে চলে যায়। যদিও রাশিয়ান টুইটার ব্যবহারকারীরা ওবামাকে বানবের সাথে তুলনা করা নিয়ে মোটেও বিস্মিত নন। রাশিয়ার সংসদ ডুমার ডেপুটি ইরিনা রোডনিনা ওবামার ছবি রিটুইট করে লিখেছেন, ওবামা ক্ষুধার্তের মতো কলা'র দিকে তাকিয়ে আছেন।

রুনেট ইকো সম্পাদকের বর্ণবাদী আক্রমণ হিসেবে উল্লেখ করা টুইট আরো অনেক টুইটার ব্যবহারকারী রি-টুইট করেন। এদের মধ্যে রয়েছেন গার্ডিয়ানের শন ওয়ালকার, কার্নেগি এনডাউমেন্টের অ্যান্ড্রু উইজ-সহ এস্তোনিয়ার প্রেসিডেন্ট থমাস এলভিসও। তাছাড়া রাশিয়া থেকে লেখালেখি করেন এমন আরো অনেকে বিষয়টি বর্ণবাদী হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তারা যুক্তি দিয়েছেন, তিন জ্ঞানী বানরের বিষয়টিকে রাজনীতিতে ব্যঙ্গ করতেই ব্যবহার করা হয়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .