বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

“ইন্টারনেট বিশ্বকাপ” শুরুর আগেই ব্রাজিলের পয়েন্ট অর্জনঃ সিনেটে মার্কো সিভিল বিল অনুমোদন

ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত বৈশ্বিক ইন্টারনেট শাসন বিষয়ক বিভিন্ন অনুষ্ঠান শুরুর প্রাক্কালে ব্রাজিলের সিনেট নেটমুনডায়াল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য অধিকার সংক্রান্ত একটি বিল পাস করেছে। বিলটি “মার্কো সিভিল” নামে পরিচিত। প্রেসিডেন্ট ডিলমা রুসেফের হাতে এখন বিলটি চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। সিনেটে প্রকাশিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি [পিটি] অনুযায়ী, কোন রকম সংশোধনী ছাড়াই বিলটি দ্রুত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। “নেটমুনডিয়ালের সময়ে বিলটিকে আইন হিসেবে বিবেচনা করা হবে” এমন উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে তড়িঘড়ি করে বিলটি পাস করা হয়েছে। সাও পাওলোতে আজ থেকে অর্থাৎ ২৩ এপ্রিল, ২০১৪ তারিখ থেকে আইনটি চালু হয়েছে। 

গ্লোবাল ভয়েসেস এ্যাডভোকেসির সম্পাদক এলারি বিদ্দেল গত ২৫ মার্চ তারিখে আইনসভার নিম্ন কক্ষ কংগ্রেসে বিলটি অনুমোদনের পর লিখেছেন, “সাম্প্রতিক ইন্টারনেট নীতি পরিবেশের ওপর মার্কো সিভিল বিলটি একটি বৈপ্লবিক প্রভাব ফেলতে পারে”। ইন্টারনেট নীতির সংজ্ঞা প্রদানের অগ্রদূত হিসেবে নেতৃত্ব দিতে গিয়ে ব্রাজিল একটি সংকটময় মুহূর্তের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ব্যবসা ক্ষেত্র অথবা সরকার বিরোধী হলেও, জনস্বার্থে পরিচালিত এই বিলটি তৈরি করতে এবং পর্যালোচনা করতে যে অংশগ্রহণ মূলক প্রক্রিয়া অবলম্বন করা হয়েছে, তাতে বৈশ্বিক বিবিধ স্বার্থের অংশীদারদের সভাতে বাড়তি আকর্ষণ যোগ হবে। ইন্টারনেট শাসনের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনার জন্য এই সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সভাটিতে সারা বিশ্ব থেকে আসা সরকারি প্রতিনিধিগণ, নীতি নির্ধারকগণ এবং বিভিন্ন নাগরিক সমাজ এক সাথে বসবেন। সভাটি ২৩-২৪ এপ্রিল তারিখে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।  

ভেনেজুয়েলান আইনজীবি এবং লেখক মারিয়ানে ডায়াজ (@মারিয়ানেধ) এ্যাডভক্স ডট ওআরজি’র জন্য তাঁর লেখা একটি কলামে তিনি নেটমুনডিয়ালকে “ইন্টারনেট বিশ্বকাপ” হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। এই ঘটনা সম্পর্কে খবর সংগ্রহ করার জন্য এখন তিনি সাও পাওলোতে অবস্থান করছেন। খেলাটি মাত্র শুরু হয়েছে।

নেটমুনডিয়াল ২৩ টি দেশে ৩৩ টি প্রত্যন্ত অংশগ্রহণ হাবের উপর নির্ভর করছে। নেটমুনডিয়াল ডট বিআর ওয়েবসাইট থেকে এটি সরাসরি বিরতিহীনভাবে সম্প্রচার করা হবে।

টুইটারে @নেটমুনডিয়াল২০১৪ এবং এ সম্পর্কে হালনাগাদ খবর জানতে #নেটমুনডিয়াল২০১৪ হ্যাশট্যাগটি অনুসরণ করুন।  

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .