বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

রুশ মালিকানাধীন লাইভজার্নালে ইউক্রেন প্রসঙ্গে মতবিভেদ

LiveJournal mascot Frank the Goat is somehow ... different.

লাইভজার্নাল মাসকট ফ্রাঙ্ক দ্যা গট একরকম … ভিন্নধর্মী

রুনেটের অন্যতম জনপ্রিয় একজন ব্লগার ইগর বিগদান (ইবিগদান [রুশ]) গতকাল ঘোষণা করেছেন [রুশ], লাইভজার্নাল ইউক্রেনের পরিচালকের পদ থেকে আগামী এপ্রিল মাসে তিনি পদত্যাগ করবেন। তিনি আরও বলেছেন, ক্রিমিয়া সংকটের সময়ে রুশ পররাষ্ট্র বিষয়ক নীতির নেতিবাচক খবর প্রকাশের কারনে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন। 

বিগদান মূলত একজন বিনোদন বিষয়ক ব্লগার। তিনি খোলাখুলি ভাবে স্বীকার [রুশ] করেছেন যে তার লেখার শতকরা ৯০ ভাগই তিনি অন্যান্য অনলাইন প্রকাশনা থেকে “কপি-পেস্ট” করে থাকেন। তিনি সাম্প্রতি রাশিয়ার সাথে ক্রিমিয়ার সংযোজনের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। স্পষ্টত এ বিষয়টিই কর্পোরেট ব্যবস্থাপনা এবং তার মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি করেছে। তিনি লিখেছেন [রুশ]: 

И меня и руководство холдинга очень напрягает ситуация “сотрудник российской компании постоянно критикует Россию за аннексию Крыма”. Нет, речь не о цензуре – мне, как топ-блоггеру, никогда не указывали, о чём писать можно, а о чём нельзя. Однако я не только блоггер, но ещё и сотрудник большого российского холдинга […] неосторожные публичные заявления его сотрудников могут нанести холдингу вред. […] я не могу заниматься самоцензурой или самоустраниться от политических тем в своём блоге. Поэтому я предпочитаю остаться свободным блоггером.

এই পরিস্থিতিতে আমি এবং আমার কর্মরত কোম্পানির ব্যবস্থাপনা কমিটি, উভয়ই বেশ বিরক্ত বোধ করছি। এ পরিস্থিতিতে “একটি রুশ প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মী ক্রিমিয়া সংযুক্তির কারণে রাশিয়ার সমালোচনা করে যাচ্ছেন।” না, সেন্সরশিপ নিয়ে কিছু বলা হচ্ছে না – একজন শীর্ষস্থানীয় ব্লগার হিসেবে আমাকে কখনও বলা হয়নি, আমি কোন বিষয়ে লিখতে পারব এবং কোন বিষয়ে লিখতে পারব না। কিন্তু আমি শুধুমাত্র একজন ব্লগার নই, আমি রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণাধীন একটি বৃহৎ কোম্পানির […] একজন কর্মীও বটে। কর্মীদের যেকোন বেপরোয়া প্রকাশ্য উক্তি কোম্পানিটির ক্ষতির কারণ হতে পারে। […] আমি আমার ব্লগে নিজেকে সেন্সর করতে বা রাজনৈতিক ইস্যু নিয়ে লেখালেখি বন্ধ করতে পারব না। এসব কারণে, আমি একজন স্বাধীন ব্লগার হিসেবে পরিচয় দিতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছি।

বিগদান মূলত ইউক্রেনের নাগরিক হলেও রুশ ভাষায় ব্লগ লেখেন। রাশিয়ান মালিকানাধীন এসইউপি মিডিয়া (সম্প্রতি র‍্যাম্বলার-আফিশা-এসইউপি নামধারী) একটি বেসরকারী কোম্পানি। রাশিয়া ২০০৭ সালে এটি সিক্স এ্যাপার্ট ইঙ্ক এর কাছ থেকে কিনে নেয়। তখন থেকে এটি লাইভজার্নালকে নিয়ন্ত্রণ করছে। যদিও বিগদান ভালোভাবে বোঝানোর জন্য তাঁর যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন এবং বলেছেন, সেন্সরশিপের জন্য তিনি চাকরি ছাড়ছেন না। তথাপি তাঁর বক্তব্য থেকে এটাই স্পষ্ট যে নিজের লেখালেখি সেন্সর করার জন্য তাকে উপর মহল থেকে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে। যার ফলে ব্লগ লেখা তাঁর জন্য বেশ অস্বস্তিকর হয়ে পড়ে। এ ধরনের সম্পাদকীয় চাপের ভয়ে গত মাসে লেনটা ডট আরইউ’এর সমস্ত সম্পাদকীয় কর্মকর্তা কর্মচারী একযোগে চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন। বিশেষ করে, প্রতিষ্ঠানটির মালিকই যখন তাদের প্রধান সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন, তখনই তারা এই সিদ্ধান্ত নেন। কাকতালীয়ভাবে লেনটা ডট আরইউ এবং লাইভজার্নালের মালিক একই ব্যাক্তি – আর তিনি হচ্ছেন রাশিয়ার গোষ্ঠীশাসক আলেকজান্ডার মামুত।

বিগদান বলেছেন, লাইভজার্নাল ইউক্রেনের পরিচালক পদে তাঁর জায়গায় সম্ভবত অন্য কেউ আসবে না। ২০১২ সাল থেকে তিনি এই পদে কাজ করেছেন। পদটিতে থাকাকালীন তাঁর মূল দায়িত্ব ছিল, “প্রতিষ্ঠানটির সেবার মান উন্নত করা, ব্লগারদের জনপ্রিয়তা বাড়ানো, স্থানীয় বিশেষজ্ঞের প্রতিবেদন বাড়ানো এবং সামগ্রিকভাবে ইউক্রেনের এই অংশটির বানিজ্যিক খাত বাড়ানো।”  

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .