বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ক্ষুদ্র তরঙ্গের মাধ্যমে পরীক্ষামূলক ডিজিটাল সম্প্রচার চালু করল ভয়েস অব আমেরিকা

এ মাসে ভিওএ রেডিওগ্রাম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। ভয়েস অব আমেরিকার এই নতুন এবং পরীক্ষামূলক প্রকল্পটি ডিজিটাল বার্তা এবং ছবি পাঠাতে “পুরানো পদ্ধতি” এএম ক্ষুদ্রতরঙ্গ সম্প্রচার প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। 

অপেশাদার রেডিও অপারেটরদের একটি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে লিখিত বার্তা পাঠাতে রেডিওগ্রাম অন্যতম একটি উপায়। এটিকে চালাতে একটি নির্দিষ্ট ভাগে ভাগ করা সময়ে (একটি ট্রাফিক নেট) একই এএম ফ্রিকোয়েন্সিতে বেশ কয়েকজন রেডিও অপারেটরের একটি সংগঠিত কার্যক্রমের প্রয়োজন হয়। এটি একটি দলকে তাদের ইচ্ছেমত একটি  নির্দিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে সুযোগ দেয়। কিংবা রাস্তার ট্রাফিক, আবহাওয়া অথবা জরুরী পরিস্থিতি সম্পর্কে তথ্য উপাত্ত প্রচার করতে এটি সাহায্য করে থাকে।

ভিওএ রেডিওগ্রাম এই ফ্রিকোয়েন্সি জুড়ে ডিজিটাল বার্তা পাঠানোর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। এই সম্প্রচার কার্যক্রমটি উত্তর ক্যারোলিনা (ইউএসএ) থেকে শুরু করা হলেও বার্তাগুলো যত দূর সম্ভব অস্ট্রেলিয়া গিয়ে পৌঁছেছে।   

Image of text transmitted from Radio Miami and decoded in Melbourne, Australia (courtesy of VOA Radiogram's tumblr)

রেডিও মিয়ামি থেকে প্রেরিত বার্তা এবং অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে ডিকোড করা বার্তার ছবি (ভিওয়া রেডিওগ্রাম এর সহযোগিতায়) 

পাঠানো বার্তাটিকে ডিকোড করতে উল্লেখিত সফটওয়্যার প্যাকেজগুলোর (যেমন এফএলডিজি, এফএলমেসেজ, অথবা এফএলএ্যাম্প, যা ডব্লিউ১এইচকেজে থেকে সচরাচর পাওয়া যাবে) মধ্যে কোন একটি ব্যবহার করার দরকার হবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সম্প্রচার ব্যুরোর দর্শক শ্রোতা বিষয়ক গবেষক কিম এ্যান্ড্রু ইলিয়ট এই ভিওএ রেডিওগ্রামের পেছনে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন। তিনি তাঁর ব্লগে ভিন্নমত পোষণ করে বলেছেন, এই প্রযুক্তিটি বার্তা প্রেরণের (এবং এটিতে বিনামূল্যে বার্তা গ্রহণ করা যায়) জন্য শুধু যে সহজ সরল এবং সাশ্রয়ী তা নয়, বরং ইন্টারনেট না থাকা অবস্থায় কোন বিশেষ মুহূর্তে এটি বেশ উপকারী হয়ে উঠতে পারে। যেমন দেশে জরুরী অবস্থা বিরাজ করলে বা দমনমূলক শাসন ব্যবস্থা কায়েম করা হলে, এটি বেশ ব্যবহার উপযোগী হয়ে উঠতে পারে। 

পরবর্তী ভিওএ রেডিওগ্রাম সম্প্রচার আগামী সপ্তাহান্তে (৩০ এবং ৩১ মার্চ, ২০১৩ তারিখে) শুরু করা হবে। বিভিন্ন রিপোর্ট, অডিও স্যাম্পল এবং এই গবেষণার প্রযুক্তিগত সাফল্য মূল্যায়ন করতে যারা অংশগ্রহণ করেছে, তাদের সবার কাছ থেকে বিভিন্ন স্ক্রিনশট প্রার্থনা করা হয়েছে।

ক্ষুদ্রতরঙ্গের রেডিও সম্পর্কে আরও তথ্য উপাত্ত পেতে এসডব্লিউলিং ওয়েবসাইটটি একটি অনলাইন ডাটাবেইস তৈরি করেছে। এখানে ক্ষুদ্র তরঙ্গের রেডিও ব্যবহার সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত পাওয়া যাবে। তাঁর সাথে সাথে একটি ব্লগও তৈরি করা হয়েছে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে কীভাবে ডিজিটাল বার্তা প্রচার করা যাবে তা এই ব্লগটিতে আলোচনা করা হবে।

ভিওএ রেডিওগ্রাম এখন টুইটারেও পাওয়া যাচ্ছে। 

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .