বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জিভি অভিব্যক্তিঃ গ্যাংনাম স্টাইলের পেছনে – নিষেধাজ্ঞা এবং কোরিয়ান পপ গান

এটিকে দক্ষিণ কোরিয়ার “সর্বশ্রেষ্ঠ রপ্তানি” বলা হয়ে থাকে। সাই এর কে-পপ [কোরিয়ান-পপ] গান গ্যাংনাম স্টাইল ইউটিউবের সর্বাধিক দেখা ভিডিও।

কিন্তু চাকচিক্যময় রূপ এবং বড় সাফল্যের পিছনেও অনেক কথা থাকে। দক্ষিণ কোরিয়ার সেন্সর যতক্ষণ না তাদের কাজ করছেন, ততক্ষণ এটি সব ক্ষেত্রে মজার এবং রোমান্সপূর্ণ হয়ে ওঠে না।  

আমাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সোলানা লারসেন আমাদের কোরিয়ান ভাষা সম্পাদক ইয়ো ঊন লি এর সাথে বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তা পাওয়া কে-পপ সঙ্গীতের ব্যাপারে কথা বলেছেন।

এছাড়াও ইয়ো ঊন কে-পপ সঙ্কেত মোচক [ডিকোডার] ওয়েবসাইটের স্রষ্টা।

আমরা তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, কে-পপ সঙ্গীতকে কোন বিশেষ বিষয়টি এতো জনপ্রিয় করে তুলছে বলে তিনি মনে করেন? দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্কৃতি, ফ্যাশন ও সঙ্গীতের উপর কে-পপের প্রভাব কি রকম? এবং সামাজিক মিডিয়া এবং ইউটিউব ছাড়া কে-পপ এর বিশ্বব্যাপী সাফল্য সম্ভব হত কি ? 

নীচে নির্দ্বিধায় আরও প্রশ্ন করুন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .