বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সন্দেহ প্রবনতার শিকার নতুন লেবানিজ সরকার

লেবানিজ রাজনীতিবিদেরা যখন তাদের নুতন সরকার গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন, লেবাননের নেটিজেনরা তখন উদাসীনতা, ঠাট্টা-বিদ্রুপ এবং এ বিষয়ে নানা সন্দেহ প্রকাশ করে তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। 

প্রিয় নাগরিকগণঃ লেবাননের নব গঠিত সরকারের পক্ষ থেকে শুভকামনা” শিরোনামে এনওডব্লিউএর লেবানিজ ব্লগার এন্থনি এলগোসাইন একটি বিদ্রূপাত্মক লেখা পোস্ট করেছেন। এই লেখাটিতে তিনি রাজনীতিবিদদের পক্ষ থেকে একটি কাল্পনিক চিঠি লিখেছেন।

আরও একবার এই পর্যায়ে এসে আমরা কোন বিবেকবান সম্প্রদায়কে স্বীকৃতি দিতে, প্রচার চালাতে বা রক্ষা করতে প্রস্তুত নইঃ আপনার কি অন্যান্য নাগরিকদের শব্দ চয়ন, আরও সামাজিকতা, অর্থনৈতিক স্বাচ্ছন্দ্য অথবা রাজনৈতিক প্রত্যয় চিহ্নিত করতে সাহায্য করা উচিৎ? আমরা আপনাকে দেশান্তর, মোহমুক্তি, উদাসীনতা বা আমূল সংস্কারকামী মতবাদ পরীক্ষা করে দেখতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। 

স্লোটারহাউস ফ্রন্টম্যান রাবিহ সালউম এমন একটি প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেছেন যা হয়তোবা সবার মনেই ছিলঃ

Screenshot from Facebook

ফেসবুক থেকে নেওয়া স্ক্রিনশট 

নতুন সরকারের কোন নতুন নাম অথবা তাঁরা কি এইমাত্র ক্ষমতায় বসেছে ? 

গিনো’স ব্লগ থেকে গিনো রাইদি তাঁর আবেগ শেয়ার করেছেনঃ  

ভুল জায়গায় অপদার্থ মানুষে পূর্ণ কি ভয়ঙ্কর একটি মন্ত্রিসভা …

যেন সবকিছু আরও খারাপ করতে, এটি পরে ফাঁস হয়ে গেছে যে নুতন গঠিত মন্ত্রীসভার বিনয়বিধির ছবি ফটোশপের সাহায্যে তৈরি করা হয়েছেঃ 

Picture from Facebook

ফেসবুক থেকে নেওয়া ছবি 

নব গঠিত লেবানিজ মন্ত্রীসভার বিনয়বিধির ছবি ফটোশপের সাহায্যে তৈরি করা হয়েছে। 

ফটোশপের সাহায্যে ছবি তৈরির ঘটনাটি নিজেই একটি বিতর্কিত বিষয় ছিল। অনেকেই উপলব্ধি করতে পেরেছেন যে এটি সত্যিই দেখিয়েছে একটি নুতন সরকার কতোটা সামান্য পরিবর্তন আনতে পারে। কার্লরিমার্কসের ব্লগার কার্ল শারো আল আরাবিয়াকে দেয়া একটি সাক্ষাৎকারে ব্যাখ্যা করেছেনঃ  

“ফটোশপ দিয়ে মন্ত্রীদের ছবিতে ঢুকানোর বিষয়টি একটি রুপক। কোন নির্দিষ্ট রাজনৈতিক কার্যক্রম বা ম্যান্ডেট না থাকা একটি মন্ত্রীসভা কীভাবে গঠিত হয় তা এই ঘটনার মাধ্যমে রূপায়িত হয়েছে। মন্ত্রীসভাটি শুধুমাত্র নিম্নতম সাধারণ বিভাজক হিসেবে নিজেদের এমন ভাবে উপস্থাপন করেছে, যা কেবলমাত্র কৃত্রিম ভাবে রোগ নিরাময়ের জন্য নয়, শুধু রোগীকে সান্ত্বনা দেয়ার জন্য ঔষধের নামে অন্য কিছু রাজনৈতিক উপায়ে একত্রিত করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।” 

এই ঘটনার সাথে সাথে আরও একটি সত্য সামনে এসেছে, নতুন টেলিকম মন্ত্রী বুট্রস হার্বকে দেখে মনে হয়না যে তিনি টুইটার ব্যবহার করতে জানেনঃ  

আমরা @নিকোলাসেনাউই কে মন্ত্রী হিসেবে মিস করছি। 

আই অন দ্যা ইস্ট এর ব্লগার মারিনা সাম্মা, “লেবাননের নুতন মন্ত্রীসভাকে একটি উষ্ণ অভ্যর্থনা” শিরোনামে একটি লেখা পোস্ট করেছেন। পরিস্থিতি শান্ত করতে চেষ্টা করে এবং নুতন সরকার যা উপস্থাপন করছে তা  যথার্থভাবে বিশ্লেষণ করতে লেখাটিতে দৃষ্টি দিন। 

যখন জাতিস্বার্থ সামনে এসে দাঁড়ায় তখন লেবানিজদের রাজনীতিবিদদের এই সংশয় হতে স্বার্থ হাসিল করতে দেয়া উচিৎ নয়। কেননা খুব কম সংখ্যক রাজনীতিবিদই এই আচরণের যোগ্য। তারপরেও জনগণ কমপক্ষে তাদের কথা শুনতে পারে। দেশের জনগনের মেজাজের একটি প্রতিক্রিয়া হিসেবে কিছুটা আশাবাদী এবং চরমভাবে বিদ্রূপাত্মক আশাহতদের মাঝে ব্যাপক আন্দোলন সৃষ্টি করেছে। নবাগতদের জন্য এখানে কিছু স্বাগতম প্রশ্ন এবং স্ব-প্রমানিত সত্য উপস্থাপন করা হল। এটা এমন একটি বিষয় যা জনগনের কাছে তাদের বক্তব্যের সারসংক্ষেপ বিধৃত করেছে। এটি কোন নির্দিষ্ট নিয়ম অনুসরণ করে করা হয়নিঃ 

এই পোস্টটির বাকি অংশ পড়তে উপরে প্রদত্ত লিংকটিতে ক্লিক করুন। 

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .