বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বাংলাদেশের নির্বাচন পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে ভুল সংবাদ প্রকাশ করায় নিউইয়র্ক টাইমসের ভুল স্বীকার

১১ই জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে নিউইয়র্ক টাইমসের অনলাইন এডিশনে ও ১২ই জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে নিউইয়র্ক টাইমসের নিউইয়র্ক এডিশনের প্রিন্টে পেপারে বাংলাদেশের নির্বাচন পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়

এই প্রতিবেদনের একটি অংশে একটি ছবি প্রকাশ করা হয় যার ক্যাপশনে লেখা হয় “বিরোধী দল বিএনপির ডাকা হরতালে বুধবার ঢাকায় বিক্ষোভ করছেন বাংলাদেশিরা”। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে সেটি ছিল শাহবাগের আন্দোলনকারীদের একটি ছবি যেখানে তারা বিরোধী দল বিএনপি'র সহিংসতার প্রতিবাদ জানাচ্ছিলেন এবং যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছিলেন।

এলেন ব্যারি'র এই প্রতিবেদন ও এসোসিয়েটেড প্রেসের বাংলাদেশী ফটো সাংবাদিক এ. এম. আহাদের এই ছবিটি নিয়ে বাংলাদেশের ভেতরে বিভিন্ন সমালোচনা উঠে।

এ বিষয়ে উমর শিহাব “Not an accident by the New York Times” শিরোনামে একটি পোস্ট প্রকাশ করেন যেখানে জানান যে এপি'র ফটোসাংবাদিক এ. এম. আহাদ কিন্তু একই কাজ গত ফেব্রুয়ারীর ৬ তারিখে শাহবাগ আন্দোলনের প্রথম দিন ও করেছিলেন। সিপিবি ও শাহবাগ গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীদের পক্ষ থেকে নিউইয়র্ক টাইমসের ভুলটি শুধরে নেওয়ার অনুরোধ করা হলে পরবর্তীতে ১৩ই জানুয়ারি নিউইয়র্ক টাইমস তাদের প্রতিবেদনটি থেকে ক্যাপশন সহ ছবিটি মুছে ফেলে একটি সংশোধনী প্রকাশ করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .