বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ফেসবুকে “ডিজিটাল মাস্তানি”র শিকার হলেন ফুটবল তারকা মেসি

Leo Messi's Facebook page

আর্জেন্টিনার ফুটবল তারকা লিও মেসি'র ফেসবুক পেজ।

এবার “ডিজিটাল মাস্তানি”র শিকার হলেন আর্জেন্টাইন ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। ইরানের হাজারখানেক মানুষ মেসি'র ফেসবুক পেজে গিয়ে তাকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ ও অপমানজনক পোস্ট করেন। গত শনিবার বিশ্বকাপ ফুটবলের গ্রুপ নির্ধারণী ড্রয়ের পর এই আক্রমণের ঘটনা ঘটে। বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনা, ইরান, নাইজেরিয়া এবং বসনিয়া-হার্জেগোভিনা একই গ্রুপে পড়েছে।

মেসির পেজে গিয়ে যেসব মন্তব্য করা হয়েছে, তার বেশিরভাগই ছিল আপত্তিকর

ইরানের অনেক নাগরিক মেসির প্রতি এই সাইবার আক্রমণকে লজ্জাকর বলে অভিহিত করেছেন।

কারগান টুইট করেছেন:

ইরানের সম্মান বাঁচাতে জুকারবার্গ [ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা] এবং ইরানি সরকারকে হাতে হাত মিলিয়ে ফেসবুক থেকে এইসব আপত্তিকর মন্তব্য মুছে ফেলতে হবে।

সুসকাক টুইট করেছেন:

এটা ভালো যে ইরানে ফেসবুক ফিল্টার করা হয়।

বারডিয়া টুইট করেছেন:

আজ যদি ইসলামী প্রজাতন্ত্রের পতন ঘটে, এই লোকগুলোকে সাংস্কৃতিকভাবে অগ্রসর করে তুলতে ১৫-২০ বছর লেগে যাবে।

ব্লগার ৫চার একটি আপত্তিকর মন্তব্যের স্ক্রিনশট প্রকাশ করে বলেছেন, এই প্রজন্ম ইসলামী প্রজাতন্ত্রে বেড়ে উঠেছে।

আরেকজন ব্লগার আন্দারবাব বলেছেন:

এ ধরনের স্লোগান এবং আপত্তিকর মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে তারা তাদের অযোগ্যই প্রমাণ করলো। এরা হলেন সেই মানুষ, যারা আমেরিকাকে ধুলায় মিশিয়ে দেয়ার জন্য চিত্কার করে। আবার আমেরিকার গ্রিন কার্ড পাওয়ার জন্যও মুখিয়ে থাকে। তারা এখন মেসিকে অপমান করছে। কালকেই দেখা যাবে, মেসির হাত থেকে সুভেনিয়'র ফ্যান ফটো নেয়ার লাইনে দাঁড়িয়ে আছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .