বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরানের পারমানবিক চুক্তিকারী জাভেদ জারিফের ফেসবুকে হাজারো মানুষের প্রশংসা বাণী

Javad Zarif's Facebook profile

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফের ফেসবুক প্রোফাইলের স্ক্রিনশট

পারমাণবিক চুক্তিতে মধ্যস্ততা করার কারনে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জাভেদ জারিফের ফেসবুক পাতায় আজ হাজারো ইরানী তাঁদের প্রশংসাসূচক মন্তব্য ঢেলে দিয়েছেন।

ইরানের পারমাণবিক কর্মসুচির বিষয়ে গত দশ বছর ধরে চলা আলাপ- আলোচনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে রবিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৩ তারিখে ইরান ও বিশ্ব শক্তির মধ্যে সম্পাদিত অস্থায়ী চুক্তির মধ্য দিয়ে আলোর মুখ দেখেছে। ছয় মাসের এ চুক্তি ইরানের পারমাণবিক বোমা তৈরির সক্ষমতাকে এক দিকে যেমন মন্থর করবে অন্যদিকে তেমনি ইরানের উপর আরোপিত অর্থনৈতিক অবরোধ শিথিল হবে।

Representatives of Iran and 5+1 after striking a deal. on Sunday, November 24, 2013. Source: Irna

ইরান ও বিশ্ব শক্তির মধ্যে সম্পাদিত অস্থায়ী চুক্তি। ইরনার সৌজন্যে।

ওয়াশিংটন ও ইরান উভয়পক্ষই চুক্তির প্রশংসা করেছে কিন্তু এর অল্পক্ষণ পরেই চুক্তির বিষয় নিয়ে মতপার্থক্য পরিলক্ষিত হয়েছে। মার্কিন সেক্রেটারি অব স্টেট জন কেরি বলেছেন যে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতে পারবে এমন কোন কথা চুক্তিতে বলা হয় নি, অপরদিকে এ চুক্তির মাধ্যমে ইউরোনিয়াম সমৃদ্ধকরণসহ “ইরানের পারমাণবিক অধিকার”-কে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে বলে ইরানের রাষ্ট্রপতি হাসান রুহানী দাবি করেছেন।

চুক্তির বিষয়ে অনলাইনে প্রদত্ত মন্তব্যগুলো একেকটা একেক রকম। প্রতিক্রিয়ায় অনেক ইরানীয় তাদের রসবোধের পরিচয় দিয়েছেন।

চুক্তির প্রশংসাকারীদের একজন সোলমাজ নায়ীমজে পররাষ্ট্র মন্ত্রীর ফেসবুকে লিখেন [ফার্সী]: “ আপনি বলেছিলেন আমরা একসঙ্গে জয়ী হব অথবা পরাজিত হব। আমরা একসঙ্গে জয়ী হয়েছি।“ সাফিয়ে নৌরা বলেন [ফার্সী]: “ খোরমাশার [ইরাক- ইরান যুদ্ধে অধিকৃত শহর, পরবর্তীতে ইরান কর্তৃক মুক্ত] স্বাধীনতার চাইতে এই সংবাদের [পারমাণবিক চুক্তি] গুরুত্ব কোন অংশেই কম নয়।“

পার্সিয়ান বানু মনে করেন যে ইসলামী প্রজাতন্ত্রের শত্রুরা এখন আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠবে। তিনি টুইট করেনঃ

# জেনেভা চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার পর আমি নিশ্চিত যে @নেতানিয়াহু এবং এম এ কে-এর কাল্ট নেতা মারিয়াম রাজাভি একজন আরেকজনের কাঁধে মাথা রেখে কাঁদছেন।

বেহজাদ পার্সা বিদ্রুপ করে টুইট করেন[ফার্সী]ঃ

মাত্র ৫% সমৃদ্ধ ইউরোনিয়াম দিয়ে পারমাণবিক বোমা বানানো তো দূরের কথা আমরা একটা সিগারেটও জ্বালাতে পারবো না।

পারমাণবিক চুক্তি জনগণের জীবনমান উন্নয়ন করতে পারবে কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে সালেহ টুইট করেন [ ফার্সী]:

ইরানীয়দের জন্য এ চুক্তিতে কি সুবিধা আছে? [মনে রাখবেন] অবরোধের আগে অর্থনৈতিক অবস্থা কেমন ছিল।

 ব্লগার শাহিনশার পলিটিক সন্দেহ নিয়ে বলেন [ ফার্সী]:

ইরানীয় জনগণের সাথে চুক্তি ভঙ্গের বিষয়ে আপনারা [ইরানীয় প্রজাতন্ত্র] কি করবেন…জনগণ কি শাসনামলের অপরাধ এবং তাদের দাবিগুলো ভুলে যাবে? 

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .