বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সৌদিদের মঙ্গল গ্রহে যাওয়া নিষেধ

Mars is off-limits to Saudis, says religious scholar Shaikh Ali Al Hekmi. Photo credit: NASA's Marshall Space Flight Center (CC BY-NC-ND 2.0)

সৌদি ধর্মীয় গুরু শেখ আলী আল হেকমি বলেছেন, সৌদিদের মঙ্গল গ্রহে যাওয়া নিষেধ। ছবি কৃতজ্ঞতা: নাসা'র মার্শাল স্পেস ফ্লাইট সেন্টার (সিসি বিওয়াই-এনসি-এনডি ২.০)।

আপনি কি জানেন মঙ্গল গ্রহে যাওয়া হারাম এবং পাপ? সৌদি ধর্মীয় গুরু শেখ আলী আল হেকমি তেমনটাই বলেছেন। সম্প্রতি আল হায়াত পত্রিকার সাথে এক সাক্ষাত্কারে তিনি বলেছেন, মানুষের লাল গ্রহে যাওয়া নিষেধ। এতে মানব জীবনের অপচয় হবে।

মার্স ওয়ান ফাউন্ডেশন নামের একটি সংগঠন মঙ্গল গ্রহে স্থায়ী বসতি স্থাপনের পরিকল্পনা করেছে। তাদের এই পরিকল্পনার কথা প্রকাশ হওয়ার পরেই সৌদি ধর্মগুরু এই ফতোয়া দেন। আল হায়াত পত্রিকা জানিয়েছে, সেখানে স্থায়ীভাবে যাওয়ার জন্য ৪৭৭ জন সৌদি নাগরিক আবেদন করেছিলেন। এদের মধ্যে ৬ জনের আবেদন মঞ্জুর হয়েছে।

এরকম হাস্যকর ফতোয়া দেয়ায় সৌদি আরবের অনেক টুইটার ব্যবহারকারী বিষয়টি নিয়ে মজা করেছেন। মজা করতে তারা এই আরবি হ্যাশট্যাগ #الاشتراك_في_رحلة_المريخ_حرام ব্যবহার করেন। যার মানে হচ্ছে, মঙ্গলে যাওয়া হারাম।

@এমথাইল মজা করেছেন:

কখন? কোথায়? কেন আমাকে জানালে না কেন? মঙ্গলে যাওয়ার জন্য কীভাবে নিবন্ধন করবো আমি?

আরো অনেকেই বিষয়টি নিয়ে মজা করেছেন:

আমি আশা করবো, নীতিধর্ম প্রচার করতে তারা মঙ্গলে অফিস নিবে এবং পুলিশ নিয়োগ দিবে। যাই হোক আমরা বিষয়ে ফিরে আসি। ভিনগ্রহবাসীদের সাথে সাক্ষাৎকারের ধর্মীয় আইন কোথায় আছে?

বর্তমানে সৌদি আরবে নারীদের গাড়ি চালানো নিয়ে প্রচার-প্রচারণা তুঙ্গে রয়েছে। তাই মিস ডোসে সন্দেহ পোষণ করেছেন, সৌদিদের মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে দিতেই এই ফতোয়া দেয়া হয়েছে। তিনি টুইট করেছেন:

আলোচনার বিষয় পরিবর্তনের চেষ্টা করবেন না। আমরা এখনো নারীদের গাড়ি চালানো ইস্যু নিয়েই আছি।

ব্লগার খালেদ আবদুলরহমান বলেছেন, মঙ্গলে যাওয়ার চেয়ে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের রাস্তায় গাড়ি চালানো অনেক বেশি বিপদজনক।

অ্যাডভেঞ্চারের জন্য রিয়াদের রাস্তা বেশি বিপদজনক! সৌদি আরবের সর্বোচ্চ ধর্মীয় কাউন্সিলের সদস্য আলী আল হেকমি বলেছেন, মঙ্গল গ্রহ সফরে অংশ নেয়া ইসলামে হারাম। কারণ এটা এমনই এক মিশন যেখানে অংশগ্রহণকারীদের মৃত্যুর শেষে চলে গেছে বলে ধরে নেয়া হবে।

ড. মোহাম্মদ বিল আবদুলআজিজ যোগ করেছেন:

আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে। এটা এখন দমনকারী ধর্মীয় গুরু দিয়ে ভর্তি। মঙ্গল গ্রহ আল্লাহ'র পবিত্র ভুমির একটি অংশ। আমি আশা করবো, তারা টাকা-পয়সা চুরিকে নিষিদ্ধ করবে।

আরেক প্রশ্ন করেছেন:

আপনি ধর্মীয় গোঁড়ামির আড়ালে বহুবিবাহ করছেন, নারীদের নির্যাতন করছেন, তা কী গ্রহণযোগ্য হতে পারে?

ওই ধর্মগুরুকে উদ্দেশ্য করে মুতেব আল আমারি বলেছেন:

কেউই আপনার কাছে মতামত চায়নি! ধন্যবাদ।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .