বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কেন সৌদি আরবের ছেলেরা হাতে নেল পালিশ লাগাচ্ছে?

Out with beautiful dad! Shared by @NadaFarahaat on Twitter

অপরূপ বাবার সাথে বাইরে ভ্রমণ! টুইটারে ছবিটি প্রদর্শন করেছে @নাদাফরহাত

সৌদি আরবের পুরুষেরা তাদের নখ পালিশ করছে- ছবির মাধ্যমে তারা তাদের লোমশ পা দেখাচ্ছে, যা কিনা আরববিশ্বে হাস্যরোল-এর সৃষ্টি করে। আর এটা ছিল টুইটারের হ্যাশট্যাগের একটি অংশ, অনুবাদ করলে যার অর্থ দাঁড়ায় যে ভাবে একটি মেয়ে ছবি তোলে, সেভাবে নিজের ছবি তুলুন

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের ছবি প্রদর্শন করে, ছেলেরা মেয়েদের খুঁচিয়ে মজা নিচ্ছে-মেয়েরা যে সমস্ত জুতা পরে, যে নেইল পালিশ তারা হাতে দেয়, যে কফির কাপে তারা চুমুক প্রদান করে এবং মেয়েরা নিজেদের মধ্যে যে সমস্ত উপহার বিনিময় করে।

একটি পুরুষের ছবি, যে তার লাল রঙ করা নখ প্রদর্শন করছে, যখন কফির কাপে চুমুক দিচ্ছে, তা সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে:

Saudis making fun of women taking pictures of themselves

নিজেদের নারীদের সাজের ছবি তুলে সৌদি নাগরিকরা নারীদের নিয়ে মজা করছে

অন্যরা, যেমন রাকান আল হামদান, মেয়েরা যে ভাবে দেখায়, সেভাবে নিজেদের জুতা প্রদর্শন করছে:

মেয়েদের সাথে। pic.twitter.com/IfAA9fSrq7

আরেকজন বালক, নিজের প্রিয় পানীয়ের সাথে নিজের পেডিকিউর করা নখ প্রদর্শন করছে:

আমার সেরা পানীয়। pic.twitter.com/J5YMV2dtQP

পায়ে এভাবে নেল পালিশ করা চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। আহমেদ বিস্মিত:

এমনকি আমি জিজ্ঞেস করব না, কেন এতগুলো পুরুষ হাতে পায়ে নেল পালিশ লাগাল।

এবং আসিল নামের মেয়েটি তার আপত্তি তুলে ধরেছে:

সত্যি? কেবল মেয়েদের নিয়ে মজা করার জন্য ছেলেরা তাদের নখে নেল পালিশ দিচ্ছে!! এখন আর কোন পুরুষত্ব অবশিষ্ট নেই।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .