বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ছবিঃ ভারতীয় শিশুর নিরাপদ আশ্রয় অনুসন্ধান

আনু এল@-এর এই ছবিটি সম্প্রতি অনুষ্ঠিত “স্ট্যাম্প ইট আউট” নামক ছবি প্রতিযোগিতায় অর্ন্তভুক্ত অন্যতম একটি ছবি, ইউনিসেফ ইন্ডিয়া দ্বারা আয়োজিত এই প্রতিযোগিতা #এন্ডভায়োলেন্স নামক প্রচারণার অংশ। অনুমতিক্রমে প্রকাশিত।

বেড়ে ওঠার জন্য শিশুদের নিরাপত্তা এবং নিরাপদ পরিবেশে জরুরী, তাদের শিক্ষা ও নিজস্ব সৃষ্টিশীলতাকে আবিস্কার করা প্রয়োজন, আর এটা আমাদের সকলের- অভিভাবক, শিক্ষক, আইন প্রয়োগকারী প্রতিষ্ঠান এবং সমাজ সকলের মিলিত এবং যৌথ দায়িত্ব-বিষয়টি নিশ্চিত করা।

ভারতের নারী এবং শিশু উন্নয়ন সংস্থার মতে [পিডিএফ]:

“শিশু নিরাপত্তার” অর্থ হচ্ছে গৃহে, স্কুলে, সম্প্রদায় এবং সমাজের মাঝে এক নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করা যাতে শিশুরা সকল প্রকার ক্ষতি এবং ক্ষতিকর পরিস্থিতি থেকে নিরাপদ থাকে। এর মানে হচ্ছে সেই সমস্ত শিশুদের জন্য নিরাপদ নিরাপত্তা ঘের তৈরী করা, যাদের আরো বিশেষ যত্ন এবং নিরাপত্তার প্রয়োজন। এই বিষয়টিকে উপলব্ধি করা অত্যন্ত প্রয়োজন যে একটি শিশুর নিরাপত্তা অধিকার তার প্রতিটি এবং সকল অধিকারের অংশ এবং নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত না করে শিশুর আর অন্য কোন অধিকার নিশ্চিত করা সম্ভব না।

যখন শিশুরা তাদের পরিবেশে নিরাপদ অনুভব করে, তখন তারা খোলামেলা, সুখী, আত্মবিশ্বাসী এবং যে কোন কিছু শিখতে ইচ্ছুক। এখানে ব্লগার এবং নেট নাগরিকদের তোলা কিছু, ছবি শিশুদের নিজের গল্পকে তুলে ধরছে:

প্রাণ খুলে হাসা, উত্তম একটি বই যে আনন্দ প্রদান করে এবং তা পাঠ করা …#শিক্ষা। @জেনরেইনম্যানের টুইট করা ছবি

একটি শিশু তার পাঠ নিয়ে শিক্ষকের সাথে আলোচনা করছে। ছবি ইউনিসেফ ইন্ডিয়ার শিক্ষক দিবসের ফেসবুকের ছবির এ্যালবাম থেকে নেওয়া।

সাক্ষী কাপুর সিঙ্গলা দ্বারা পরিচালিত প্রথম বুক স্টোরি লাইন নামক কর্মসূচিতে শিশুরা পাপলু নামের পুতুলের ছবি আঁকছে। টুইটারে ছবি প্রদর্শন করেছে @সাক্ষীসিঙ্গলা১

একাগ্রচিত্তে একটি শিশু ছবি আঁকছে। ছবি ফ্লিকারের জন মার্টিনের। সিসিবাই-এনসি-এসএ ২.০

ভারতের বৈকন্ঠপুরে শিশুরা রাগবি খেলছে। ছবি, খেলো রাগবি নামের একটি অলাভজনক সংগঠনের পাতা থেকে নেওয়া, যে সংস্থাটি ভারতের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের খেলার সুযোগ করে দেয়।

শিশুদের বিরুদ্ধে সহিংসতা রোধে চলতে থাকা রেড সাইরেন নামক প্রচারণার অংশ হিসেবে, ইউনিসেফ ইন্ডিয়া একটি ছবি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে যার নাম ‘স্ট্যাম্প ইট আউট’। এই প্রতিযোগিতার কয়েকটি ছবি এখানে তুলে ধরা হল, যে কার্যক্রমের আওতায় সকল শিশুকে সহিংসতা মুক্ত এক পরিবেশে বেড়ে ওঠার বিষয়টি নিশ্চিত করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

সহিংসতা বিপর্যয়ের সৃষ্টি করে, আসুন আমরা একে খতম করি। “স্ট্যাম্প ইট আউট” –এর জন্য ছবিটি প্রদান করেছে @ মোনালিসা কে। অনুমতিক্রমে ব্যবহৃত

একটি নিরাপদ পরিবেশ শিশুকে আত্মবিশ্বাসের সাথে তার সৃষ্টিশীলতাকে প্রকাশ করার সুযোগ করে দেয়।“স্ট্যাম্প ইট আউট” – প্রতিযোগিতার জন্য মনোনীত এই ছবিটি পাঠিয়েছে @আজিথ পিভি। অনুমতিক্রমে ব্যবহৃত।

একটি নিরাপদ পরিবেশে সকল শিশু বিজয়ী। “স্ট্যাম্প ইট আউট” – প্রতিযোগিতার জন্য মনোনীত এই ছবিটি পাঠিয়েছে @ তাইজমীর আর। অনুমতিক্রমে প্রকাশিত।

আপনি নিজেও এখানে এই ছবি প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করতে পারেন এবং আন্দোলনে নিজের কণ্ঠ প্রদান করতে পারেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .