বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইয়াসুনি ন্যাশনাল পার্ক রক্ষায় ইকুয়েডরে প্রতিবাদ সমাবেশ

*কোন নির্দেশ ছাড়া, সমস্ত পোস্টের লিঙ্ক স্প্যানিশ ভাষায়।

ইকুয়েডরের বিভিন্ন শহরের শত শত ব্যক্তি ইয়াসুনি ন্যাশনাল পার্ক রক্ষার জন্য আন্দোলনে নেমেছে। তার দাবি করেছেন, সেখানকার অপরিশোধিত তেলের মজুদ ভুমির ঠিক নিচেই রয়েছে।

গত ১৫ আগস্ট তারিখে রাষ্ট্রপতি রাফায়েল কোড়িয়ার ইয়সুনি আইটিটি উদ্যোগ নাকচ করার সিদ্ধান্তের প্রাক্কালে এই প্রতিবাদের সূত্রপাত হয়, যেখানে বিশ্ব ক্ষমতাধরদের অর্থনৈতিকভাবে অবদান রাখতে বলা হয়েছিল যাতে ইয়সুনির পরিবেশগত সম্পদগুলো বিঘ্নিত না হয়। কোড়িয়া ইয়াসুনির শতকরা এক ভাগের মাত্র এক দশমাংশ “দায়িত্বশীল নিষ্কাশন” এর প্রতিশ্রুত দিয়েছিলেন।

তবে, সরকারের প্রতিশ্রুতি সব ইকুয়েডরিয়ানরা বিশ্বাস করে নি। ইয়সুনিকে রক্ষায় অনেকেই রাস্তায় অবস্থান নিয়েছেন এবং সামাজিক নেটওয়ার্ক ব্যবহার করছেন।

ইয়সুনি আইটিটি উদ্যোগ প্রকল্পের সহযোগিতায় থাকা ​​ইকুয়েডর শিল্পী ফাউস্টো মিনো (@ফাউস্টোমিনোয) জোর দিয়ে বলেছেন, এই উদ্যোগের প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে যেসব ​​শিল্পীদের দেখা গেছে তাঁদের কেউ ব্যক্তিগত লাভ জন্য এটা করেননি।

আমি এটা স্পষ্ট করতে চাই যে, #ইয়াসুনি রক্ষার জন্য কোন ইকুয়েডর শিল্পীই একটি পয়সাও চান নি। এটা আমাদের সাধারণ কারণ ছিল এবং আমরা তা হারিয়ে ফেলেছি, গল্প শেষ।

ইয়াসিনির সমর্থনে কানেক্টাদোস লোজা (@কানেক্টাদোসলোজা) সমাবেশে যোগদান যারা ​​আদিবাসী মানুষের দলের একটি ছবি প্রকাশ করেছেন।

ফিউনাস্কের [গ্রামীণ সামাজিক নিরাপত্তার ন্যাশনাল সাধারণ ফেডারেশন] মত #লোজা আদিবাসী গ্রুপ #ইয়াসুনি শোষণের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে।

কুএঙ্কা থেকে রেডিও স্টেশন @অনদাসাজুয়াস ২১ আগস্টের জন্য রাত্রি জাগরণ ঘোষণা করেছে:

#নোতোকুইএনিলায়াসুনিঃ ইয়াসুনির সমর্থনেঃ আজ ২১ আগস্ট কুয়েঙ্কার কাল্ডেরোন পার্কে সন্ধ্যে ৬ টা থেকে রাত্রি জাগরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

ক্যারোলিনা ইজা ♥ যেএইচ (@ক্যারিটোইজা) বলেছেন, এমনকি গুয়াঙ্কুইলও ইয়াসুনি রক্ষা করতে চায়।

এখানে গুয়াঙ্কুইলে, আমরা আমাজন থেকেও শ্বাস নিই। #নোতোকুইএনিলায়াসুনি pic.twitter.com/XXpJLLIBtS

প্রকৃতি প্রেমিক মাজিটো লাসো (@মাজিটোলাসো) কুইটোর রাত্রি জাগরণের একটি ছবির প্রকাশ করেছেন:

স্বাধীনতা চত্বর! ইয়াসুনির জন্য রাত্রি জাগরণ! সমস্ত হুমকি সত্ত্বেও, মানুষ এখানে!

প্রযোজক মিশেল কামুন (@মিশেলকামুন) ২৭ আগস্ট রাতে প্রতিবাদকারীদের স্বাধীনতা স্কয়ারে প্রবেশে বাঁধা দেবার জন্য রাস্তায় ব্যারিকেড দেওয়ারত ​​পুলিশ অফিসারদের একটি ছবি শেয়ার করেছেন।

মূল প্লাজায় প্রবেশ থেকে মানুষকে বিরত রাখতে পুলিশ কর্মকর্তারা প্রতিরোধ গড়ে তুলেছেন। #মার্চা #নোতোকুইএনিলায়াসুনি  @ECTV_Noticias @elcomerciocom

অবশেষে, ঘোষক মারকোস টরেস (@মারকোসটি১৮২) লিখেছেন:

যদি তারা #নোতোকুইএনিলায়াসুনি #আইটিটি এর উপর একটি গণভোটের আয়োজন করে তবে আমি মাটিতে তেল রাখতে ভোট দিব। এটা সহজ, তারা কি বলবেন, সেটা কোনো ব্যাপার নয়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .