বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

১৬ জুলাইয়ে বলিভিয়ার সব পেয়েছি'র মেলা

কেনার জন্য কোনো কিছু খুঁজছেন? আপনার যদি নতুন বিছানা, পুরোনো বই, ব্যবহৃত গাড়ির দরকার হয়, ১৬ জুলাইয়ের মেলায় চলে আসুন। সবকিছুই পেয়ে যাবেন এখানে। বলিভিয়ার এল আল্টো-তে এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতি বৃহস্পতি এবং রবিবার এই মেলা বসে। খোলা আকাশের নিচে হাজার হাজার ব্যবসায়ী-ক্রেতারা বিকিকিনির জন্য এখানে আসেন। অনেক সময় ন্যায্যমূল্যেই পেয়ে যাবেন অপ্রত্যাশিত অনেক কিছু।

মেলা শুরু হয় সেই কাকডাকা ভোরে, সকাল ৫টা থেকে। বিক্রেতারা সকাল থেকেই পসরা সাজিয়ে বসে থাকেন ক্রেতাদের জন্য। বলা হয়ে থাকে এই মেলায় এসে ক্রেতারা সবকিছুই খুঁজে পান। পিন থেকে ট্রাক্টর সব মেলে মেলাতে।

Vendor setting up his booth at the July 16 fair. Photo by Carlos Sanchez, copyright Demotix.

১৬ জুলাইয়ের মেলায় একজন ব্যবসায়ী দোকান তুলছেন। ছবি তুলেছেন কার্লোস সানচেজ। স্বত্ত্ব ডেমোটিক্স।

এক সময় অল্প কয়েকটি দোকান নিয়ে এই মেলা শুরু হয়েছিল। এখন ৫ লাখ ব্যবসায়ী মেলায় দোকান নেয়ার জন্য নিবন্ধিত হয়েছেন। তবে কিছুদিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ১০ হাজারের মতো। মেলায় প্রদর্শিত হয় এমন কিছু পণ্যের মধ্যে রয়েছে বৈদ্যুতিক যন্ত্রাংশ, আসবাবপত্র, কৃষিজ পণ্য, নির্মাণ সামগ্রী।

এল আল্টোর বাণিজ্যিক কার্যক্রমের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো এই মেলা। পার্শ্ববর্তী লা পাজ শহর থেকেও অনেকে এখানে কেনাকাটার জন্য আসেন।

মেলার একটি অন্যতম আকর্ষণ হলো গাড়ির বাজার। ১০০ সিটি ব্লক পর্যন্ত জায়গা নিয়ে গাড়ির মেলা বসে। পাকাজেস প্লাজার চারপাশে ব্যবহৃত মোটর সাইকেল, গাড়ি, পণ্যবাহী ট্রাক সাজিয়ে রাখা হয়। যন্ত্রচালিত এই গাড়ি বিক্রির পাশাপাশি বদলি পার্টসও বিক্রি করা হয়। এখানে এমনকি ভ্রাম্যমান লিগ্যাল অফিসও বসানো হয়, যাতে খুব কম সময়ে আপনার আইনজীবী নতুন কেনা গাড়িটির কাগজপত্র ঠিক করে দিতে পারেন।

এই মেলা যেন সমাজবিদ্যা বিষয়ের একটি অংশ! আর তারই কিছু জিনিস শেয়ার করেছেন সাইমন ইয়ামপারা, পুকারা অনলাইন নিউজপেপারে। আবার এর কিছু মিল খুঁজে পেয়েছেন এনডিন সংস্কৃতিতে:

El orden y desorden de la exposición de los productos, que en función de algún producto principal complementan los otros productos, por ejemplo la venta de automóviles, automáticamente ha abierto espacios para la venta de variedad de accesorios de auto-partes así como los bufetes-abogados de transacciones legales, pero también la serie de servicios complementarios como comidas, heladeros, refresqueros y hasta cervezas para la ch’alla de las transacciones de compra y venta. Eso tiene implicancias de lógicas: donde una cosa es el orden occidental y otra el orden andino que se guía más por complementaciones interactivas.

মেলায় সুশৃঙ্খলভাবে সাজিয়ে রাখা মূল পণ্যগুলোর পাশে পরিপূরক পণ্যগুলোও মিলছে। যেমন মেলায় অটোমোবাইল বিক্রি হলে স্বয়ংস্ক্রিয়ভাবে অটো পার্টস-এর মতো অ্যাকসেসরিজ বিক্রির দরজা খুলে যায়। সাথে সাথে আইনজীবীদের ব্যবসা বাড়ে আইনি বিষয়গুলো সমাধা করার জন্য। এর পাশাপাশি অন্যান্য পরিপূরক সেবা যেমন খাদ্য, আইসক্রিম, ড্রিংকস এমননি নতুন কিছু কেনাকে উদযাপন করতে বিয়ারও বিক্রি বাড়ে। তার মানে যৌক্তিকভাবে ব্যাপারটা দাঁড়ায়: একটা ওয়েস্টার্ন অর্ডার দিলে আরেকটা এনডিন অর্ডার দিতে হয়, যা পারস্পরিক সম্পৃক্ততার দিকে নিয়ে যায়।

বিকিকিনির জন্য এখানে অনেক সওদা, যার অনেক কিছুই অনেকে পছন্দ করবে না। আবার অনেক পণ্য নিয়ে বেশ বিতর্ক চলে। এই সময়কার চালু বিতর্ক স্থানীয়ভাবে উত্পাদিত নতুন দেশী পোষাক বনাম বিদেশী ব্যবহৃত পুরোনো পোষাক নিয়ে। তবে এই ইস্যুতে দুই পক্ষেরই সমর্থক রয়েছে। কারণ, বিদেশী ব্যবহৃত পোষাক দামে কম, কম আয়ের লোকেরা সহজেই কিনতে পারে সেটা। আবার স্থানীয়ভাবে উত্পাদিত নতুন দেশী পোষাক এল অল্টো এবং দেশের অন্যান্য স্থানে লোকজনের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে।

মেলা নিয়ে আরেকটি সমালোচনা হলো, এখানে যেসব পসরা প্রদর্শিত হয়, তার ওপর তেমন কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। বিশেষ করে প্রাকৃতিক ঔষধ-এর মতো পণ্যগুলোর উপরে। এগুলো ভালোভাবে পরখ না করেই এবং মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ ছাড়াই বিক্রি হয়ে থাকে।

এই মেলায় ব্যাপকভাবে নানা ধরনের পশুপাখি বিকিকিনি হয়ে থাকে। কিন্তু এখানে প্রায়ই নানা ধরনের বেআইনি ঘটনা ঘটে। বিক্রি নিষিদ্ধ পশুপাখিও বিক্রি হয় এখানে। তা ছাড়া গৃহপালিত যেসব পশুপাখি মেলায় নিয়ে আসা হয়, দেখা যায় সেগুলো হয় গাদাগাদি করে বাজেভাবে নিয়ে এসেছে, নয়তো প্রজনন সময়কালেই নিয়ে এসেছে। এই অবস্থা প্রতিরোধে সবাইকে একত্র করতে একটি ফেসবুক পেজ খোলা হয়েছে।
মেলায় আগত ক্রেতাদের কাছে বর্ণিল দৃশ্যপট আর বিচিত্র শব্দরাজি একমাত্র আকর্ষণ নয়। বিদেশী পর্যটকরাও তাদের গাইড বইয়ে এই আকর্ষণগুলো সম্পর্কে পড়তে পারেন। স্থানীয় ব্লগার রোনাল্ড ভ্যালেজোস ডুরান নিকটবর্তী লা পাজ থেকে মেলায় ঘুরতে এসে সে অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন:

En el ambiente de fondo los sonidos son variadísimos. Cumbias nacionales, peruanas, todo al son de la moda actual; voces nasales que anuncian curas contra la diabetes, el cáncer, en base a antídotos milenarios y naturales.

En el sector autos pude constatarme que el precio de los vehículos están elevados; y otro dato curioso es que la industria china en automóviles se ha incrementado considerablemente.

Un poco más adentro me esperaban cuadras y cuadras de ropa americana a medio uso. Ropa que por cierto más de una vez fue prohibida su venta, bastará recordar que un par de años atrás hubo muchas movilizaciones y polémica en torno a éste tema.

মেলার নেপথ্যে দৃশ্য, শব্দরাজি আসলেই বৈচিত্র্যময়- বলিভিয়ান আর পেরুভিয়ান সংগীত বাজছে, সবগুলোই এসময়ের জনপ্রিয়, নাকি সুরে ঘোষণা চলছে ডায়াবেটিস এবং ক্যান্সার মুক্তির। আর এই মুক্তি মিলবে প্রাচীন ও প্রাকৃতিক চিকিৎসায়।

গাড়ির দোকানগুলো ঘুরে দেখে মনে হলো দাম একটু বেশিই। তবে চীনা গাড়ির সংখ্যা বেশি।

মেলার একটু ভিতরের দিকে আমার জন্য সার সার করে রাখা রয়েছে আমেরিকার ব্যবহৃত জামাকাপড়। জামাকাপড়গুলো আমাকে কিনতে পুনরায় বারণ করে দিলো। কেন না বছর দুয়েক আগে এগুলো নিয়ে ব্যাপক প্রতিবাদ ও বিতর্ক তৈরী হয়েছিল।

মেলায় পণ্যের বিকিকিনি বাড়াতে, ক্রেতাদের পণ্যের প্রতি মনোযোগ আকর্ষণে কিছু মজার মানুষ (ক্যারেক্টার) সারাদিনই কাজ করে যায়। পালাব্রাস লিব্রেস ব্লগের ব্লগার মারিও ডুরান মেলায় এসে সেইসব মজার মানুষদের খুঁজে পেয়েছেন। এজন্য তিনি মেলায় আগত মানুষদেরকে “খোলা মন নিয়ে” আসতে বলেছেন। এবং এও বলেছেন, “খুঁজলেই তাদের পেয়ে যাবেন”। তিনি মেলায় এসে এরকম দুইটা ক্যারেক্টারের সাথে কথা বলেছেন। এদের একজন হলেন ট্যাক্সি ড্রাইভার পেদ্রো এবং কুলি জুয়ান:

Juan es parte de la asociación de carritos de transporte, que llevan cosas hasta los puntos de parada de taxis, tiene uniforme único con bordado de la asociacion, sombrero de ala ancha y … tarifa única, por trasladar cosas te cobran 10 Bs. Mientras carga los muebles adquiridos y los transporta, empezamos a recorrer la feria, va pidiendo permiso, atropella a una persona, blasfema quedito con la trancadera que se arma cuando vehículos empiezan a ir en contraruta. En cierta esquina me dice: ¿a cual lado, joven?, donde los taxistas cobren mas barato – le respondo. Me ayuda a cargar las cosas en el taxi. Pago la tarifa.

জুয়ান হলো গরুর গাড়ি পরিবহন সংগঠনের একটি অংশ। তার কাজ হলো মেলা থেকে পণ্য সামগ্রী ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে নিয়ে আসা। সংগঠন থেকে তাকে ফিটফাট একটি ইউনিফর্ম দেয়া হয়েছে। মাথায় লম্বা-চওড়া হ্যাটও আছে। তার মজুরিও নির্দিষ্ট করা আছে। পণ্য পরিবহনের জন্য তাদের মজুরি মোটে ১.৪৫ মার্কিন ডলার। আমরা মেলায় ঘুরতে লাগলাম। আর সে কারো কেনা আসবাবপত্র বহন করে নিয়ে যাওয়ার জন্য ছুটলো। এজন্য আমাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনাও করলো। আমরা যখন একটি সংযোগস্থলে পৌছলাম, সে জিজ্ঞেস করলো, “কোথায় চললে হে তরুণ?” আমি তাকে বললাম, যেখানে ট্যাক্সি ভাড়া কম, সেখানে। সে মালপত্র বহন করে দিয়ে আমাকে সাহায্য করলো। আমি তাকে মজুরি দিলাম।

আপনি যদি পিন কিংবা ট্যাক্টর খোঁজেন, তাহলে নিশ্চিন্তে ১৬ জুলাইয়ের মেলায় যান। সেখানে কেউ নিশ্চয় সেগুলো বিক্রির জন্য পসরা সাজিয়ে বসে আছে। তবে আপনি সত্যিকারে যেটা খুঁজছেন তা পেতে আপনাকে একটু ধৈর্য ধরতে হবে।

মেলার আরও ছবি দেখতে পাবেন সিজার অ্যানজেল জারাগোজা'র ফ্লিকারে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .