বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

“তারা ইরাকে ঈদ হত্যা করেছে”

ইরাক জুড়ে আজ (১০ই আগস্ট) রাতে বিভিন্ন স্থানে ১৭টি বোমা বিস্ফোরণে ৯১ জন নিহত (এবং বেড়ে চলেছে) এবং ৩২৩ জন লোক আহত হয়েছে।

ইরাকের জাতিগত সংঘাতের শত্রুতাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন বাজার, রেস্টুরেন্ট এবং ক্যাফেতে বোমা হামলা চালানো হয়েছে। বিবিসি’র একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই মাসটি ছিল “বছরের প্রাণঘাতী রমজান, যে সময় ৬৭০ জনেরও বেশি মানুষকে হত্যা করা হয়”। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকাটি জাতিসংঘের আরেকটি পরিসংখ্যানকে উদ্ধৃতি করে আরেকটি সংখ্যা প্রদান করেছে- “জুলাই মাসে হামলায় ১,০৫৭ জন নিহত এবং ২,৩২৬ জন আহত হয়। ২০০৮ সাল থেকে আহত হওয়ার মাসিক লোকের পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে যা সর্বোচ্চ।”

আল জাজিরার সংবাদদাতা রাওয়া রাগেহ কথা হারিয়ে ফেলেছেন। তিনি টুইট করেছেন:

বলার মতো কোন শব্দ নেই.. এখন #ইরাকে মৃতের সংখ্যা ৯১.. ৩২৩ জন আহত ..

এই এক ঘন্টা আগে তিনি টুইট করেছেন:

ইরাকিরা এই ঈদের শেষ দিনে কি পেতে যাচ্ছেঃ ১৩ টি বিস্ফোরণ, ৬৭ জন মানুষ নিহত, ২১৮ জন আহত .. এটি কি কখনও শেষ হবে ? #ইরাক

মুসলিমরা রোযা পালনের পবিত্র মাস, রমজান শেষে ঈদ উৎযাপন করে এবং এটি হচ্ছে সাধারণত আনন্দ এবং পরিবারের সদস্যদের জড়ো হওয়ার একটি সময়। শুধু ইরাকিদের জন্য নয় বরং বিষয়টি অন্য আরবদের জন্যও প্রযোজ্য। লন্ডন ভিত্তিক ইরাকী গবেষক হায়দার আল-খয়ি বিলাপ করেছেনঃ

“আমার দেশে, ঈদ মারা গেছে।”

একটি ফলো-আপ টুইটে তিনি বলেছেন:

আপনি কি মনে করেন যে গাড়ি বোমার পর গাড়ি বোমা কি ইরাকি নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের জাদুদণ্ড প্রতিস্থাপন করতে বাধ্য করবে ? কখন যথেষ্ট হবে ?

এএফপি’র ইরাক ব্যুরো চিফ প্রশান্ত রাও ব্যুরো বোর্ডের একটি ছবি শেয়ার করেছেন, যেখানে গাড়ি বোমার সংখ্যা এবং নিহত ও আহতদের ​​সংখ্যাও বলা হয়েছে। তিনি মন্তব্য করেছেনঃ

এটি @এএফপি বাগদাদ ব্যুরোর খুব পরিচিত-সাইট হয়ে উঠছে: pic.twitter.com/dJZii67X1B

তিনি বাগদাদের কোন জায়গাগুলোতে বোমা বিস্ফোরিত হয়েছে তাঁর একটি তালিকা তৈরি করেছেনঃ

. @এএফপি হুসেইনিয়াহ, শাহাব, কাধিমিয়াহ, বাগদাদ জাদিদাহ, আমিল, দুরা, সাইদিয়াহ এবং বাগদাদ এর জিসির আল-দিয়ালা এলাকায় গাড়ী বোমা ট্র্যাকিং করেছে।

এবং ইরাকের অন্যত্র:

ইরাকের তুয খুরমাতু, হিলা, নীল (হিলার কাছে), কাইয়ারাহ, এবং আল-জাদা (দক্ষিণ মসুল), বাগদাদে আজ আক্রমণ হয়েছে। ৪১ জন মৃত, ১৭৬ জন আহত – @এএফপি

বোমাবর্ষণের স্ফীতি সামাজিক মিডিয়ার উপর অত্যাচারের সাথে মিলে যায়। বাহরাইন থেকে ব্লগার আলি আল-সাইদ তার বিতৃষ্ণা প্রকাশ করেছেন:

ক্ষিপ্ত জাতিগত সংঘাতের হত্যাকাণ্ডের মাতলামি #ইরাক জুড়ে অব্যাহত রয়েছে এবং কোন একক আরব নেতা এর বিরুদ্ধে কথা বলে না। বিরক্তিকর।

এছাড়াও ফ্রান্স থেকে আমউন ইরাকে কি ঘটছে তা সম্পর্কে মানুষের অবহেলায় মর্মাহত হয়েছেনঃ

হ্যাঁ, আমি #ইরাক এর খবর দিয়ে আপনার টাইমলাইনে বন্যা বইয়ে দিয়েছি। এর অন্য কোন কারণ নেই। আপনি খুশি না হলে এটি অনুসরণ করবেন না  এবং আপনার বিবেক তা সহ্য করবে।

মধ্যপ্রাচ্য ও উ. আ. বিষয়ে সাম্প্রতিক গল্পগুলো

বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় গল্পগুলো

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .