বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

এক বেদনাদায়ক ঘটনায় রোমানিয়া এবং মন্টেনিগ্রোর মাঝে অনলাইন বন্ধুত্বের সৃষ্টি

সচরাচর দেখা যায় না, মন্টেনিগ্রোয় সংগঠিত এমন এক ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায়, ১৮ জন রোমানীয় নাগরিক জীবন হারিয়েছে এবং ২৯ জন আহত হয়েছে। ২৩ জুন ২০১৩ তারিখে এই ঘটনা ঘটে, যখন এক রোমানীয় বাস মন্টেনিগ্রোর রাজধানী পোডগোরিকা থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে গালা ব্রিজ ভেঙ্গে ৪০ মিটার নীচে মোরাকা খাদে পড়ে যায়।

এই দুর্ঘটনার সংবাদ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং দুর্ঘটনার শিকার ব্যক্তি এবং তাদের পরিবারের প্রতি মন্টেনিগ্রোর নাগরিকদের প্রতি দয়ার্দ্র আচরণে কারণে উভয় দেশের মাঝে কৃতজ্ঞতা, সহানুভূতি, একাত্মতা এবং ভালোবাসার বার্তায় উভয় দেশের সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ভরে যায়।

One of the most shared images on social networks related to this tragic event; image courtesy of Lazarica.

এই বেদনাদায়ক ঘটনার সাথে সংযুক্ত এক ছবি, যা সোশ্যাল মিডিয়া সর্বাধিক প্রদর্শিত ছবির অন্যতম। ছবি লাজারিকার-এর।

ফেসবুকে, মন্টেনিগ্রোর নাগরিকদের সাহায্য এবং সমর্থনের প্রতি ধন্যবাদ জানানোর জন্য ফেসবুকে দুটি পাতার আবির্ভাব ঘটে। একটি পাতা,যার শিরোনাম মন্টেনিগ্রোর প্রতি, শ্রদ্ধাপূর্ণ ধন্যবাদ [রোমানীয় ভাষায়], যার এখন পর্যন্ত ৫০০০ সমর্থক, এবং ধন্যবাদ মন্টেনিগ্রো [রোমানীয় ভাষায়], যে সব পাতায় রোমানীয় নাগরিকদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন এবং বেদনাদায়ক দুর্ঘটনার পর মন্টেনিগ্রোর নাগরিকদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার ছবিতে উপচে পড়ে।

টুইটারে একই সাথে প্রচুর পরিমাণে বার্তা এবং সত্যিকারের বন্ধুত্ব এবং সংযোগের বিনিময় ঘটে, যেমন রোমানিয়া থেকে আসা ক্যাটালিনা ইতোর (@ক্যাটালিন_ইতোআর৫)বার্তা টুইটারে এক সাধারণ এবং হৃদয়গ্রাহী বার্তায় পরিণত হয়:

@ক্যাটালিন ইতোআর-৫ #মন্টেনিগ্রো, তোমরাই সেরা! আমরা #রোমানীয়রা এই কারণে এত খুশী যে তোমরা আমাদের নিকটে আছ।

রোমানিয়া থেকে টুইটার ব্যবহারকারী এলিজে (@ক্রনিসিলেএলিজে) তার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে:

@ক্রনিসিলেএলিজে: আমি কেবল আমাদের #মন্টেনিগ্রোর অসাধারণ বন্ধুদের ধন্যবাদ দিতে চাই, যারা বাস দুর্ঘটনায় আমাদের আহত নাগরিকদের সাহায্য করেছে, তোমাদের প্রতি #রোমানিয়া সত্যিকারের কৃতজ্ঞ!!

অন্য অনেকের মত বুখারেস্ট থেকে এভালিনা(@মিসিইভবারোয়ু), এই এলাকার প্রতি তার শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেছে এবং মানবতার প্রতি তার বিশ্বাসকে পুনঃস্থাপিত করতে চেয়েছেন:

@মিসইভবারোয়ু মন্টেনিগ্রোর প্রতি শ্রদ্ধা! বর্ণ, জাতীয়তা অথবা ভাষার উর্ধ্বে উঠে আমাদের প্রতি সহমর্মিতা প্রদর্শনের জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। #মন্টেনিগ্রো, #রোমানিয়া

পুরো মন্টেনিগ্রো জুড়ে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা বন্ধুত্বের এই অনুভূতির প্রতি পাল্টা সাড়া প্রদান করেছে। যেমন রাজধানী পোডগোরিকা থেকে ব্যবহারকারী ক্লাসবাইটস এই ঘটনার সাথে সর্বাধিক প্রদর্শিত অন্যতম এক ছবি যুক্ত করেছে, যা নীচে প্রদর্শন করা হল:

রোমানিয়া, তোমাকে স্বাগতম! #মন্টেনিগ্রো#রোমানিয়া

One of the most shared images on social networks and blogs from Romania.

রোমানিয়ার সোশ্যাল নেটওয়ার্ক ও ব্লগে সর্বাধিক প্রদর্শিত অন্যতম এক ছবি।

যে দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা দুটি দেশকে আরো কাছাকাছি নিয়ে এসেছে তার কারণে জেগে ওঠা দুটি দেশের কূটনীতিবিদ এবং সরকারী কর্মকর্তারাও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ভাবে একে অপরের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে, এদিকে এই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া ব্যক্তি, যাদের বেশিরভাগই রোমানিয়ার অবসরগ্রহণকারী নাগরিক, তারা মূলত অবসর উপভোগের জন্য মন্টেনিগ্রোতে গিয়েছিল। তাদের প্রথমে পোডগোরিয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়, পরবর্তীতে রোমানীয় সরকার তাদের রোমানিয়ায় নিয়ে আসে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .