বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিয়ানমারের বেসরকারি গণমাধ্যমের প্রত্যাবর্তনে চীনাদের ঈর্ষা

প্রায় পাঁচ দশক ধরে অনুপস্থিতির পর মিয়ানমারে বেসরকারি খবরের কাগজ প্রত্যাবর্তনের খবরে চীনা নাগরিকদের মধ্যে ঈর্ষা এবং হতাশা সৃষ্টি করেছে। তাঁরা হতাশ হয়ে ভাবছেন, চীন তার শক্ত মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি বাদ দিয়ে কখনো একই পন্থা অনুসরণ করবে কিনা।

গত ১ এপ্রিল, ২০১৩ তারিখে মিয়ানমারের চার বেসরকারি খবরের কাগজে প্রকাশিত হওয়ার পর পরই তা বিক্রি হয়ে যাওয়ার খবর চীনা সংবাদপত্র বেইজিং টাইমসে রিপোর্ট হওয়ার পর অন্যান্য চীনা সংবাদমাধ্যমগুলোও এর উপর অনেক প্রতিবেদন করেছে এবং চীনের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক মিডিয়া প্লাটফর্মে বিষয়টি নিয়ে প্রাণবন্ত বিতর্কের ঝড় বয়ে যায়।

চীন দৈনিক সংবাদপত্রের সম্পাদক ক্রেগ ম্যাকিন্টশ জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইট সিনা ওয়েবও তে মন্তব্য করেছেন:

মায়ানমারের জন্য একটি মহান দিন। একটি মুক্ত, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু প্রিন্ট মিডিয়া মানবাধিকার ও অন্যান্য স্বাধীনতা রক্ষায় বিশাল ভূমিকা পালন করতে পারে।

A screenshot of the report about the Myammar's private newspaper China's Guangxi TV (from youku)

চীনা গুয়াঙ্গি টিভিতে মিয়ানমারের বেসরকারি সংবাদপত্রের উপর প্রকাশিত একটি রিপোর্টের স্ক্রিনশট (ইউকিউ হতে) 

আরেকজন খবরের সম্পাদক “গিলিন রিবাও লাওনা” লিখেছেন:

私人报纸一小步,国家民主一大步……

বেসরকারি সংবাদপত্রের জন্য একটি ছোট পদক্ষেপ, কিন্তু একটি দেশের গণতন্ত্রের জন্য একটি বিশাল পরিবর্তন।

যাইহোক, অধিকাংশ মন্তব্যকারীরা চীনে তাঁদের নিজেদের মিডিয়া সেন্সরশিপ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন। “জিয়ানশি ওয়াংতিয়ান” লিখেছেন:

向缅甸人民祝贺,我国宪法规定中国公民也有自办报刊的权利,不知什么时候中国公民能依法自办报刊,这也是中国梦,何时成真?

মিয়ানমারের জনগণকে অভিনন্দন। আমাদের দেশের সংবিধানও বলছে যে, চীনা নাগরিকদেরও তাদের নিজের কাগজপত্র চালানোর অধিকার আছে। কিন্তু এই আইন অনুযায়ী চীনের নাগরিকরা কবে সে অধিকার পাবে ? এটাও একটি চীনা স্বপ্ন, কখন এটি সত্যি হবে ?

নিজেকে “সাঙ্ঘাইজুস” নামে পরিচয় দিয়ে একজন ব্যবহারকারী জবাব দিয়েছেন:

চীনে এটি ঘটতে যাচ্ছে না।

অন্য আরেকজন তীব্র ব্যঙ্গপূর্ণ কথায় [চীনা] মন্তব্য করেছেন:

缅甸也快成民主国家了,我国的朋友越来越少了。

মনে হচ্ছে, মিয়ানমার গণতন্ত্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং আগামীতে চীনের বন্ধুর সংখ্যা আরও কমতে থাকবে।

“লিউশি বুহুও” নামের আরেকজন ভাষ্যকারের [চীনা] অনুভূতি প্রতিধ্বনিত হয়েছে:

搞了几十年还不如缅甸越南,再过两年可能连古巴都不如,只能跟朝鲜比高下。

সংস্কার এবং খোলার ১২ বছরের পরেও আমরা মিয়ানমার অথবা ভিয়েতনামকে ছাড়িয়ে যেতে পারলম না, এমনকি আমরা হয়তো আরো দুই বছর পরও কিউবা থেকেও পিছিয়ে থাকব। আমাদের তুলনা করার জন্য তখন সম্ভবত শুধুমাত্র উত্তর কোরিয়া বাকি থাকবে।

“হুজিন ওয়েন্যু” প্রস্তাব [চীনা] করেছেন:

既如此,可到缅甸去,办一份中文报纸,如何?

যদি তাই হয়, মিয়ানমারে কিভাবে একটি চীনা সংবাদপত্র চালানো যায় ?

একজন ব্যবহারকারী আশা প্রকাশ করে [চীনা] লিখেছেন:

হয়তো চীনের ভবিষ্যতও সেটা। সেটা হতে জানিনা কত বছর অথবা দশকের প্রয়োজন হবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .