বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভিডিও: ট্রান্স প্যাসিফিক পার্টনারশিপ যেভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে

ইলেকট্রিক ফ্রন্টিয়ার ফাউন্ডেশন নামের ডিজিটাল অধিকার গ্রুপ একটি নতুন অ্যানিমেটেড ভিডিওতে সতর্ক করে দিয়েছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দশটি দেশের সরকারের মধ্যে আলোচিত গোপন ট্রান্স প্যাসিফিক পার্টনারশিপ (টিপিপি) একটি বৃহদায়তন বাণিজ্য চুক্তি, যেটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য ভীতিকর পরিণতি বয়ে আনতে পারে।

কর্পোরেশন থেকে পাওয়া ইনপুটগুলো এই চুক্তির আলোচনায় অন্তর্ভুক্ত, যেগুলো গোপন রাখা হচ্ছে। কিন্তু ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারীতে ফাঁস হওয়া খসড়া [পিডিএফ] এবং অন্যান্য ফাঁস হওয়া নোট থেকে চুক্তির মেধা স্বত্ব এর অধ্যায়ে কপিরাইট প্রয়োগকারী বিধান নিয়ে উদ্বেগের অনেক কারণ দেখা দিয়েছে।

সেই দলের মতে, চুক্তিটি ব্যবহারকারি ব্যক্তি ও কোম্পানির জন্য ইন্টারনেটকে একটি ভয়ংকর জায়গা করে তুলতে পারে। চুক্তিটি ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারীকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের কার্যকলাপে নজরদারি এবং শৃঙ্খলা রক্ষার ব্যাপারে উৎসাহিত করতে পারে। পাশাপাশি বৈধ বিষযবস্তু অবরোধে অনুমিত কপিরাইট ধারকের কাছ থেকে শুধুমাত্র একটি চিঠি বিজ্ঞপ্তি নিয়ে দায় থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারে।

কপিরাইট লঙ্ঘন রোধে জায়গায় রাখা প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা এড়ানোর জন্য এটি ব্যবহারকারীদেরও অবৈধ করতে পারে। যেমন, অন্য ক্যারিয়ার থেকে সংযোগ প্রদানের জন্য একটি মোবাইল ফোন আনলক করা অথবা প্রতিবন্ধীদের জন্য সুবিধা রেখে একটি ই-বুক বিন্যাসে পরিবর্তন আনা।

“টিপিপি” নামক ভিডিওটি: ইন্টারনেটের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি যার কথা আপনি সম্ভবত শোনেননি, সেটি ইউটিউব এবং এখানে পাওয়া যাবে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .