বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সৌদির শহরগুলো জুড়ে একযোগে “মুক্তির জন্য অবস্থান কর্মসূচী” পালিত

সৌদি নারীদের একটি ছোট দল সৌদির শহরগুলো জুড়ে ১০ জুন, ২০১৩ তারিখে “মুক্তির জন্য অবস্থান কর্মসূচী” পালন করেছে। তাঁদের কারাবন্দী আত্নীয়-স্বজনদের মুক্তি চেয়ে নামহীন অ্যাডভোকেসি গ্রুপ @আলমোনাসেরন [সমর্থকেরা] এই কর্মসূচিটির ডাক দিয়েছে। এর ফলে গত দু’দিনে সৌদির নিরাপত্তা বাহিনীর দ্বারা নারী এবং পুরুষ সহ ১৪০ জনেরও বেশী প্রতিবাদকারী গ্রেপ্তার হয়েছে।

স্বাধীন মানবাধিকার উৎসগুলো বলছে, স্বেচ্ছাচারীভাবে কারাবন্দী লোকের [আরবি] সংখ্যা ৩০ হাজারেরও বেশী, যাদের বেশীরভাগই ৯/১১ – পরবর্তী “সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের” সময়ে গণগ্রেপ্তারের শিকার হয়েছেন। আটককৃতদের কোন ওয়ারেন্ট ছাড়াই গ্রেপ্তার করা হয় এবং তাঁদের জন্য আইনজীবী ও বিচারের অনুমতি নেই। সৌদি আরবে প্রতিবাদ করা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং অংশগ্রহণকারীরা যদি ধরা পড়ে তবে তাঁদের কয়েক মাস জেল হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। তবুও এটা কারাবন্দীদের আত্মীয়-স্বজনদের গত দুই বছর ধরে সংখ্যায় অল্প হলেও স্বেচ্ছাচারী গ্রেপ্তার বন্ধকে চ্যালেঞ্জ করা থেকে বিরত রাখতে পারেনি।

স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে @আলমনাসেরন অবস্থান কর্মসূচী শুরুর ঘোষণা দেয় এবং টুইট [আরবি] করেঃ

بدأ #اعتصام_الحرية نساء في عدة مناطق في آن واحد فعلى أهالي المعتقلين الإنضمام إليهم فوراً

@আলমনাসেরনঃ মুক্তির জন্য অবস্থান কর্মসূচিটি এই মাত্র শুরু হয়েছেঃ বিভিন্ন এলাকা থেকে নারীরা একযোগে একত্রিত হচ্ছেন। এখনই বন্দীদের আত্মীয়-স্বজনদের তাঁদের সাথে যোগ দেওয়া উচিৎ।

রিয়াদে এক দল নারী সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় চালিত ন্যাশনাল সোসাইটি ফর হিউমেন রাইটসের সামনে জড়ো হন, যেখানে তাঁরা গত ফেব্রুয়ারিতেও প্রতিবাদ জানান। তাঁদের বেশীরভাগ সৌদি বেসামরিক ও রাজনৈতিক অধিকার এসোসিয়েশনের প্রধান সুলেমান আল-রুশদির আত্নীয়। তাঁর মেয়ে বাহিয়া আল-রুশদিও প্রতিবাদকারীদের একজন, যিনি গত অবস্থান কর্মসূচীর পর বরখাস্তকৃতভাবে চার মাস জেলে ছিলেন। ৩০ টির বেশী পুলিশের গাড়ি [আরবি] তাঁদেরকে দ্রুত ঘিরে ফেলে। তাঁদের গাড়িচালককে গ্রেপ্তার [আরবি] করে এবং তাঁদেরকে সে স্থান ত্যাগ করতে নিষেধ করে। অবস্থান কর্মসূচীটি ভেঙ্গে দিতে পুলিশ দিনের ব্যস্ততম সময়ে রিয়াদের অন্যতম সড়ক কিং ফাহাদ বন্ধ করে দেয়। প্রতিবাদকারীদের একজন আল-রুশদীর স্ত্রী সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে টুইট করেছেনঃ

تم اعتقالنا واعتقال اخي

@ওমামার১: তাঁরা আমাদের গ্রেপ্তার করেছে এবং তাঁরা আমার ভাইকেও গ্রেপ্তার করেছে।

Relatives of the arrested women protesters gathered in front of the prison where they were reportedly held. Photograph shared by @fatma_mesned on Twitter

গ্রেপ্তারকৃত নারী প্রতিবাদকারীদের আত্মীয়রা জেলের সামনে জড়ো হয়েছেন, যেখানে তাঁরা আগে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছিল। টুইটারে ছবিটি শেয়ার করেছেন @ফাতেমা_মেসনেদ 

গ্রেপ্তারকৃত নারী প্রতিবাদকারীদের আত্মীয়-স্বজনেরা রাত ১১টা ৪৪ মিনিটে জেলের সামনে জড়ো হন, যেখানে তাঁরা প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে । আল-রুশদীর নাতনি ফাতিমা আল-মেসনেদ টুইট করেছেনঃ

الآن مجتمعون امام سجن الملز قسم النساء لمن اراد المطالبه بمعتصمات #الرياض انصروا من نصر أسرانا

@ফাতমা_মেসনেদঃ যারা প্রতিবাদকারীদের মুক্তি চান তাঁদের জন্যঃ আমরা এখন আল-মালেজ জেলের মহিলা বিভাগের সামনে আছি। যারা আমাদের কারাবন্দীদের সাথে আছেন তাঁদের সমর্থন করুন।

বুরায়দাহের গ্র্যান্ড কোর্টের সামনে নারীরা জড়ো হয়েছেন এবং খুব স্বল্প সময়ের মাঝে তাঁদের বেশীরভাগ অবস্থান কর্মসূচীতে অংশ নেন। সৌদি নিরাপত্তা বাহিনী বিকাল ৫টা ৫২ মিনিট নাগাদ প্রতিবাদকারীদের [আরবি] ঘিরে ফেলে। একজন যুবক প্রতিবাদকারীদের [আরবি] খাবার পানি সরবরাহ করতে গেলে পুলিশ বাহিনী তাঁকে তাড়া এবং গ্রেপ্তার করে। সাদা পোশাকধারী গোপন পুলিশ নারীদের স্থান ত্যাগ করতে হুকুম করে এবং তাঁদেরকে হুমকি দেয়, কিন্তু তাঁরা প্রত্যাখ্যান করে যতক্ষণ না তাঁদের আত্মীয়-স্বজনদের মুক্তি (ভিডিও [আরবি]) দেয়া হবে, ততক্ষণ তাঁরা যাবেন না। তাঁদেরকে জোর করে গ্রেপ্তার করার আগ পর্যন্ত নারী প্রতিবাদকর্মীর সংখ্যা বেড়েই যাচ্ছিল। রাত ৮টা ২৪ মিনিটে @আলমনাসেরন টুইট করেছেনঃ

الآن تم أركاب المعتصمات للباصات في بريدة بالقوة

@আলমনাসেরনঃ নারীদের একরকম জোর করেই [পুলিশ] বাসে তোলা হয়েছিল।

এর পরের দিন ১১ জুন বিকেল ৫ টায় একদল পুরুষ এবং মহিলা একত্রিত হন আগের দিনের গ্রেপ্তার নিয়ে প্রতিবাদ জানাতে। কয়েক মিনিটের মধ্যে জরুরী পুলিশ বাহিনী [আরবি] তাঁদের ঘিরে ফেলে, মারধর করে [আরবি] এবং তাঁদের গ্রেপ্তার করে।

মক্কা, আলজোফ এবং হিয়ালেও ছোট ছোট সমাবেশ হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .